খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

খুলনায় পাসপোর্ট সরবরাহে ধীরগতি ই-পাসপোর্টের বিষয়ে নেই নির্দেশনা

এন আই রকি | প্রকাশিত ২৫ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:১০:০০

খুলনায় পাসপোর্ট আবেদনকারীরা নতুন করে হয়রানীর শিকার হচ্ছেন। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট সরবরাহ না হওয়ায় অনেকেই নানাবিধ সমস্যায় পড়ছেন। বিদেশে পড়তে যেতে আগ্রহী শিক্ষার্থী, অসুস্থ রোগী, ওমরাহ যাত্রীসহ বিভিন্ন পেশায় বিদেশগামী গ্রাহকরা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট না পাওয়ায় তীব্র ক্ষোভ জানিয়েছেন। এদিকে গত ২২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ই-পাসপোর্ট এর উদ্বোধন করলেও খুলনা বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসে কবে নাগাদ এর কার্যক্রম শুরু হতে পারে এ ব্যাপারে কোন নির্দেশনা আসেনি। 
নগরীর নূরনগরস্থ বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসে আসা একাধিক আবেদনকারীদের সাথে আলাপকালে জানা যায়, আবেদনপত্র জমা দেওয়ার প্রসেসিং অনেক সহজ হয়েছে। পাসপোর্ট অফিস চত্বরে দালাল চক্রের আনাগোনাও কম। তবে পাসপোর্ট সরবরাহে ধীর গতি। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট পাচ্ছে না গ্রাহকরা। দৌলতপুরের বাসিন্দা আর এক্স আলামিন বলেন, ভারতে যাওয়ার জন্য সাধারণভাবে পাসপোর্টের আবেদন করেছিলাম। ২১ থেকে ৩০ দিনের মধ্যে পাওয়ার কথা কিন্তু দেড় মাস অতিক্রম হওয়ার পরও কোন খবর নেই। ডুমুরিয়ার সজিব দাস বলেন, জরুরি পাসপোর্ট ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে পাব বলে বেশি টাকা জমা দিয়েছিলাম কিন্তু ১ মাস অতিক্রম হয়ে যাচ্ছে। এদিকে কয়রার একজন চাকুরিজীবী ২০১৯ সালের ১৭ অক্টোবর পাসপোর্টের জন্য আবেদন করলেও গত তিন মাসেও তিনি পাসপোর্ট হাতে পাননি। এদের মত অনেক গ্রাহকই বলেন, পাসপোর্টের আবেদন জমা নেওয়ার পর একটি স্লিপ দেওয়া হয়। সেখানে পাসপোর্ট সরবরাহের সম্ভাব্য তারিখ থাকে। কিন্তু সেই তারিখের পরে এসেও পাসপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে না। অফিস থেকে বলা হচ্ছে মোবাইলে ম্যাসেজ (ক্ষুদে বার্তা) আসার পর যোগাযোগ করতে। 
এদিকে ই-পাসপোর্টের বিষয়ে খুলনা অফিসে এখনও কোন নির্দেশনা আসেনি। তবে প্রধানমন্ত্রী ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন করার পর থেকেই প্রতিদিন আগ্রহী আবেদনকারীরা ই-পাসপোর্টের খোঁজ নিতে অফিসে আসছেন। স্থানীয় পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ জানান, গত নভেম্বর মাস থেকে পাসপোর্ট সরবরাহ কম। কেন্দ্রীয়ভাবে পাসপোর্ট প্রিন্ট কম হওয়ায় পাসপোর্ট সরবরাহ কিছুটা কমেছে। সূত্রটি আরও বলেন, প্রতি মাসে গড়ে ৫ থেকে ৭ হাজার নতুন পাসপোর্ট আবেদনকারীদের সরবরাহ করা হলেও গত তিন মাসে গড়ে ২থেকে ৩ হাজারের বেশি সরবরাহ করা যাচ্ছে না। 
খুলনা বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের ডিএডি রফিকুল ইসলাম খান এ প্রতিবেদককে বলেন, ই-পাসপোর্ট সবেমাত্র প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করেছেন। খুলনায় কবে নাগাদ কার্যক্রম শুরু হবে তার কোন নির্দেশনা আসেনি। তবে খুলনায় ই-পাসপোর্টের আগ্রহীদের সংখ্যা অনেক। তিনি আরও বলেন, বর্তমানে মেশিন রিডাবল পাসপোর্ট (এমআরপি) কেন্দ্রীয়ভাবে প্রিন্ট কম হচ্ছে। তাই প্রত্যাশা অনুযায়ী সরবরাহ কম। তবে এই সমস্যা সাময়িক, খুব দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে। 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ












ক্রিকেটার মিরাজের বাসায় চুরি

ক্রিকেটার মিরাজের বাসায় চুরি

২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৪৬