খুলনা | শনিবার | ১৮ জানুয়ারী ২০২০ | ৫ মাঘ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ৭.২, যশোরে ৮.২

রৌদ্রোজ্জল আবহাওয়াতেও হাড়  কাঁপানো শীতে বিপর্যস্ত জনজীবন 

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১৪ জানুয়ারী, ২০২০ ০০:৩৯:০০

রৌদ্রোজ্জল আবহাওয়াতেও হাড় কাঁপানো শীতে বিপর্যস্ত জনজীবন। সকালেই সূর্য উঠছে তবে উত্তরের হিমেল হাওয়ায় কমছে তাপমাত্রা। দেশের অনেক এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ বইছে, যা আরও দুইদিন অব্যাহত থাকবে। এদিকে খুলনাতে শৈত্য প্রবাহের পূর্বাভাস জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তর। এরমধ্যে বাড়ছে ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের সূত্রমতে, গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর যশোরে ৮ দশমিক ২, চুয়াডাঙ্গায় ৮ দশমিক ৪, খুলনাতে ১১ দশমিক ৮, বাগেরহাটে ১২ দশমিক ১, সাতক্ষীরায় ১১ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সোমবার যশোর, চুয়াডাঙ্গা, রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ ও রংপুর বিভাগের ওপর দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে। এটি আরও দু’দিন অব্যাহত থাকতে পারে। এরমধ্যে খুলনাতেও তাপমাত্রা আরও একটু কমে শৈত্য প্রবাহে রূপ নিতে পারে বলে জানিয়েছেন আঞ্চলিক আবহাওয়া অধিদপ্তরের ইনচার্জ মোঃ আমিরুল আজাদ। তিনি জানান, বেশকিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ বইছে। মঙ্গলবারও একই অবস্থা থাকবে। এরপর তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। আবার আগামী সপ্তাহে তাপমাত্রা কমতে পারে।
আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, যেসব এলাকার ওপর দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে তা অব্যাহত থাকতে পারে। দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা আরও কিছু কমতে পারে। দেশের বেশির ভাগ অঞ্চলে মাঝারি থেকে ঘনকুয়াশা পড়তে পারে। এছাড়া আকাশ আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। 
এদিকে, শীতজনিত রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে কর্মজীবী ও দরিদ্র মানুষকে। শীতের কারণে ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, সর্দিজ্বরসহ ঠাণ্ডাজনিত নানা রোগের প্রকোপ বাড়ছে। এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে শিশু ও বৃদ্ধ রোগীর ভীড়।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ