খুলনা | শুক্রবার | ১৭ অগাস্ট ২০১৮ | ২ ভাদ্র ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

খুলনা-৪ আসন উপ-নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি

সালাম মুর্শেদী সবুজ সংকেতের দাবি করলেও আ’লীগে মনোনয়ন প্রত্যাশী আরও ৪ নেতা

আশরাফুল ইসলাম নূর | প্রকাশিত ০৯ অগাস্ট, ২০১৮ ০২:৩০:০০

সালাম মুর্শেদী সবুজ সংকেতের দাবি করলেও আ’লীগে মনোনয়ন প্রত্যাশী আরও ৪ নেতা

খুলনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে শিল্পপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী দলীয় টিকিট পাওয়ার সবুজ সংকেতের দাবি করলেও মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছেন আওয়ামী লীগের আরও অন্তত চার নেতা। আসনটিতে উপ-নির্বাচন হতে পারে স্বল্প সময়ের মধ্যেই। আবার চলতি বছরের শেষ দিকে অনুষ্ঠিত হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।
দলীয় সূত্রমতে, সভানেত্রী শেখ হাসিনা খুলনা-৪ আসনে নির্বাচন করতে প্রস্তুতি গ্রহণে সাবেক ফুটবলার শিল্পপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে দাবি তার। তবে মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামরুজ্জামান জামাল, সহ-সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য মোল্লা জালাল উদ্দিন, যুগ্ম-সম্পাদক তেরখাদা উপজেলা চেয়ারম্যান শরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু।
মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান বলেন, “খুলনা-৪ আসনে সালাম মুর্শেদীকে মনোনয়ন দেয়া হচ্ছে এমন খবর আমার জানা নেই। তবে অসম্ভব নয়, ওই আসনে নির্বাচন করতে হলে জনশক্তি ও আর্থিক সামর্থ্যবান হতে হবে। বিএনপি’র প্রভাবশালী প্রার্থী শরীফ শাহ কামাল তাজ ও আজিজুল বারী হেলাল যেই প্রার্থী হোক তাদের মোকাবেলার যোগ্য হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে খুলনা-৪ বা খুলনা-৬ যেখানেই দায়িত্ব দিবেন; আমি সেখানেই কাজ করবো। তবে আমার বাড়ি যেহেতু খুলনা-৪ আসনের মধ্যে; সে জন্য এখানে দিলে কাজ করতে সুবিধা হতো। সমস্যা নাই; নেত্রীর কাছে মনোনয়ন চাইবো।”
জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামরুজ্জামান জামাল বললেন, “আমি দীর্ঘদিন রূপসা-তেরখাদা-দিঘলিয়াবাসীর সুখে-দুঃখে সাথে আছি। সর্বশেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নেত্রীর কাছে মনোনয়ন চাইবো।” তবে তিনি বলেন, “প্রশ্নই উঠে না নৌকার বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়ার।” জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য মোল্লা জালাল উদ্দিন ও যুগ্ম-সম্পাদক তেরখাদা উপজেলা চেয়ারম্যান শরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু’র নিকটজনরা বলছেন সর্বশেষ মুহূর্ত পর্যন্ত দলের মনোনয়ন চাইবেন তারাও।
তবে এ নির্বাচনে অংশ নেবে না রাজপথের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। খুলনা জেলা বিএনপি’র সভাপতি এড. শফিকুল আলম মনা বলেন, “অনির্বাচিত ফ্যাসিস্ট সরকারের অধীনে কিসের নির্বাচন? চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দী রেখে কোন নির্বাচনে যাবে না বিএনপি।”
প্রসঙ্গত, সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সংসদ সদস্য এস এম মোস্তফা রশিদী সুজা গত ২৬ জুলাই রাতে ইন্তেকাল করলে আসনটি শূন্য হয়। তবে এখনো পর্যন্ত খুলনা-৪ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করেনি সংশ্লিষ্ট সচিবালয়। যদিও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বেই অল্প সময়ের মধ্যে তফসিল ঘোষণা করে এ আসনটিতে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন ইসি’র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা।
খুলনা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ ইউনুচ আলী বলেন, “অল্প সময়ের মধ্যেই নির্বাচন কমিশন থেকে খুলনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচন সম্পর্কিত পত্র আসতে পারে। এ বিষয়ে ইসিতে কথাও হয়েছে। বৃহস্পতিবার (আজ) ইসি’র সভায় উপস্থিত থাকবো,  সেখানেও এ বিষয়ে কথা হতে পারে।”
এদিকে, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সাবেক স্ট্রাইকার আব্দুস সালাম মুর্শেদীই কি তাহলে খুলনা-৪ আসনে নৌকার মাঝি হচ্ছেন? এমন আলোচনাই খুলনার সর্বত্র। ফুটবল মাঠে গোল করে ক্রীড়ামোদীদের হৃদয়ে স্থান করে নেয়া খ্যাতনামা স্ট্রাইকার সালাম মুর্শেদী নতুন করে আলোচনায় এখন রাজনীতির ময়দানে। গেল ৩ মার্চ খুলনা সার্কিট হাউজ ময়দানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি’র পর বক্তৃতা দেয়াটাই প্রথম চমক ছিল খুলনাবাসীর সামনে। সে বক্তৃতায় খুলনার ছয়টি সংসদীয় আসনের দায়িত্বও নেবার ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি।
শিল্পপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বললেন, “আমি নতুন সদস্য বা কর্মী মাত্র, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নীতি-নির্ধারক ও খুলনার শীর্ষ নেতারা ঐক্যবদ্ধ থাকলে যেকোন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়লাভ করবে। নেত্রী যেখানে ভালো মনে করবেন, সেখানেই দলের জন্য, দেশের জন্য কাজ করবো।”
 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ











ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা

ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা

১৭ অগাস্ট, ২০১৮ ০১:০২