খুলনা | শনিবার | ২০ অক্টোবর ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

পুলিশ-র‌্যাব বলছে, ‘নিহতরা মাদক ব্যবসায়ী’

‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক রাতে ৯ লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর, ঝিনাইদহ ও চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি | প্রকাশিত ২২ মে, ২০১৮ ০০:৩৬:০০

যশোর, ঝিনাইদহ, চুয়াডাঙ্গা, টাঙ্গাইল, নরসিংদী, রাজশাহী ও গাজীপুরে গুলিবিদ্ধ হয়ে সন্দেহভাজন নয় মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। গত রবিবার দিবাগত রাত ও সোমবার ভোরে মৃতদেহগুলো পাওয়া যায়। র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধ এবং সন্দেহভাজন মাদক ব্যবসায়ীদের অভ্যন্তরীণ গোলাগুলিতে এসব ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।
মাদক দমনে অভিযান চালাতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর দেশের বিভিন্ন জেলায় গত দুই দিনে অন্তত ১৮ জন নিহত হয়েছেন। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, অভিযানের সময় মাদক চক্রের সদস্যরা গুলি চালালে পাল্টা গুলিবর্ষণ হয়, তাতেই এদের মৃত্যু ঘটে। তবে নিহতদের কয়েকজনের পরিবারের দাবি, ধরে নিয়ে হত্যা করা হয় তাদের স্বজনদের।
অপরদিকে মাদক দমন অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কথিত বন্দুকযুদ্ধের ঘটনাগুলো নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে এতে হতাহতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল। কেন এই উপায়েই মাদক সন্ত্রাস দমন করতে হচ্ছে, অন্য কোনো উপায় কি নেই? প্রশ্ন রেখেছেন তিনি।
যশোর : জেলায় পৃথক দু’টি স্থান থেকে মাথায় গুলিবিদ্ধ তিন যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এরা বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। পুলিশ বলেছে, মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে গোলাগুলিতে এই তিনজন নিহত হন। ঘটনাস্থল সদর উপজেলার খোলাডাঙ্গা ও মন্ডলগাতি গ্রামের মাঝামাঝি স্থান এবং তরফনওয়াপাড়া। এর আগে শনিবার রাতে গুলিতে নিহত হন এক যুবক। আর শুক্রবার দিবাগত রাতে অভয়নগরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছিলেন তিন মাদক ব্যবসায়ী। এ নিয়ে গত তিন দিনে সাতজন বন্দুকযুদ্ধে নিহত হলেন।
কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম আজমল হুদা, এসআই অরুণ কুমার দাস এবং উপশহর ক্যাম্পের ইনচার্জ আবদুর রহিম জানান, রবিবার গভীর রাতে সদর উপজেলার খোলাডাঙ্গা ও মন্ডলগাতি গ্রামের মাঝামাঝি ফাঁকা জায়গায় দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের খবর পায় পুলিশ। তারা ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স গেলে অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়। এ সময় সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মরদেহ আর দু’টি শার্টারগান ও দুই রাউন্ড গুলির খোসা।
এদিকে, একই ধরনের ঘটনা ঘটে সদর উপজেলার তরফনওয়াপাড়া গ্রামের জনৈক নওয়াব আলীর মেহগনি বাগানে। সেখানে হাজির হয়ে পুলিশ দু’টি মরদেহ, দু’টি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, গুলির খোসা এবং ৪শ’ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে। নিহতরা হলো শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া ইউনিয়নের ট্যাংরা জামতলা গ্রামের রহমান গাজীর ছেলে সিরাজুল ইসলাম দুখি ও একই উপজেলার মহিষকুড়া গ্রামের হারুন অর রশিদের ছেলে মুত্তাজুল মোড়ল।
মরদেহ তিনটি সোমবার ভোর চারটা থেকে সাড়ে চারটার মধ্যে জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। হাসপাতালের জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত ডাক্তার কল্লোল কুমার সাহা বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তিনজনেরই মৃত্যু হয়েছে। তাদের সবাই মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়।
নিহত সিরাজুল ইসলাম দুখির ছেলে রিপন হোসেন দাবি করেন, তার বাবা একজন কৃষক। পরশু দিবাগত ভোররাতে দু’টি সাদা মাইক্রোবাসে করে ৭-৮ ব্যক্তি পুলিশ পরিচয় দিয়ে বাড়িতে গিয়ে তার বাবাকে ধরে নিয়ে যায়। এরপর আমার বাবার আর কোনো সন্ধান পাইনি। সোমবার সকালে লোকমুখে খবর শুনে যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে এসে দেখতে পাই আমার বাবা খালি গায়ে একটি চেক লুঙি পরা মাথার পেছনে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে আছে।
নিহত মুত্তাজুল মোড়লের বড়ভাই সোহরাব হোসেন প্রায় একই ধরনের কথা বলেন। তিনি জানান, গতপরশু দিনগত ভোররাতে সেহরির সময় দু’টি সাদা মাইক্রোবাসে করে কয়েক ব্যক্তি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তার ভাইকে তুলে নিয়ে যায়। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান মেলেনি। সোমবার সকালে খবর পেয়ে হাসপাতালে মর্গে এসে দেখি, আমার ভাই মুত্তাজুল মোড়লের লাশ পড়ে আছে। তার মাথার পেছনে গুলি করা হয়েছে।
তবে এই সব তথ্যের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করছে পুলিশ। যশোর কোতোয়ালী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবুল বাশার বলেন, মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে গোলাগুলিতে তিনজনই মারা যায়। তিনি উল্লিখিত দুইজনের পরিচয় নিশ্চিত করেন। তবে এখন পর্যন্ত একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।
ঝিনাইদহ : জেলার কালীগঞ্জ নরেন্দ্রপুর এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছব্দুল মন্ডল (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। রবিবার দিবাগত রাত ১টা ৩০ মিনিটের সময় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি নাইন এমএম পিস্তল, ২ রাউন্ড গুলি, ১০০ বোতল ফেন্সিডিল, ১৫০ পিস ইয়াবা ও একটি হেলমেট উদ্ধার করেছে র‌্যাব। নিহত ছব্দুল মন্ডল কালীগঞ্জ উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।
ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক এএসপি গোলাম মোর্শেদ জানান, মোটরসাইকেলে মাদকের চালান নিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার নরেন্দ্রপুর এলাকায় চেকপোস্ট বসায় র‌্যাব। তাকে থামাতে সংকেত দিলেও সে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাব ও পাল্টা গুলি ছুড়লে ক্রস-ফায়ারে ঘটনাস্থলে সে নিহত হয়। সে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ছিল।
কালীগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান খান বলেন, ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহতের লাশ কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা হয়েছে। সোমবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।
চুয়াডাঙ্গা : জেলার জীবননগর উপজেলার উথলী গ্রামের সন্ন্যাসীতলা মাঠে গত রবিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে জোনাব আলী নামের একজন নিহত হন। তিনি মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, একটি বন্দুকের কার্তুজ ও এক বস্তা ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয় বলে জানানো হয়েছে। নিহত জোনাব আলী (৩২) উথলী গ্রামের আমতলা পাড়ার বাসিন্দা। পুলিশের দাবি, বন্দুকযুদ্ধে জীবননগর থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মিলন হোসেন, কনস্টেবল ওয়ালিদ রহমান এবং কনস্টেবল জুয়েল হোসেন আহত হয়েছেন। তাঁদের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
সহকারী পুলিশ সুপার (হেড কোয়ার্টার) আহসান হাবীব জানান, রাতে ফেন্সিডিলের একটি চালান আসার খবরে উথলী সন্ন্যাসীতলা মাঠে পুলিশের একটি বিশেষ দল অবস্থান করে। রাত ১টার দিকে মাদক ব্যবসায়ীদের একটি দলকে আসতে দেখে পুলিশ তাদের চ্যালেঞ্জ করে। এ সময় তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এ সময় বন্দুকযুদ্ধে জোনাব আলী ও পুলিশের তিন সদস্য আহত হন। আহতদের তাৎক্ষণিক চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক জোনাব আলীকে মৃত ঘোষণা করেন।
জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুর রহমান জানান, নিহত জোনাব আলীর বিরুদ্ধে জীবননগর, দামুড়হুদা ও চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অন্তত ১১টি মাদকের মামলা রয়েছে।
টাঙ্গাইল : জেলার ঘাটাইলে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আবুল কালাম আজাদ (৪২) নামের এক মাদক বিক্রেতা নিহত হন। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাব-১২-এর অভিযানের সময় দুইপক্ষের গোলাগুলির মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।
নরসিংদী : জেলার ঘোড়াশালে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ঈমান আলী নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি ‘মাদক সম্রাট’ হিসেবে পরিচিত বলে জানা গেছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দু’টি গুলি ও এক হাজার ইয়াবা উদ্ধারের কথা জানায় র‌্যাব। সোমবার সকাল সাড়ে ৭টায় দিকে ঘোড়াশাল টোল প¬াজার কাছে এ ঘটনা ঘটে।
রাজশাহী : জেলার পুঠিয়া উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে লিয়াকত শিকদার নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। গত রবিবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে পুঠিয়ার বেলপুকুরের ক্ষুদ্র জামিরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। র‌্যাবের দাবি, নিহত লিয়াকত এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী।
গাজীপুর : জেলার  টঙ্গীতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সন্দেহভাজন এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০








ব্রেকিং নিউজ


আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৪১










শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০