খুলনা | শনিবার | ১৮ অগাস্ট ২০১৮ | ২ ভাদ্র ১৪২৫ |

বজ্রপাত ও জলবায়ু পরিবর্তনের  প্রভাব মোকাবেলায় সচেতন হোন

১৬ মে, ২০১৮ ০০:১০:০০

বজ্রপাত ও জলবায়ু পরিবর্তনের  প্রভাব মোকাবেলায় সচেতন হোন


বাংলাদেশে তাপমাত্রা বাড়ার সাথে জলবায়ুরও পরিবর্তন হয়েছে। দেশে দশমিক ৭৪ শতাংশ তাপমাত্রা বেড়েছে। আর এর প্রভাবে বাড়ছে দুর্যোগের ঘটনা। যখন তখন আঘাত হানছে ঝড়, তুফান ও সমুদ্রের নিম্নচাপ। সাথে রয়েছে বজ্রপাত আর শীলাবৃষ্টি। বজ্রপাতের কারণে ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। প্রতিনিয়ত এ সংখ্যা বাড়ছে। বিষয়টি উদ্বেগজনক। 
বৈশাখের শুরু থেকে বৈরী আবহাওয়ার কারণে অনেকটাই বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। এপ্রিল মাস থেকেই হঠাৎ শুরু হওয়া দমকা হাওয়ার সাথে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হয়ে পড়ছে। বাতাসের তীব্রতা কিছুক্ষণ স্থায়ী হওয়ার পরে অঝোর ধারায় বৃষ্টি আর মুহূর্তেই বজ্রপাত শুরু হচ্ছে। আর তাতে জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। ইতোমধ্যে বজ্রপাতে এ বছর শতাধিক নিহত হয়েছে। আর গত ৮ বছরে বজ্রপাতে বাংলাদেশে মারা গেছে ১৮শ’ মানুষ। বজ্রপাত বেড়ে যাওয়ার সাথে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সম্পর্ক রয়েছে। বিজ্ঞানীরা অনেকে মনে করেন, বিশ্বব্যাপী তাপমাত্রা বৃদ্ধির জন্য এমনটি হচ্ছে। তবে এ মতের সঙ্গে অনেক বিজ্ঞানী দ্বিমত পোষণ করেন।
বজ্রপাত এড়াতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কিছু পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ঘনঘন বজ্রপাত হলে কোনো দালানের নিচে আশ্রয় নেয়া। ফাঁকা জায়গায় যাত্রী ছাউনি, উঁচু গাছপালা, বিদ্যুতের খুঁটি ইত্যাদিতে বজ্রপাতের সম্ভাবনা বেশি থাকে বিধায় এ সব জিনিস থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করা। বাসা-বাড়িতে থাকলে জানালা থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করা। বাড়ির ধাতব কল, সিঁড়ির রোলিং, পাইপ ইত্যাদি থেকে দূরে থাকা, এমনকি টেলিফোনও স্পর্শ না করা। বৈদ্যুতিক সংযুক্ত সব যন্ত্রপাতি স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকা। বজ্রপাতের আভাস দেখা দিলেই টিভি, ফ্রিজ ইত্যাদি বন্ধ রাখা ও বৈদ্যুতিক বোর্ড থেকে অব্যবহারকৃত যন্ত্রপাতি ফ্লাগ খুলে রাখতে হবে। বজ্রপাতের সময় গাড়িতে থাকলে দ্রুত গাড়ি থেকে নেমে কোনো বারান্দা বা পাকা ছাউনির নিচে অবস্থান করা দরকার। এ সময় গাড়ির কাচে হাত দেওয়া বিপজ্জনক। চামড়ার ভেজা জুতা বা খালি পায়ে থাকা খুবই বিপজ্জনক। বের হতে হলে পা ঢাকা জুতা পরিধান করে বের হওয়া উত্তম। রাস্তায় চলাচলে আশপাশ খেয়াল রাখতে হবে যাতে কেউ আহত হলে দ্রুত তাকে হাসপাতালে নেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।
আমাদের অভিমত, বজ্রপাত প্রকৃতির একটা ধারাবাহিক খেলা। প্রকৃতির বিরুদ্ধাচরণ বজ্রপাতের অন্যতম কারণ। সমাজ ও রাষ্ট্রের উচিত হবে প্রকৃতির যথাযথ সংরক্ষণ লালন ও পালনের ব্যবস্থা করা। প্রকৃতির সঙ্গে যুদ্ধ করে কখনো সমাজ ও পরিবেশ টিকে থাকতে পারে না। তাই এ সময়ে আমাদেরকে বেশি করে প্রকৃতিবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে গুরুত্ব দিতে হবে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ


দৃশ্যমান হলো রূপসা রেল সেতু 

দৃশ্যমান হলো রূপসা রেল সেতু 

১৭ অগাস্ট, ২০১৮ ০০:১০


‘রক্তে ভেজা পনেরই আগস্ট‘

‘রক্তে ভেজা পনেরই আগস্ট‘

১৫ অগাস্ট, ২০১৮ ০০:০০


নৌপথ নির্বিঘœ রাখার উদ্যোগ নিন 

নৌপথ নির্বিঘœ রাখার উদ্যোগ নিন 

১৩ অগাস্ট, ২০১৮ ০০:১০




অভিযানের মধ্যেও মিলছে মাদক

অভিযানের মধ্যেও মিলছে মাদক

০৮ অগাস্ট, ২০১৮ ২৩:২৫




ব্রেকিং নিউজ