খুলনা | শুক্রবার | ২২ জুন ২০১৮ | ৮ আষাঢ় ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

উচ্চ আদালতে রীট পিটিশন মামলা

শ্যামনগরে ১১ শিক্ষক অধিকার ফিরে পেলেও ৯ জন হলেন বঞ্চিত

শ্যামনগর প্রতিনিধি | প্রকাশিত ১৪ জুন, ২০১৮ ০০:১০:০০

শ্যামনগরে ১১ শিক্ষক অধিকার ফিরে পেলেও ৯ জন হলেন বঞ্চিত

শ্যামনগরে উচ্চ আদালতে মামলা চলমান প্রেক্ষিতে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত রীটের আওতাধীন বিদ্যালয় সমূহে চলতি দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকগণ যোগদান থেকে বিরত থেকে পূর্ববর্তী বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিজ্ঞ আদালতে রীট পিটিশিন মামলায় ১১ জন শিক্ষক তাদের অধিকার ফিরে পেলেও ৯ জন শিক্ষক তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত। শ্যামনগরে বিভিন্ন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দায়িত্ব পালনকৃত প্রধান শিক্ষকদের পক্ষ থেকে মহামান্য হাইকোর্টে রীট পিটিশন দাখিল করা হয়েছে। অধিকার বঞ্চিত শিক্ষকরা হলেন রীট পিটিশিন নং ৭৬২২/১৭ আওতায় প্রধান শিক্ষক ১৮৫নং সোয়ালিয়া সাপেরদুনে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ইসমাইল হোসেন সিরাজী, ১৮৪নং বাদুড়িয়া মোল্যাপাড়া সপ্রাবিঃ রবিউল ইসলাম, ১৮৭নং আস্তাখালী সপ্রাবিঃ আব্দুল কাদের, রীট পিটিশন নং ১৬৬৭১/১৭ আওতায় ১৮৬নং দক্ষিণ কুলতলী সপ্রাবিঃ আব্দুর রাজ্জাক, ১৮৩নং সিংহড়তলী সপ্রাবিঃ নেছার আলী, রীট পিটিশন নং ৬৫৬১/১৭ আওতায় ১৮১নং চন্ডিপুর এমএন সপ্রাবিঃ ইয়াছিনুর ইসলাম, ১৮৯নং গুচ্ছগ্রাম কেদারবাজার সপ্রাবিঃ সিরাজুল ইসলাম, ১০০নং নাপিতখালী কমিউনিটি সপ্রাবিঃ নুরুন্নাহার, ১৮২নং চাঁদনীমুখা পূর্বপাড়া সপ্রাবিঃ গোলাম বারী। রীট পিটিশন নং ১৪৩৪৪/১৭ এর আওতায় ১১ জন শিক্ষক। এ সকল শিক্ষকগণ প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ লাভ করে অদ্যাবধি দায়িত্ব পালন করে আসছেন। প্রতিষ্ঠানগুলো জাতীয়করণ হওয়ায় উক্ত প্রধান শিক্ষকগণ স্ব-পদে দায়িত্ব পালন করা সত্বেও তারা সহকারী শিক্ষক হিসেবে বেতন ভাতাদী পেয়ে আসছেন। প্রধান শিক্ষক পদমর্যাদায় বেতন ভাতাদি স্কেলে প্রাপ্তির দাবিতে বিজ্ঞ আদালতে রীট পিটিশন দায়ের করা হয়। বিজ্ঞ আদালতে আদেশ উপেক্ষা করে সাতক্ষীরা জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ রুহুল আমীন ও শ্যামনগর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আবুল বাশার উক্ত রীট পিটিশন জ্ঞাত হওয়া সত্বেও শ্যামনগরের ৪৯ জন সহকারী শিক্ষককে প্রধান শিক্ষক পদে চলতি দায়িত্ব নিয়োগ করেন। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ হস্তক্ষেপ কামনা করা হলে জরুরী ভিত্তিতে সাতক্ষীরা জেলা শিক্ষা অফিসার ও শ্যামনগর উপজেলা শিক্ষা অফিসার স্বাক্ষরিত রীট পিটিশন নং-১৪৩৪৪/২০১৭ এর প্রেক্ষিতে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উক্ত রীটের আওতাধীন বিদ্যালয়ের চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকগণ যোগদান করা থেকে বিরত থেকে পূর্ববর্তী বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর ফলে ১১ জন শিক্ষক তাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পেল। পিটিশিন নং ৭৬২২/১৭, ১৬৬৭১/১৭, ৬৫৬১/১৭ রীট ধারী ৯ জন তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হওয়ায় জেলা ও শ্যামনগর উপজেলা শিক্ষা অফিসার বিজ্ঞ আদালতের আদেশ উপেক্ষা করেছেন। এ ব্যাপারে জেলা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার জানান, তারা দ্রুত তাদের চলতি দায়িত্ব প্রধান শিক্ষকদের নিয়োগ আদেশ প্রত্যাহার করে রীট পিটিশনের আদেশ বহাল করতে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ












বিশ্বকাপে আজকের খেলা

বিশ্বকাপে আজকের খেলা

২২ জুন, ২০১৮ ০০:৪৫