খুলনা | বুধবার | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ১১ আশ্বিন ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

দুর্ভোগ কমলেও গ্রাহককে দিতে হবে চার্জ

খুলনায় মোবাইল ভেন্ডিংয়ে প্রি-পেইড মিটারের রিচার্জ

মোহাম্মদ মিলন | প্রকাশিত ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০:০০

খুলনার বিদ্যুতের গ্রাহকদের জন্য মোবাইল ভেন্ডিংয়ের মাধ্যমে শুরু হয়েছে প্রি-পেইড মিটারের রিচার্জ। গ্রামীণফোন অপারেটরের মাধ্যমে নগরীর বিভিন্ন মোবাইলের দোকান থেকে রিচার্জ করা যাচ্ছে প্রি-পেইড মিটারে। এতে ভেন্ডিং স্টেশনে বা ব্যাংকে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আর প্রিপেইড কার্ড কিনতে হবে না বলে জানিয়েছেন ওজোপাডিকোর কর্মকর্তারা। মোবাইলের মাধ্যমে রিচার্জের এই সুবিধাকে ইতিবাচক দেখলেও ফ্রিতে দেওয়া প্রি-পেইড মিটারের মাসে মাসে ভাড়া কেটে নেওয়াকে নেতিবাচক দেখছেন গ্রাহকরা। তাছাড়া মোবাইলে রিচার্জে টাকার অংক ভেদে বাড়তি দিতে হবে চার্জ।  
ওজোপাডিকোর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, খুলনায় বিদ্যুতের চারটি বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের আওতায় ফিডার রয়েছে ৭১টি। এর মধ্যে গ্রাহক ফিডার রয়েছে ৪৮টি এবং এক্সপ্রেস (সিঙ্গেল) ফিডার রয়েছে ২৩টি। এসব ফিডারের আওতায় গ্রাহক রয়েছে ২ লাখ ৬ হাজার ৬৭৫ জন। 
ওজোপাডিকোর সাব ডিভিশনাল ইঞ্জিনিয়ার রকিবুল ইসলাম জানান, খুলনায় প্রি-পেইড মিটারের গ্রাহক ৭৩ হাজার। এসব গ্রাহকের দুর্ভোগ লাঘবে প্রি-পেইড মিটারে রিচার্জের জন্য মোবাইল ভেন্ডিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মোবাইলের দোকানে যেয়ে রিচার্জ করতে পারবে গ্রাহকরা। এখন আর ভেন্ডিং স্টেশন বা ব্যাংকে যেয়ে লম্বা লাইনে দাঁড়াতে হবে না। 
নগরীর মডার্ণ ফার্ণিচার মোড়ে অবস্থিত মোল্লা ট্রাফেলস্রে মালিক মোল্লা সিরাজুল ইসলাম নয়ন বলেন, ঈদ উল আযহার পরদিন থেকে মোবাইলের মাধ্যমে প্রি- পেইড মিটারের গ্রাহকদের রিচার্জ করা হচ্ছে। এতে গ্রাহকদের দুর্ভোগ কমেছে। তিনি জানান, প্রি-পেইড মিটারের গ্রাহকরা এখানে এসে তাদের টোকেন দিলে মিটার নম্বর দিয়ে রিচার্জ করে একটি এসএমএস গ্রাহকের মোবাইলে যাবে। সেই এসএমএসের ২০ ডিজিট পূর্বের মতোই মিটারের প্রবেশ করাতে হবে। এক্ষেত্রে গ্রাহককে চার্জ দিতে হবে। যেহেতু গ্রামীণ ফোন কোম্পানি কোন কমিশন দিচ্ছে না। সে কারণে ৪০০ টাকা পর্যন্ত ৫ টাকা, ৪০১ থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত ১০ টাকা, ১৫০১ টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ২০ টাকা এবং তার উর্ধ্বে ২৫ টাকা চার্জ ধার্য করা হয়েছে। 
বিদ্যুৎ গ্রাহক সমিতির নেতা শাহ জিয়াউর রহমান স্বাধীন বলেন, প্রি-পেইড মিটারের মোবাইলে রিচার্জ সুবিধা গ্রাহকদের জন্য ইতিবাচক বিষয়। এতে দুর্ভোগ কমবে বলে আমি আশাবাদী। তবে গ্রাহকদের ক্রয় করা ডিজিটাল মিটার পরিবর্তন করে প্রি-পেইড মিটার স্থাপনের সময়ে ফ্রিতে মিটার দেয়া হচ্ছে জানানো হয়। কিন্তু মিটার স্থাপনের পর মিটারের মাসিক ভাড়া কেটে নেয়া হচ্ছে। যা গ্রাহকদের জন্য কষ্টসাধ্য বিষয়। আর কতদিন এই ভাড়া প্রদান করতে হবে তার বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি। তিনি মিটারের ভাড়া না কাটার আহ্বান জানিয়েছেন।     
ওজোপাডিকোর জেনারেল ম্যানেজার রবীন্দ্র নাথ দত্ত জানান, প্রি-পেইড মিটারের গ্রাহকদের ভোগান্তি লাঘবে সম্প্রতি গ্রামীণ ফোন মোবাইল অপারেটরের সাথে ওজোপাডিকোর চুক্তি হয়েছে। সেই অনুযায়ী এখন মোবাইলের দোকানে যেয়ে প্রি-পেইড মিটারের রিটার্জ করা যাবে। দোকানে মিটারের টোকেন নিয়ে গেলে তারা ২০ ডিজিট সম্বলিত একটি এসএমএস গ্রাহকের মোবাইলে দিবে। ডিজিটগুলো পূর্বের মতোই প্রি-পেইড মিটারে প্রবেশ করাতে হবে। গ্রাহকদের আর ভেন্ডিং স্টেশন বা ব্যাংকে যেয়ে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে ভোগান্তিতে পড়তে হবে না। মোবাইলে ভেন্ডিং চালু হওয়ার পর এখন আর ভেন্ডিং স্টেশনে ভীড় হচ্ছে না। গ্রাহকরা চাইলে ব্যাংকে বা ভেন্ডিং স্টেশনে যেয়েও রিচার্জ কার্ড নিতে পারবে। 
ওজোপাডিকোর সচিব আব্দুল মোতালেব জানান, স্থাপন করা প্রি-পেইড মিটারে গ্রাহকদের জন্য মোবাইলের মাধ্যমে বিল পরিশোধ করতে পারবে। এছাড়া দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলায় আরো ৫ লাখ গ্রাহককে স্মার্ট প্রি-পেইড মিটার প্রদান করা হবে। দ্রুত এই প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। 
 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ












তৃতীয় ফাইনাল নাকি স্বপ্ন ভঙ্গ

তৃতীয় ফাইনাল নাকি স্বপ্ন ভঙ্গ

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:৫৫