খুলনা | রবিবার | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

লিভার নষ্টের কারণ ও ভালো রাখতে করণীয়

ডাঃ মোঃ কুতুব উদ্দিন মল্লিক | প্রকাশিত ০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১০:০০

মানষের দেহের প্রধান অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলোর মধ্যে অন্যতম হল লিভার। দেহের স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনায় লিভারের সুস্থতা অনেক জরুরী। কিন্তু কিছু বাজে অভ্যাসের কারণে প্রতিনিয়ত মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে শরীরের অন্যতম প্রয়োজনীয় এই অঙ্গটি। এর ফলে মারাত্মক সমস্যায় ভুগতে দেখা যায় অনেককেই। চলুন এবার এক নজরে দেখে নেওয়া যাক লিভার নষ্টের কারণগুলো।
১) অতিরিক্ত বেশি খাওয়া লিভারের পক্ষে ক্ষতিকর। অনেকেই আবাব বহুক্ষণ সময় না খেয়ে একবারে অনেক বেশি বেশি করে খেয়ে ফেলেন। এতে হঠাৎ করে লিভারের উপরে চাপ বেশি পরে এবং লিভার ড্যামেজ হওয়ার আশঙ্কা থাকে।
২) সকালের খাবার না খাওয়ায় লিভার পক্ষে ক্ষতিকর। যেহেতু অনেকটা সময় পেট খালি থাকার কারণে অন্যান্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গের পাশাপাশি খাদ্যের অভাবে কর্মক্ষমতা হারাতে থাকে লিভারও।
৩) অনেক বেশি ঔষধ খেলে লিভার নষ্ট হয়। বিশেষ করে ব্যথানাশক ঔষধের জেরে লিভারের কর্মক্ষমতার হ্রাস পার্যায়ে। এছাড়াও ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ায় ক্ষতি হয় লিভারের। এতে করে লিভার ড্যামেজ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়।
৪) কেমিক্যাল সমৃদ্ধ যেকোনো কিছুই লিভারের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। কিন্তু আলসেমি ও মুখের স্বাদের জন্য আমরা অনেকেই প্রিজারভেটিভ খাবার, আর্টিফিশিয়াল ফুড কালার, আর্টিফিশিয়াল চিনি ইত্যাদি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলি যা লিভার নষ্টের অন্যতম কারণ।
৫) খারাপ তেল ও অতিরিক্ত তৈলাক্ত খাবার লিভারের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। একই তেলে বারবার ভাজা খাবার বা পোড়া তেলের খাবার বেশি পরিমাণে খাওয়া হলে লিভার তার স্বাভাবিক কর্মক্ষমতা হারাতে থাকে।
৬) অতিরিক্ত কাঁচা খাবার খাওয়াও লিভারের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। যেমন আপনি যদি খুব বেশি কাঁচা ফলমূল বা সবজি খেতে থাকেন তাহলে তা হজমের জন্য অতিরিক্ত কাজ করতে হয় পরিপাকতন্ত্রের। এর প্রভাব পড়ে লিভারের উপরেও। সুতরাং অতিরিক্ত খাবেন না।
৭) অতিরিক্ত পরিমাণে মদ্য পান করা লিভার নষ্টের আরেকটি মূল কারণ। অ্যালকোহলের ক্ষতিকর উপাদান সমূহ লিভারের মারাত্মক ক্ষতি করে।
লিভার ভালো রাখতে করণীয়ঃ
মানুষের দেহের প্রধান অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলোর মধ্যে অন্যতম লিভার। দেহের স্বাভাবিক পরিচালনায় লিভারের সুস্থতা অনেক জরুরী। কিন্তু আমাদের কিছু অসাবধানতার জন্য প্রতিনিয়ত মারাক্তক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে লিভার। তাই এই অঙ্গকে সুস্থ রাখতে হলে আমাদের কিছু ভাল অভ্যাস তৈরি করতে হবে। প্রথমেই আমাদের বাইরের দোকানের খাবারকে ‘না’ বলতে হবে। এতে বাইরের জীবাণু ভাইরাস থেকে লিভার সুস্থ থাকবে। ফ্যাটি লিভারের সমস্যা এড়াতে অতিরিক্ত মদ্যপান, তেল-মশলাযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। তবে বাজার থেকে লো ফ্যাটযুক্ত খাবার কেনার পূর্বে এতে চিনির পরিমাণ দেখে কিনতে হবে।
গবেষণায় দেখা গেছে, লিভার সুস্থ রাখতে স্ট্রেসের সময় খাবার না খাওয়া ভাল। এতে হজমের সমস্যা হয়। যে কোনো প্রোটিন বা ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট খাওয়ার পূর্বে সতর্ক থাকতে হবে। এমন সাপ্লিমেন্ট নিতে হবে যা লিভার ডিটক্সিফাই করতে সাহায্য করে। ভিটামিন সি, ভিটামিন বি-কমপ্লেক, ওমেগা থ্রি, অ্যামাইনো এসিড লিভার সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। কিছু ওষুধ লিভারের ক্ষতি করে। যেমন কিছু পেইন কিলার বা কোলেস্টেরলের ওষুধ লিভারের প্রভুত ক্ষতি করে।
লিভার সুস্থ রাখতে অ্যানিমাল প্রোটিনের চেয়ে প্লান্ট প্রোটিন খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। এ ছাড়া রসুন, জাম্বুরা, বিট, গাজর, সবুজ চা, সবুজ শাক-সবজি, অলিভের তেল, লেবু, বাঁধাকপি ও হলুদ লিভারের জন্য অত্যন্ত উপকারী। গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত কফি পান লিভারের অসুখ ১৪ শতাংশ কমায়। তবে কফি হতে হবে লো ফ্যাট ও লো কার্বোহাইড্রেট যুক্ত। তবে শরীরের সুস্থতার জন্য নিয়মিত হেলথ চেকআপ করা উচিত এবং কোনো সমস্যা অনুভূত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত। 

ডা: কুতুব উদ্দিন মল্লিক 
সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান,

লিভার বিভাগ

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, খুলনা 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






স্তন ক্যান্সার: আমরা কতটা সচেতন?

স্তন ক্যান্সার: আমরা কতটা সচেতন?

০৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০৫

পাইলস রোগের সাধারণ আলোচনা

পাইলস রোগের সাধারণ আলোচনা

২৭ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০







ব্রেকিং নিউজ