খুলনা | বৃহস্পতিবার | ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

‘জনগণের চিকিৎসা সেবায় জীবন উৎসর্গ করুন’

মেডিকেল কলেজে শিক্ষা কার্যক্রম তদারকির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০৫:০০


দেশের মেডিকেল কলেজগুলোতে শিক্ষা কার্যক্রম ঠিকভাবে চলছে কি না, বিভিন্ন বিভাগে স্থাপিত মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে তার তদারকি করতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 
জনগণের চিকিৎসা সেবায় নিজেদের জীবন উৎসর্গ করতে চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানসম্পন্ন চিকিৎসার দিকে জোর দিতে হবে, চিকিৎসা সেবাকে নিয়ে যেতে হবে আন্তর্জাতিক মানে। এছাড়া দরিদ্র মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতেও চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সুপার স্পেশালাইজড’ হাসপাতালের নির্মাণ কাজের ভিত্তি স্থাপন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার অব এক্সলেন্সের আওতায় আরও কয়েকটি নতুন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান এবং নির্দেশনা দেন।
এক হাজার ৩৬৬ কোটি টাকায় নির্মিতব্য বিশেষায়িত হাসপাতাল ২০২১ সালে উদ্বোধন করা হবে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচতলা কনভেনশন সেন্টার, ডায়াগনস্টিক ও চিকিৎসকদের ডরমিটরি সুবিধাসহ নির্মিত নতুন ভবনেরও উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দেন দেশের সব বিভাগে একটি করে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার। যার মধ্যে রাজধানীসহ চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও সিলেটে এরই মধ্যে যা স্থাপিত হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দু’টি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে আমরা করে দিয়েছি। সিলেটেরটাও আমরা করে দিয়েছি সেই আইনটা আজকেই পার্লামেন্টে উঠবে। বোধ হয় আজকে এটা পাস হবে।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের একটা উদ্দেশ্য আছে যে পর্যায়ক্রমিকভাবে প্রতিটি বিভাগে একটি করে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আমরা তৈরি করে দেবো। এবার তো সময় শেষ হয়ে গেছে। এখন তো আর এত করা সম্ভব না। আর তা ছাড়া নতুন বিভাগও হয়েছে। তবে ইনশাআল্লাহ, আগামীতে যদি আসতে পারি, তখন আমরা করে দেবো।’
বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদে শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবাসহ জনগণের দোরগোড়ায় সব সেবা পৌঁছে দিতে পেরেছেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী দরিদ্র মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে চিকিৎসকদের নির্দেশ দেন।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘সমস্ত বাংলাদেশের মানুষের চিকিৎসা সেবা এবং বিশেষজ্ঞ সৃষ্টির জন্য আমরা বিভিন্ন ইনস্টিটিউট করা শুরু করে দিয়েছিলাম। কিডনি, নিউরো, ক্যানসার থেকে শুরু করে ইএনটি নানা ধরনের, আমরা যত প্রয়োজনের আছে সব ধরনের ইনস্টিটিউটের কাজ আমরা শুরু করি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে মানুষের সেবা দেওয়া আর সে জন্য আমরা একটি স্বাস্থ্যনীতিও প্রণয়ন করেছি, যে নীতিমালার ভিত্তিতে দেশের মানুষ যেন চিকিৎসাসেবা পায়।’
নতুন এই অত্যাধুনিক বিশেষায়িত হাসপাতালে গবেষণামূলক কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে দেশের চিকিৎসাসেবা খাতকে আরো এগিয়ে নিতে চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বানও জানান শেখ হাসিনা।
বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের অধীনে বাংলাদেশে প্রথম এই ‘সুপার স্পেশালাইজড’ হাসপাতালটি নির্মাণ করা হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার সহযোগিতায়। ১৩ তলা ভবনে অত্যাধুনিক এই হাসপাতালে এক ছাদের নিচেই মিলবে সবধরনের স্বাস্থ্য সেবা। বিএসএমএমইউর উত্তর পাশে ৩ দশমিক ৪ একর জমিতে এক হাজার ৩৬৬ কোটি টাকায় নির্মাণ করা হবে এই হাসপাতাল। এই ব্যয়ের মধ্যে এক হাজার ৪৭ কোটি টাকা ঋণ হিসেবে দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া সরকার। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ




ফের হেলমেট বাহিনী!

ফের হেলমেট বাহিনী!

১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:৪৭










ব্রেকিং নিউজ