খুলনা | শনিবার | ১৮ জানুয়ারী ২০২০ | ৫ মাঘ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

মুখোমুখি চট্টগ্রাম-সিলেট ও কুমিল্লা-রংপুর 

বঙ্গবন্ধু বিপিএল’র মাঠের লড়াই শুরু হচ্ছে আজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০৫:০০

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের আয়োজনে আর তাদেরই সম্পূর্ণ পৃষ্ঠপোষকতায় বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী সামনে রেখে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের বিশেষ সংস্করণ বঙ্গবন্ধু বিপিএলের মাঠের লড়াই শুরু হচ্ছে আজ বুধবার থেকে। এর আগে অবশ্য জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পর্দা উঠেছে এবারের বিপিএলের। বিশেষ সংস্করণের এই বিপিএলে অংশ নিচ্ছে ৭টি দল। বিপিএলের উদ্বোধনী দিনের প্রথম ম্যাচে দুপুর দেড়টায় মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের মুখোমুখি হবে সিলেট থান্ডার। আর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে কুমিল্ল¬া ওয়ারিয়র্সের প্রতিপক্ষ রংপুর। 
চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের নেতৃত্বে থাকছেন মাহমুদুল্ল¬াহ রিয়াদ। তবে ইনজুরির কারণে প্রথম দুই ম্যাচ অবশ্য খেলা হচ্ছে না তার। তার পরিবর্তে প্রথম ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিবেন ইমরুল কায়েস। অন্য দলের চেয়ে হার্ড হিটারের মিলন মেলা চট্টগ্রামে। ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল, শ্রীলঙ্কার আভিস্কা ফার্নান্দো, জিম্বাবুয়ের রায়ান বুর্ল, রায়াদ এমরিট ও ইমাদ ওয়াসিমদের নিয়ে গড়া দল। তবে প্রথম ম্যাচে তারা মাহমুদুল্ল¬াহ’র মতো ক্রিস গেইলকেও পাচ্ছে না। বোলিং আক্রমণে আছেন রুবেল হোসেন, মুক্তার আলী, কেসরিক উইলিয়ামসনরা। ব্যাটে-বলে এবং অলরাউন্ডারে গড়া ভারসামপূর্ণ একটি দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। অন্য দিকে সিলেট থান্ডার’র এর নেতৃত্বে থাকছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। জনসন চার্লস, শফিকউল্ল¬াহ শাফাক, শেরফেইন রাদারফোর্ড ও রনি তালুকদারদের নিয়ে ব্যাটিং লাইন। বোলিংয়ে থাকছেন সোহাগ গাজী, নাজমুল ইসলাম অপু ও নাভি-উল হকরা।
চট্টগ্রামের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচকে সামনে রেখে অবশ্য হুঙ্কারই দিয়ে রেখেছেন সিলেট থান্ডার দলপতি মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। যা হোক, আর তা হোক জয় তার চাই ই চাই। আর এক্ষেত্রে তাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলছে টিম কম্বিনেশন। কেননা সিলেটে দলে তার সতীর্থ হিসেবে পাচ্ছেন; মোহাম্মদ মিঠুন, নাইম হাসান, নাজমুল ইসলাম অপু, নাইম হাসানদের। আস্থা রাখছেন অভিজ্ঞ বিদেশিদের ওপরেও। ‘স্থানীয় খেলোয়াড়ের দিক থেকে ম্যাচ বদলে দেওয়ার সামর্থ্য অবশ্যই আছে। আমরা ৩-৪ জন আছি যারা জাতীয় দলে বর্তমানে খেলছি। জাতীয় দলে ঢুকবে এমনও কয়েকজন আছে।  এছাড়াও যারা আছে ওরাও এক সময় খেলেছেন। বিদেশিরাও নিজ দেশের জাতীয় দলের খেলোয়াড়। তাই আমি মনে করি টুর্নামেন্টে ফাইট করার মত ভারসাম্যপূর্ণ দল আমরা।’
চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স হয়ত মোসাদ্দেকের মতো হুঙ্কার দেয়নি। কিন্তু এটাও তো ঠিক যে মাঠের লড়াইয়ে তারা একবিন্দুও ছাড় দেবে না। চট্টগ্রাম দলপতি ইমরুল কায়েসও তেমনই আভাস দিলেন। ‘রিয়াদ ভাইয়ের (মাহমুদউল¬াহ) না থাকায় টিম সাজানো কঠিন। উনাকে দু’টো ম্যাচ মিস করবো। বিদেশি পে¬য়ারও খেলতে পারে আবার লোকাল পে¬য়ারও খেলতে পারে ওই জায়গাটায়। এই জায়গাটা রিকভারি করাটা কঠিন। যারাই এই জায়গায় সুযোগ পাবে তাঁরা এর সঠিক ব্যবহার করার চেষ্টা করবে।’
দিনের দ্বিতীয় ম্যাচের লড়াই নিয়ে অবশ্য দুই দলের প্রতিনিধিদের থেকে তেমন কোন তর্জন গর্জন শোনা যায়নি।) কুমিল্ল¬ার প্রতিনিধি হয়ে আসা পেস বোলার আল আমিন হোসেন শুধু বললেন, শুরুটা তারা ভাল করতে চান। ‘অবশ্যই ভালো করতে চাই।’ আর রংপুর চ্যালেঞ্জার্স দলপতি দলপতি মোহাম্মদ নবী বললেন, মেধাবি বাংলাদেশি ও বিদেশি পে¬য়ারদের সমন্বয়ে রংপুর দলটি বেশ ভাল। এখান থেকেই তারা উইনিং কম্বিনেশন খুঁজে বের করবে। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

রাজশাহী চ্যাম্পিয়ন

রাজশাহী চ্যাম্পিয়ন

১৮ জানুয়ারী, ২০২০ ০০:২০













ব্রেকিং নিউজ