খুলনা | মঙ্গলবার | ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

‘প্রায় শত কোটি টাকা ব্যয় হলেও ময়ূর নদী খনন সঠিক ভাবে কাজ না হওয়ায় তা কাজে আসেনি’

নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে কেসিসি’র হাতে পর্যাপ্ত ক্ষমতা দিতে হবে : সিটি মেয়র

খবর বিজ্ঞপ্তি | প্রকাশিত ২১ জানুয়ারী, ২০২০ ০০:৩২:০০


খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, সুষ্ঠুভাবে নগরীর উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন এবং প্রয়োজনীয় নাগরিক সেবা নিশ্চিত করার জন্য কেসিসি’র হাতে পর্যাপ্ত ক্ষমতা দিতে হবে। উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়নের সকল সংস্থার মধ্যে সমন্বয় সাধনের জন্য স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী করা দরকার। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রতিকূলতায় প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে উপকূলীয় এলাকার মানুষ প্রায়ই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আর এই সব ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে নগরীতে বসবাস করছে। দুর্যোগ পীড়িত ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কল্যাণে খুলনা সিটি কর্পোরেশন জার্মান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় জলবায়ু পরিবর্তন সহিষ্ণু প্রকল্প গ্রহণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। 
সিটি মেয়র গতকাল সোমবার সকালে নগর ভবনের শহিদ আলতাফ মিলনায়তনে ‘ইনসেপশন রিপোর্ট ওয়ার্কশপ’-এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষতি মোকাবেলায় প্রকল্প গ্রহণের উদ্দেশ্যে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এ কর্মশালার আয়োজন করে। 
কর্মশালায় সিটি মেয়র আরো বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে রূপসা, ভৈরব, ময়ূর নদীসহ মহানগরী সংলগ্ন খালগুলি ভরাট হয়ে গেছে। এর মধ্যে জরুরীভিত্তিতে ময়ূর নদী এবং বাইশটি খাল খনন করতে হবে। ইতোপূর্বে প্রায় শত কোটি টাকা ব্যয়ে ময়ূর নদী খনন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সঠিকভাবে কাজ না হওয়ায় তা কোন কাজে আসেনি। আগামীতে খনন কাজসহ সব কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হবে।
জার্মান উন্নয়ন সংস্থা জার্মান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (কেএফডব্লিউ) মাধ্যমে অভিযোজিত নগর উন্নয়ন (সিসিএইউডি), বিশেষ করে শহরের অবকাঠামোগত উন্নয়নে বিনিয়োগ এবং সক্ষমতা বিকাশের দিকে জোর দিয়ে বাংলাদেশকে সহায়তা করছে।  
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পলাশ কান্তি বালা’র সভাপতিত্বে কর্মশালায় স্বাগত বক্তৃতা করেন প্রধান প্রকৌশলী মোঃ এজাজ মোর্শেদ চৌধুরী। কেসিসি’র প্যানেল মেয়র মোঃ আমিনুল ইসলাম মুন্না, মোঃ আলী আকবর টিপু ও মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরবৃন্দ, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম, কেসিসি’র প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল আজিজ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী মোঃ আনিসুর রহমান, আর্কিটেক্ট রেজবিনা খানম, সহকারি প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ হোসেন প্রমুখ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। 
প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বর্ণনা করেন কেসিসি’র চীফ প্লানিং অফিসার আবির উল জব্বার, পটভূমি বর্ণনা করেন ক্লাইমেট চেঞ্জ এডাপটেড আরবান ডেভেলপমেন্ট (সিসিএইউডি)-এর টীম লিডার সবুজ ইকবাল, বিষয়ভিক্তিক বক্তব্য তুলে ধরেন নেদারল্যান্ডস এন্টারপ্রাইজের আরভিও সান্দ্রা স্কুফ ও কেএফডব্লিউ’র সিনিয়র আরবান রিজেলিয়েন্স স্পেশালিস্ট এস এম মেহেদী আহসান।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ










প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৯


ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৮


ব্রেকিং নিউজ










প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

প্রাণের মেলামঞ্চে বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৯


ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

ভাষা আন্দোলনের দিনগুলি

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৫৮