খুলনা | রবিবার | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

রূপসার পৃথক এলাকা থেকে ভ্যান  চালকসহ দুই কিশোরের লাশ উদ্ধার 

রূপসা প্রতিনিধি | প্রকাশিত ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০:০০

রূপসার পৃথক এলাকা থেকে ভ্যান  চালকসহ দুই কিশোরের লাশ উদ্ধার 


রূপসা উপজেলার ঘাটভোগ ইউনিয়নের পৃথক স্থান থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার থানা পুলিশ দুই কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে। এর মধ্যে নিখোঁজের ৯ দিন পর তেরখাদার ভ্যান চালকের গলিত লাশ একটি হোগলা বাগানে পাওয়া যায়। এছাড়া আলাইপুর গ্রামের কিশোর মুসা শিকদার লাশ ভৈরব নদে ভাসমান অবস্থায় পাওয়া যায়। উভয় পরিবারের অভিযোগ তাদেরকে দুস্কৃতকারীরা হত্যা করেছে। 
ভুক্তভোগী পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ১১ সেপ্টেম্বর তেরখাদা উপজেলার আড়কান্তি মধ্যপাড়া গ্রামের ঝড়– শেখের পুত্র ভ্যান চালক শামীম শেখ (১৫) বাড়ী থেকে বের হয়। এরপর সে আর বাড়ি ফেরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। অবশেষে গতকাল সকালে রূপসা উপজেলার শিয়ালী-চাঁদপুর সড়কের পাশে একটি হোগলা বাগানের মধ্যে তার গলিত লাশ পাওয়া যায়। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করে তার কাছে থাকা ভ্যানটি ছিনিয়ে নিয়েছে। 
অপর দিকে আলাইপুর গ্রামের মুস্তাকিন শিকদারের পুত্র মুসা শিকদার (১৬) এর লাশ থানা পুলিশ ভৈরব নদীতে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছে। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাতে মুসা শিকদারকে তার পিতা তাদের দোকান ঘরে ঘুমাতে পৌঁছে দিয়ে বাড়ি যায়। সকালে উক্ত দোকানে মুসা শিকদারকে না পাওয়ায় পরিবারের সদস্যরা তাকে খুঁজতে থাকে। অবশেষে গতকাল বাড়ি থেকে মাত্র ৫শ’ গজ দূরে ভৈরব নদে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। মুছা শিকদারের নাক ও চোখ দিয়ে ব্যাপক রক্ত ঝরছিল বলে পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়। পরিবারের অভিযোগ পূর্ব শত্র“তার জের ধরে এলাকার কতিপয় সন্ত্রাসী তাকে হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে রেখেছে। এ ব্যাপারে রূপসা থানার ওসি মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, লাশ দু’টি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ উদঘাটন করা সম্ভব হবে। এ ঘটনায় থানায় পৃথক মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ