খুলনা | শনিবার | ২০ অক্টোবর ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

কেএমপি’র অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যরা বহাল তবিয়তে

নগরীতে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযানের ছোঁয়া লাগেনি!

সোহাগ দেওয়ান | প্রকাশিত ২২ মে, ২০১৮ ০১:১০:০০

মহানগর এলাকায় মাদকের ভয়াবহতা থাকলেও সম্প্রতি সময়ে চলমান সাঁড়াশি অভিযানের কোন ছোঁয়া লাগেনি। তাছাড়া খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)-এর অভিযুক্ত সদস্যদের বিরুদ্ধে নেয়া হয়নি কোন ব্যবস্থা। রয়েছে বহাল তবিয়তে। তবে সারাদেশে র‌্যাব-পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে বন্দুকযুদ্ধে নিহতের খবরে অনেকটা স্বস্তিতে সাধারণ মানুষ। নগরীতে ১৫৪ জন মাদক ব্যবসায়ী ও চোরাকারবারীর তালিকা ইতোমধ্যে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী হাতে পেয়েছে। 
তালিকাভুক্ত এ সকল মাদক ব্যবসায়ী ও চোরাকারবারীদের সাথে জড়িত কেএমপি’র বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্যর নামও রয়েছে। এসব পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে কি ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে তা জানতে সাধারণ মানুষের মধ্যে নানা কৌতূহল দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা ধরনের মতামত দিয়েছে সাধারণ মানুষ। 
কেএমপি’র যে সকল সদস্যদের নাম মাদকের ওই তালিকায় রয়েছে তারা হলেন সদর থানার এসআই মিলন কুমার ও এসআই সুব্রত কুমার বাড়ৈ, দৌলতপুর থানার এসআই মোঃ মিকাইল হোসেন ও মহেশ্বরপাশা ফাঁড়ির এএসআই মোঃ মেহেদী হাসান, খালিশপুর থানার এস আই কানাইলাল মজুমদার ও এসআই মোঃ নুরু, সদর থানার এস আই শাহআলম (বর্তমানে খালিশপুর থানায়), খানজাহান আলী থানার এস আই রাজ্জাক, এসআই ইলিয়াস, এস আই সুমঙ্গল, খানজাহান আলী থানার কনস্টেবল মোঃ শহীদুল ইসলাম ও মোঃ মিজান, সোনাডাঙ্গা থানার এএসআই নুরুজ্জামান (বর্তমানে খালিশপুর থানায়), লবণচরা থানার এস আই মোঃ বাবুল ইসলাম ও এএসআই আব্দুল্লাহ আল মামুন লবণচরা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ ওসমান গণি।
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি মিডিয়া সোনালী সেন জানান, তালিকায় যে সকল পুলিশ সদস্যর নাম পাওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। 
এছাড়া জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের টপ “টেন তালিকায় থাকা” নগরীর শীর্ষ মাদকের চোরকারবারী ও ডিলারদের কঠোর নজরদারিতে রাখা হয়েছে বলে অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছেন। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান ও মাদক বিরোধী কর্মকান্ডের সাথে টপটেন তালিকায় নাম থাকা মাদক ব্যবসায়ীদের নাম-পরিচয় ছাপা হলো না। 
এ বিষয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের খুলনা জেলার উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান জানান, আমরা সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথে এ সকল তালিকাভুক্ত মাদক বিক্রেতাদের নজরদারিতে রেখেছি। তাদের সকলের গতিবিধি আমাদের নজরে রয়েছে। তাছাড়া মাদক ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় আনতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি। 
উল্লেখ্য গত ১৭ দিনে দেশের বিভিন্ন জেলায় র‌্যাব ও পুলিশের ক্রসফায়ারে ২৭ জন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০








ব্রেকিং নিউজ


আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৪১










শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০