খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

বিপিএলে যেমন করলো খুলনার ক্রিকেটাররা

আব্দুল্লাহ এম রুবেল  | প্রকাশিত ১৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:২০:০০

পর্দা নেমেছে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের। খুলনা টাইগার্সকে হারিয়ে এই প্রতিযোগিতায় প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতে নিয়েছে রাজশাহী রয়েলস। এবারের প্রতিযোগিতায় খুলনা জেলার ৭ ক্রিকেটার বিভিন্ন দলের হয়ে অংশ নিয়েছেন। এর মধ্যে খুলনা টাইগার্সে খেলেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সে খেলেছেন নুরুল হাসান সোহান ও জিয়াউর রহমান। ঢাকা প্লাটুনের হয়ে খেলেছেন মেহেদী হাসান। চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী রয়েলসে ছিলেন আফিফ হোসেন ধ্র“ব। এছাড়া কুমিল্লা ওরিয়র্সে খেলেছেন রবিউল ইসলাম রবি। আর নাহিদুল ইসলাম খেলেছেন রাজশাহী রয়েলসে। ব্যাটে বলে এবার দারুণ আলো ছড়িয়েছেন খুলনার ক্রিকেটাররা। এর মধ্যে মেহেদী হাসান মিরাজ, আফিফ হোসেন ধ্র“ব’র পারফরমেন্স নজর কেড়েছে সবার। দেরীতে দলে সুযোগ পেয়ে তার সঠিক ব্যবহার করেছেন পেস বোলিং অল রাউন্ডার জিয়াউর রহমান। বাকিদের পারফরমেন্সও ছিলো প্রত্যাশা অনুযায়ী। আসুন দেখে নেয়া যাক খুলনার ক্রিকেটাররা কে কেমন পারফর্ম করলেন এবারের বিপিএলে। 
মেহেদী হাসান মিরাজ : খুলনাকে ফাইনালে তোলার লড়াইয়ে মেহেদী হাসান মিরাজের অবদান কম নয়। রাইলো রুশো, মুশফিকদের দলে আলাদা ভাবে নজরে ছিলেন এই অল রাউন্ডার। শুধুমাত্র বোলার পরিচয় ছাপিয়ে জেনুইন অল রাউন্ডার হিসেবে নিজেকে বিপিএলে চিনিয়েছেন মিরাজ। প্রথম কয়েক ম্যাচ পর মেহেদী হাসান মিরাজকে ব্যাটিং প্রমোশন দিয়ে খুলনা টাইগার্স দল ব্যাটিংয়ে উদ্বোধন করতে নামান মিরাজকে। সেখানেও প্রথম দুই ম্যাচ ব্যাটিংয়ে ভালো না করলেও পরে ওপেনিংয়ে নেমে সফল হয়েছেন খুলনার একমাত্র লোকাল বয় মিরাজ। মিরাজ ১৪ ম্যাচের ১১ ইনিংস ব্যাট করে ২৯০ রান করেন। এর মধ্যে সিলেট থান্ডারের বিপক্ষে ৮৭ রান করে দলকে জেতাতে মূল ভূমিকা পালন করেন তিনি। এরপর কুমিল্লা ওরিয়র্সের বিপক্ষেও আছে দারুণ একটি ৭৪ রানের ইনিংস। এই দুই ইনিংসেই অপরাজিত ছিলেন মিরাজ। বোলিংয়ে মিরাজ বড় উইকেট না পেলেও বোলিং এভারেজে ছিলেন সফল। 
আফিফ হোসেন ধ্র“ব : ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই চ্যাম্পিয়ন দলের আফিফ হোসেন ধ্র“ব নজর কেড়েছেন ক্রীড়াপ্রেমীদের। এই অল রাউন্ডার দুই বিভাগেই জায়গা করে নিয়েছেন সেরাদের তালিকায়। ব্যাটিংয়ে ১৫ ম্যাচের ১৪ ইনিংসে ৭৬ গড়ে ৩৭০ রান করেছেন। সর্বোচ্চ ৭৪ রানের ইনিংস রয়েছে তার। সর্বোচ্চ রান সংগ্রহাকরীর তালিকায় তিনি আছেন ৮ম স্থানে। স্ট্রাইক রেটও একেবারে কম নয় ১৩১.২০। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ভালো সময় কেটেছে বোলিংও। ১৫ ম্যাচে নিয়েছেন ৭ উইকেট। 
জিয়াউর রহমান জনি : টুর্নামেন্টে নিলামে তাকে কোন দল নিতে আগ্রহ দেখায়নি। প্রথম চার/ম্যাচ পর্যন্তও তিনি জানতেন না খেলবে হবে তাকে বিপিএল। অবশেষে তাকে সুযোগ করে দেয় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। এসেই চমক দেখিয়েছেন এই পেস বোলিং অল রাউন্ডার। দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্যাট হতে ঝলসে উঠেছেন, বোলিংয়ে উইকেট নেয়ার পাশাপাশি ইকোনমি রেটও ছিলো নজর কাড়া। ৬ ম্যাচের ৪ ইনিংসে ৭২ রান করেছেন। সব গুলো ব্যাটিংয়ে ছিলো গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ঝলসে ওঠা। পাশাপাশি বোলিংয়েও নজর কেড়েছেন তিনি। ৬ ম্যাচের ৬ ইনিংসে ১৯.৪ ওভার বল করে নিয়েছেন ৭ উইকেট। মাত্র ৭.৫২ ছিলো তার ম্যাচ প্রতি ইকোনমি রেট। 
মেহেদী হাসান : উঠতি অল রাউন্ডার খুলনার আরেক ক্রিকেটার মেহেদী হাসান। ঢাকা প্লাটুনে খেলা এই ক্রিকেটারও ভালো করেছেন বিপিএল জুড়ে। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিংয়ে উজ্জল ছিলেন তিনি। ১৩ ম্যাচের ১২ ইনিংস ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেয়ে মেহেদী হাসান করেছেন ২৫৩ রান। এর মধ্যে ৬৮ রানের অপরাজিত ইনিংস রয়েছে একটি। বোলিংয়ে আছেন সেরাদের তালিকার ১২ নম্বরে। ১৩ ম্যাচে ১২ উইকেট নিয়েছেন তিনি। মাত্র ৬.৭৬ তার বোলিং ইকোনমি। আর ১৩ রানে ৩ উইকেট তার সেরা বোলিং ফিগার এই বিপিএলে। 
নুরুল হাসান সোহান : উইকেটের পিছনে থেকে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স দলকে সামলেছেন নুরুল হাসান সোহান। পাশাপাশি ব্যাটিংয়েও আলো ছড়িয়েছেন তিনি। ১৪ ম্যাচের ১১ ইনিংসে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেয়ে ১৬২ রান করেছেন সোহান। এর মধ্যে ৩৭ রানের একটি অপরাজিত ইনিংস রয়েছে তার। ম্যাচ প্রতি স্ট্রাইক রেট ছিলো ১৩৩.৮৮। তবে সোহানের উইকেট কিপিংয়ে টিমকে সারাক্ষণ উজ্জীবিত করার বিষয়টি আলাদাভাবে নজর কেড়েছে। একটি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি। 
নাহিদুল ইসলাম : রাজশাহী রয়েলসের খেলা খুলনার আরেক ক্রিকেটার নাহিদুল ইসলাম অবশ্য এবার বিপিএলে খুব বেশী সুযোগ পাননি ম্যাচ খেলার। প্রথম থেকেই দলে থাকা এই ক্রিকেটার ৫ ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়েছে। ৩ ইনিংস ব্যাট করে করেছেন ৩৩ রান। বোলিং অবশ্য সাদামাটা গিয়েছে তার। কোন উইকেট ঝুলিতে নিতে পারেননি তিনি। 
রবিউল ইসলাম : খুব বেশী ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি খুলনার রবিউল ইসলামেরও। কুমিল্লা ওরিয়র্সের হয়ে ৪ ম্যাচে খেলতে নেমে করেছেন ৩৪ রান। বোলিং করলেও খুব বেশী ভালো করতে পারেননি তিনি। শেষদিকে সুযোগ পাননি মূল দলে। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ




ক্রিকেটার মিরাজের বাসায় চুরি

ক্রিকেটার মিরাজের বাসায় চুরি

২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৪৬



র‌্যাঙ্কিংয়ে এগোলেন মুশফিক-মুমিনুল

র‌্যাঙ্কিংয়ে এগোলেন মুশফিক-মুমিনুল

২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:০৩

অশোভন আচরণে আল  আমিনের শাস্তি

অশোভন আচরণে আল  আমিনের শাস্তি

২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:০২



দ্বিতীয় জয় পেলো ইস্ট রূপসা একাডেমী

দ্বিতীয় জয় পেলো ইস্ট রূপসা একাডেমী

২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:০০

বড় জয়ে স্বস্তি টাইগার শিবিরে

বড় জয়ে স্বস্তি টাইগার শিবিরে

২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:১৮


ব্রেকিং নিউজ












ক্রিকেটার মিরাজের বাসায় চুরি

ক্রিকেটার মিরাজের বাসায় চুরি

২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০০:৪৬