খুলনা | শনিবার | ২০ অক্টোবর ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

খুলনায় উপজেলা পর্যায়ে মাদকের পৃষ্ঠপোষকতায় জনপ্রতিনিধি রাজনীতিক ও পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২৪ জন

সোহাগ দেওয়ান | প্রকাশিত ২০ মে, ২০১৮ ০০:৫৪:০০

খুলনায় উপজেলা পর্যায়ে মাদকের পৃষ্ঠপোষকতায় জনপ্রতিনিধি রাজনীতিক ও পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২৪ জন

খুলনা জেলায় তালিকাভুক্ত মাদকের ব্যবসায়ী, ডিলার, চোরাকারবারী, পৃষ্ঠপোষক ও আশ্রয়-প্রশ্রয়দাতাদের মধ্যে জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২৪ জনের নাম উঠে এসছে। এরা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে মাদক বিক্রয়ে সহযোগিতা করেন বলে গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্টে বলা হয়েছে। তবে তালিকাভুক্তদের কঠোর নজরদারিতে রেখেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। মাদক নিয়ন্ত্রনে পুলিশের এলিটফোর্সেস র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) হার্ড লাইনে রয়েছে। যে কোন ভাবেই এবার সারা দেশে মাদক বিক্রয় সংকুচিত করতে র‌্যাবের কঠোর পদক্ষেপ শুরু হয়েছে বলে র‌্যাব সূত্র জানিয়েছে। 
এদিকে র‌্যাব-৬’র পরিচালকের বক্তব্যের একদিনের মাথায় যশোরের নওয়াপাড়ায় অভিযানে ক্রসফায়ারে তিনজন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এ নিয়ে গত তিন দিনে খুলনা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিভাগে র‌্যাবের ক্রসফায়ারে ৮ জন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হলো। 
গোয়েন্দা সংস্থার ওই তালিকায় রয়েছেন, তেরখাদা উপজেলার ইউপি চেয়ারম্যান এফএম মহিদুজ্জামান, দিঘলিয়ার বারাকপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গাজী জাকির হোসেন, রূপসার ঘাটভোগ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাধন অধিকারী, রূপসার আইচগাতী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিটন ঢালী, জেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আজিজুল হক কাজল, দাকোপ উপজেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক রতন মন্ডল, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এম এ রিয়াজ কচির বড় ভাই এম এ রেজা বাচা, সেনহাটি দিঘলিয়ার মঈনুল ইসলাম জুয়েল (ছাত্রলীগ কর্মী), দাকোপের বানিয়াশান্তা বাজারের আজিজ হাওলাদার, চালনা বাজার দাকোপের আয়নাল হাওলাদার, তেরখাদার কাটেঙ্গা এলাকার মৃত মোকাদ্দেস মোল্লার ছেলে মাসুম মোল্লা, ভাষা ফকিরের ছেলে ওয়াহিদুল ইসলাম ফকির। 
এছাড়া একই তালিকায় ১২ জন পুলিশ কর্মকর্তার নাম রয়েছে। এরা হলেন, দিঘলিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমান, ফুলতলা থানার ওসি আসাদুজ্জামান, রূপসার আইচগাতি ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জাহিদ হাসান, রূপসা থানার এএসআই রবিউল ইসলাম, দাকোপের এএসআই সবুর হোসেন, পাইকগাছা থানার এসআই মমিন, কয়রা থানার এসআই ইকবাল, এসআই আজম, ডুমুরিয়ার মাগুরঘোনা ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই নাহিদ হাসান, এএসআই রবিউল, বটিয়াঘাটা থানার এসআই শফিকুল ইসলাম (শফিক), দিঘলিয়া থানার এসআই মধূসুদন। 
গত ৩ মে র‌্যাব’র  প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ঢাকাস্থ র‌্যাবের সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ তাদের বক্তব্যে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন।  
এদিকে র‌্যাব-৬’র পরিচালক খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, খুলনা বিভাগসহ খুলনা মহানগর ও জেলার তালিকাভুক্ত মাদকের পাচারকারী, পাইকারী (ডিলার) ও খুচরা বিক্রেতাদের গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখা হয়েছে। খুলনায় মাদকের সাথে জড়িত পাচারকারী, ডিলার, খুচরা বিক্রেতাদের একাধিক তালিকা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে রয়েছে। মাদকের সাথে জড়িতদের কোন ছাড় দেয়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে অভিযান আরও  জোরালো করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে ১৯মে গভীর রাতে যশোরের নওয়াপাড়ায় অভিযানকালে ক্রসফায়ারে ৩ জন মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। র‌্যাবের অভিযান চলবে বলেও জানান তিনি। 
 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০








ব্রেকিং নিউজ


আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

আজ থেকে ফের সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৪১










শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

শার্শায় অস্ত্র-গুলিসহ  যুবক আটক

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:০০