খুলনা | রবিবার | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

প্রতিবাদে তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা  

গায়েবী মামলায় গণগ্রেফতার চালিয়ে পতন ঠেকানো যাবে না : নগর বিএনপি 

খবর বিজ্ঞপ্তি | প্রকাশিত ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:০৮:০০

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবী মামলা ও গণগ্রেফতারের প্রতিবাদে তিন দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে নগর বিএনপি। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আজ বুধবার দুপুর ১২টায় দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন, আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় পুলিশ কমিশনারের কাছে স্মারকলিপি পেশ এবং ২৯ সেপ্টেম্বর শনিবার বেলা ১১টায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ বিক্ষোভ। গতকাল মঙ্গলবার নগর বিএনপি’র সাংগঠনিক সভায় এ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।  দুপুর ১২টায় নগরীর কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। 
সভায় থেকে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে গায়েবী মামলা দায়ের, শত শত বিএনপি নেতা-কর্মীকে আসামী করা, বাড়ি বাড়ি তল্লাশি ও গণগ্রেফতার চালিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে মাঠ ফাঁকা করা এবং বিনা বাঁধায় ৫ জানুয়ারি মার্কা আর একটি ভোটের মাধ্যমে নৌকাকে বিজয়ী করার যে নীলনকশা পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে সরকার করতে চাচ্ছে তা কোনদিনই বাস্তবায়ন হবেনা বলে হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করা হয়। এসব গায়েবী মামলায় গণগ্রেফতার চালিয়ে পতন ঠেকানো যাবে না।  রাজপথের লড়াইয়ের মাধ্যমে মিথ্যা মামলায় কারারুদ্ধ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে এনে একটি অবাধ সুষ্ঠু গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা হবে বলে সভা থেকে ঘোষণা দেয়া হয়।  
সভা থেকে নগরীর সদর, লবণচরা ও দৌলতপুর থানায় পুলিশের গায়েবী মামলা দায়ের এবং এসব মামলায় নগর বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, দৌলতপুর থানা বিএনপি’র সভাপতি শেখ মোশারফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল হক নান্নুসহ অঙ্গসহযোগী সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের নামে মামলা দায়েরের তীব্র নিন্দা জানানো হয়। এভাবে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের ও গণগ্রেফতার চালিয়ে কোন অবৈধ স্বৈরশাসক বিশ্বের কোন দেশে ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি এবং বাংলাদেশেও পারবে না। আর এর নজির খোঁজার জন্য বাইরে না তাকিয়ে নিজেদের দেশের দিকে তাকালেই উদাহরণ পাওয়া যাবে।  
সভা থেকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাশের তীব্র নিন্দা জানিয়ে মুক্ত মত প্রকাশের পথে বিশাল অন্তরায় এই কালো আইন বাতিলের দাবি জানানো হয়। সভা থেকে নগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা গুরুতর অসুস্থ হয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাহিরে যাওয়ায় তার আশু রোগমুক্তি কামনা করা হয়। সভা থেকে খানজাহান আলী থানা বিএনপি’র নির্বাহী সদস্য মুন্সী আব্দুর রউফের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়। 
সভায় উপস্থিত ছিলের নগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশারফ হোসেন, জাফর উল্লাহ খান সাচ্চু, সিরাজুল ইসলাম, শাহজালাল বাবলু, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, ফখরুল আলম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, মেহেদী হাসান দীপু, মহিবুজ্জামান কচি, শফিকুল আলম তুহনি, শাহিনুল ইসলাম পাখী, আজিজুল হাসান দুলু, ইকবাল হোসেন খোকন, আব্দুর রহিম বক্স দুদু, মুজিবর রহমান, জালু মিয়া, মোঃ শাহজাহান, সাদিকুর রহমান সবুজ, শেখ সাদী, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, মাসুদ পারভেজ বাবু, কে এম হুমায়ুন কবির, একরামুল কবির মিল্টন, একরামুল হক হেলাল, হাসানুর রশিদ মিরাজ, শামসুজ্জামান চঞ্চল, শরিফুল ইসলাম বাবু, হেলাল আহম্মেদ সুমন, ফারুক হিল্টন, নাজির উদ্দিন আহমেদ নান্নু, শেখ ইমাম হোসেন, হাসান মেহেদী রিজভী, জহর মীর, ওহেদুজ্জামান, বদরুল আনাম, শরিফুল আনাম, হাফিজুর রহমান মনি, হাবিব বিশ্বাস, হাসান উল্লাহ বুলবুল, এড. মোহাম্মদ আলী বাবু, আফসার উদ্দিন মাস্টার, মীর কবির হোসেন, শমসের আলী মিন্টু, আবুল কালাম শিকদার, বেলায়েত হোসেন, রবিউল ইসলাম রবি, মহিউদ্দিন টারজান, ওয়াহিদুর রহমান দীপু, আসিফ ইকবাল লিটন, বাচ্চু মীর, সরদার ইউনুস আলী, নাসির খান, আসলাম হোসেন, তরিকুল ইসলাম, ইমতিয়াজ আলম বাবু, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, আনিসুর রহমান আরজু, নিঘাত সীমা, তৌহিদুর রহমান খোকন, মোস্তফা কামাল, সাইফুল ইসলাম, মতলেবুর রহমান মিতুল, আব্দুল আলিম, মিজানুর রহমান খোকন, লিটন খান, শামসুদ্দীন প্রিন্স, আলমগীর হোসেন, সাইমুন ইসলাম রাজ্জাক, কাজী শাহনেওয়াজ নীরু, জাহাঙ্গীর হোসেন, রোকেয়া বেগম, মাজেদা খাতুন, আনজিরা বেগম, মোহাম্মদ আলী, ডাঃ ফারুক হোসেন, লিটু পাটোয়ারী ও নুরে আব্দুল্লাহ প্রমুখ।  


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ