খুলনা | রবিবার | ২১ অক্টোবর ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক 

মংলায় আ’লীগ সমর্থিত দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে নারীসহ ৩০ জন আহত

মংলা প্রতিনিধি  | প্রকাশিত ২২ মে, ২০১৮ ০০:৪৭:০০

মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় মংলায় আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক ও বর্তমান মেম্বর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে নারী, পুরুষসহ উভয়পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের কানাইনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৫ জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এদিকে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনলেও গ্রামবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কানাইনগর আবাসন প্রকল্পের একটি বাড়িতে অনুপ্রবেশ ও সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে মাদক (গাঁজা) সেবনে মগ্ন হয় একদল যুবক। এছাড়া মংলা বন্দরের বাণিজ্যিক জাহাজের মালামাল ক্রয়ের ব্যাপার নিয়ে সাগর নামের এক যুবককে মারধর করে আলমগীর ও তার দলবল। এতে বাধা দিলে ইউপি মেম্বর মোঃ সেলিম ও আওয়ামী নেতা হাসেমের গ্র“পের উপর সাবেক মেম্বার সুলতান-জাকির গ্র“পের লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে কানইনগর আবাসনের বাড়ির মালিক আলমগীর ও তার লোকজনের উপর হামলা চালায়। গত রবিবার বিকেলে এ হামলার ঘটনায় আহতদের হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে ৫ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 
এদিকে গতকাল সোমবার সকাল ৭টার দিকে বর্তমান মেম্বর সেলিম-হাসেম গ্র“পের লোকজন সুলতান ও জাকিরের লোকজনকে দেখতে পেয়ে তাদের দ্বিতীয় দফায় আবারও মারপিট করে। আর এ নিয়ে স্থানীয় সাবেক মেম্বর সুলতান-জাকির গ্র“প এবং বর্তমান মেম্বর সেলিম-হাসেম গ্রুপের লোকজন ব্যাপক সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। উত্তেজিত দু’গ্র“পের সমর্থকরা লাঠি-সোটা ও দেশীয় অস্ত্র-সশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী এ সংঘর্ষে নারী-পুরুষ ও শিশুসহ অন্তত ৩০ জনকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আহতরা হচ্ছে মেম্বর সেলিম গ্র“পের আলমগীর (৩৫), বিলকিস (২৫), পারুল (৩৬), কমলা বেগম (৩৪), আনোয়ার (৩৮), অহিদুল (৩৮), মুনসুর (৫০), খোকন (৪০), মিনু বেগম (৩০), আখি বেগম (২৬)। এছাড়া সুলতান ও জাকির গ্র“পের সুমন (১৫), নয়ন (২৭), নজরুল (৩৫), নোনা (২৬), বেল্লাল খাঁন (৩৬), রাজু (২৬), মোঃ জাকির (২৮), সুলতান হাওলাদার (৬০), রিনা বেগম (২৮), ইয়াছমিন (২৬), ছাহেরা বেগম (৬৭), বেবি বেগম (৪০), রওশনারা (৬৬), নয়ন মুন্সি (৩৫), বাবলু হাওলাদার (৩৮), আফজাল (৩৬), নয়ন (২২), মোঃ নাজিম (৩মাস), তাজমিন (৩) ও সাগর (১৫)। এদের মধ্যে আলমগীর, বিলকিস, বাবলু, রিনা ও নয়নের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ নিয়ে ওই গ্রামটিতে দু’গ্র“পের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। 
এ প্রসঙ্গে বর্তমান মেম্বর সেলিম ও সুলতান-জাকির মেম্বর গ্র“প একে অপরকে দোষারোপ করেছেন। বিকেলে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মংলা থানায় উভয় গ্র“পের অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। মংলা থানার অফিসাস ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, কানাইনগর এলাকায় দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা পুলিশ গিয়ে নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০








ব্রেকিং নিউজ




দশম সংসদের শেষ  অধিবেশন শুরু আজ

দশম সংসদের শেষ  অধিবেশন শুরু আজ

২১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০১



ঝিনাইদহে মদপান  করে নিহত ৪

ঝিনাইদহে মদপান  করে নিহত ৪

২১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০


আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৪১