খুলনা | মঙ্গলবার | ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

বটিয়াঘাটার ব্যবসায়ী রিপন হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ২১ জানুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৩:০০

বটিয়াঘাটার ব্যবসায়ী রিপন হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা থানাধীন গড়িয়ারডাঙ্গা গ্রামের ফিস ফিড ব্যবসায়ী রিপন রায় (১৯) হত্যা মামলায় ৬ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছে আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে খুলনার জননিরাপত্তা বিঘœকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ সাইফুজ্জামান হিরো এ রায় ঘোষণা করেন। রিপন গড়িয়াডাঙ্গার রাম প্রসাদ রায়ের ছেলে। মামলার অপর দু’আসামি দোষী সাব্যস্ত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।
দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন বটিয়াঘাটা থানার বৃত্তি শলুয়া গ্রামের নুর মোহাম্মদ ঘরামীর ছেলে মনিরুজ্জামান ঘরামী (৪৯), পার্শ্বেমারি গ্রামের আব্দুল মজিদ সরদারের ছেলে মোঃ হুমায়ুন সরদার (৩৪), গাওঘরা গ্রামের মোঃ আমজেদ শেখের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর শেখ (৩৭),  নুর আলী শেখের ছেলে এনামুল শেখ (৩০), খালেক শেখের ছেলে কাদের শেখ (৩২) ও সিরাজ শেখের ছেলে পিন্টু শেখ (৩২)। খালাসপাপ্ত দু’জন হলেন খুলশীবুনিয়া গ্রামের মৃত নুর উদ্দিন শেখের ছেলে হুমায়ুন কবির বাবু (৩৭) ও গাওঘরা গ্রামের মৃত ফুলমিয়া মল্লিকের ছেলে হান্নান মল্লিক (৫৭)। 
আদালতের উচ্চমান বেঞ্চ সহকারী মোঃ সায়েদুল হক শাহীন নথীর বরাত দিয়ে জানান, ২০০৭ সালের ১ এপ্রিল রাত ৮টার দিকে বটিয়াঘাটা উপজেলার গড়িয়াডাঙ্গার রাম প্রসাদ রায় পরিবারের লোকজন নিয়ে খলশীবুনিয়া গ্রামে কীর্ত্তন শুনতে যায়। যাওয়ার আগে গড়িয়াডাঙ্গা চৌরাস্তার মোড়ে তার ছেলে রিপনের মাছের খাবারের দোকান রিপন ফিস ফিডে গিয়ে কীর্ত্তন শুনতে ডেকে যান। রিপন বলে তোমরা যাও, আমি পরে আসছি। রিপন তার পূর্বের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান (সিডির  দোকান) বসে মনিরুজ্জামান ও জাহাঙ্গীরের সঙ্গে সিডি দেখে। পরে হুমায়ুনের সঙ্গে খলশীবুনিয়া গ্রামের কীর্ত্তন শুনতে যায়। রাতে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। আসামিরা পূর্ব শত্র“তার জের ধরে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে যায়। পরদিন সকালে বৃত্তি খলশীবুনিয়া এলাকার রাস্তার পাশে তার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। বটিয়াঘাটা থানা পুলিশ রিপনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় ২ এপ্রিল রিপনের বাবা রাম প্রসাদ রায় বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন যার নং-০১। ২০১০ সালের ২০ জুলাই পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) এসআই খান মাহবুবুর রহমান ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলী ছিলেন বিশেষ পিপি আরিফ মাহমুদ লিটন।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ










প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৯


ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৮


ব্রেকিং নিউজ










প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৯


ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৮