খুলনা | সোমবার | ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

স্রোতে পড়ে স্কুল ছাত্রী গুরুতর আহত

বাগেরহাটের যাত্রাপুরে ভৈরব নদীতে ভাঙন জোয়ারের পানিতে ৪টি গ্রাম প্লাবিত 

মামুন আহম্মেদ, বাগেরহাট  | প্রকাশিত ১৬ জুলাই, ২০১৮ ০১:১০:০০

বাগেরহাট সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নে ভৈরব নদীর ভাঙন আর জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে ইউনিয়নের রহিমাবাদ, মগরা, জোয়ারেরকুল ও বাগমারা গ্রাম। গতকাল রবিবার দুপুরে জোয়ারের উপচে পড়া পানির কারণে রূপসা-বাগেরহাট পুরাতন সড়কে যাতায়াতকারীদের পড়তে হয়েছে চরম বিড়ম্বনায়।
এদিকে, গতকাল দুপুরে ইউনিয়নের রহিমাবাদ এলাকায় ভাঙনের কবলে পড়ে জোয়ারের পানিতে ভেসে উম্মে হাবিবা (১১) নামে ৪র্থ শ্রেণীর এক ছাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তির পর উন্নত চিৎকিসার জন্য তাৎক্ষণিক খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তার মা লাকি বেগম জানান, জোয়ারের উপচে পড়া পানির তীব্র স্রোতে পা পিছড়ে পড়ে গিয়ে তার একমাত্র সন্তান (মেয়ে) মারাত্মক আহত হয়। বহু কষ্টে খোঁজাখুঁজির পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে আনেন। জরুরী বিভাগের চিকিৎসক মশিউর রহমান জানান, আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে খুলনা রেফার করা হয়েছে।
সরেজমিন দেখা গেছে, ভাঙনে কবলে পড়ে বাগেরহাট-রূপসা পুরাতন সড়কের মুচিঘাট ও ভাঙনের পাড় এলাকায় সড়কটির অর্ধেকেও বেশি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বাকি অংশে মারাত্মক ফাটল দেখা দিয়েছে। আর এ কারনেই জোয়ারের সময় সড়ক উপচে হু-হু করে পানি ঢুকছে লোকালয়ে। এতে স্বাভাবিকভাবে যানবাহন চলাচল তো দূরে থাক, মানুষজন হাঁটতেও পারছে না। জোয়ারের উপচে পড়া পানিতে যাত্রাপুর ইউনিয়নের ৪টি গ্রামের ফসলের ক্ষেত, ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট প্লাবিত হচ্ছে। একদিকে ভাঙন অপরদিকে অস্বাভাবিক জোয়ারের উপচে পড়া পানিতে দুর্বিপাকের সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামবাসী ও পথচারীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। 
যাত্রাপুর ইউপি চেয়ারম্যান এমএ মতিন বলেন, ভাঙনের ভয়াবহতা চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন। গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির অর্ধেকেও বেশী নদীতে চলে গেছে। আবার জোয়ারের সময় উপচে পড়া পানিয়ে অন্তত ১০ গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের বারবার দায়সারা কাজের কারনে ভাঙন আরও বাড়ছে। দ্রুত টেকসই বাঁধ নির্মাণের দাবি জানান তিনি। 
বাগেরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম বলেন, ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। দ্রুত নদী পাইলিং এর কাজ করা হবে। যেহেতু সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের তাই সড়ক সংস্কারের কাজ তারাই করবে।   
বাগেরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আনিসুজ্জামান মাসুদ বলেন, নদী ভাঙনে সড়কটি ধসে নদীতে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। জোয়ারের পানি উপচে নানা ক্ষতি হচ্ছে। তবে নদী শাসনের কাজ করবে পাউবো। সওজ-এর পক্ষ থেকে সড়কটি সচল রাখতে ও ঝুঁকি এড়াতে সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ







খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩৪




বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০



ব্রেকিং নিউজ







খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

খুবি’র শিক্ষক সমিতির  নির্বাচন আজ 

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩৪




বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০