খুলনা | সোমবার | ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

কাস্টমস ওয়েব্রীজে বিজিবি স্থায়ী অবস্থান নেয়ার প্রতিবাদে

বেনাপোল বন্দর দিয়ে দু’দেশের মধ্যে  অনির্দিষ্টকালের আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

বেনাপোল প্রতিনিধি  | প্রকাশিত ১৬ জুলাই, ২০১৮ ০১:২৭:০০

বেনাপোল বন্দর দিয়ে দু’দেশের মধ্যে  অনির্দিষ্টকালের আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

বেনাপোল বন্দর অভ্যন্তরে কাস্টমস ওয়েব্রীজে বিজিবি স্থায়ী অবস্থান নেয়ার প্রতিবাদে গতকাল রবিবার সকাল থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে দু’দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যসহ বন্দর থেকে সব ধরনের মালামাল খালাস অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো। ফলে পচনশীল পণ্যসহ কোটি কোটি টাকার মালামাল বন্দরে আটকা পড়েছে। বিশেষ করে বিভিন্ন শিল্প কলকারখানা ও গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রিজের কাঁচামাল খালাস প্রক্রিয়া বন্ধ থাকায় উৎকন্ঠায় রয়েছে উৎপাদনকারী শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো। বেনাপোল বন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় শত শত পণ্য বোঝাই ট্রাক ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে আটকা আছে। মাছ,পান ও পেঁয়াজ জাতীয় পচনশীল পণ্য ইতিমধ্যে নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছে ব্যবসায়ীরা।
কাস্টমস সূত্র জানায়, ১৯৬৯ এর  কাস্টমস এ্যাক্ট ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আদেশ বলে কাস্টমস হাউসের আওতায় কাস্টমস ও বন্দর ব্যতীত অন্য কোন সংস্থা হস্তক্ষেপ করতে পারবে না। বিশেষ করে সেকশন ১৯৮ অনুযায়ী উপযুক্ত অফিসার বলতে কাস্টমস এর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দক্ষ অফিসার দ্বারা পণ্যের ঘোষণা অনুযায়ী মালামাল পরীক্ষা ও শুল্কায়ন কার্যক্রম সম্পন্ন করবে। বাইরের অন্য কোন সংস্থা হস্তক্ষেপ করলে রাজস্ব আদায় প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে বলে ব্যবসায়ীরা অভিমত দিয়েছেন। কাস্টমস আইন ২৩৪ এর সেকশন ১৫৮-১৭১ এ বলা হয়েছে ঘোষিত কাস্টমস বন্দর স্টেশন ও কাস্টমস হাউস এর অভ্যন্তরে বিজিবি চোরাচালান বিরোধী কোন কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না।
গতকাল রবিবার বিকেলে বেনাপোল কাস্টমস হাউসে বন্দর ব্যবহারকারী ৭টি সংগঠন কাস্টমস কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করে বন্দর থেকে জরুরী ভিত্তিতে বিজিবি প্রত্যাহারের জন্য কাস্টমস কমিশনারকে আল্টিমেটাম দিয়েছেন। 
বেনাপোল সিএন্ড এফ  এজেন্টস  এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক লতা জানান, আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য কাস্টমস আইন দ্বারা পরিচালিত হয়ে থাকে। অন্য কোন সংস্থা কাস্টমস ও বন্দরের অভ্যন্তরে হস্তক্ষেপ ব্যবসায়ীরা মেনে নেবে না। বন্দর অভ্যন্তর থেকে বিজিবি প্রত্যাহার করা না হলে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।
৪৯ বিজিবি’র কমান্ডিং অফিসার লেঃ কর্ণেল আরিফুল হক জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বিজিবিকে কাস্টমস ওয়েইং স্কেলে তদারকি করার জন্য বসানো হয়েছে। যারা আমদানি-রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে তার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। বিষয়টি রাষ্ট্রদ্রোহীতার শামিল।
বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী জানান, বন্দরের অভ্যন্তরে কাস্টমস ওয়ে ব্রীজে বিজিবি অবস্থান নেয়ায় বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। বেআইনীভাবে অন্য একটি সংস্থা কাস্টমস এর কর্মকান্ডে হস্তক্ষেপ করতে পারবে না বলে আইনে বলা আছে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ







খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩৪




বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০



ব্রেকিং নিউজ







খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩৪




বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০