খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২৬ এপ্রিল ২০১৮ | ১৩ বৈশাখ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশ মানা  হবে না  : ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৩ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০৫:০০


ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে কোনো অনুপ্রবেশ তাঁর সরকার মানবে না। অতীতে বহু অনুপ্রবেশ ঘটেছে। তবে সীমান্তে বেড়া দেওয়ার পর তা অনেকাংশে কমে এসেছে।
ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিপ্লব কুমার দেব এ কথা বলেছেন। সাক্ষাৎকারে ত্রিপুরায় লেনিনের মূর্তি ভাঙার ঘটনা, রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে পরিকল্পনা, নারীর নিরাপত্তা এবং রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছি এবং যেকোনো প্রকার অবৈধ কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেব। সীমান্ত দিয়ে গবাদিপশু পাচার আরেকটি সমস্যা। এটি কমিয়ে আনতেও আমরা পদক্ষেপ নিচ্ছি।’
রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ প্রসঙ্গে বিপ্লব কুমার দেব বলেন, তাদের অনুপ্রবেশ খুব বেশি নয়। কেউ কেউ অনুপ্রবেশের সময় আটকও হয়েছে। রাজ্যের সঙ্গে আন্তর্জাতিক সীমান্তের বেশির ভাগ এলাকায়ই বেড়া দেওয়ার কাজ শেষ হয়েছে। খুব অল্প জায়গায় বেড়া দেওয়া বাকি আছে। স্থানীয় গ্রামবাসী তাদের জমির ওপর বেড়া দিতে ইচ্ছুক নয়। তাই বিএসএফকে শূন্যরেখায় বেড়া নির্মাণ করতে বলা হয়েছে।
বাংলাদেশের সঙ্গে ত্রিপুরা রাজ্যের আন্তর্জাতিক সীমান্তের দৈর্ঘ্য ৮০০ কিলোমিটার। বিএসএফ বলেছে, শূন্যরেখায় বেড়া নির্মাণ করা হলেও চোরাচালান বন্ধ করা কঠিন হবে। এ ব্যাপারে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ওই অঞ্চল দিয়ে চোরাচালান বন্ধে তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের কাছে সীমান্ত এলাকায় উচ্চ ক্ষমতার ক্যামেরা এবং ফ্লাডলাইট স্থাপনের অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ত্রিপুরা থেকে স্থলপথে বাংলাদেশে বিশেষ কিছু পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে অশুল্ক বাধা একটি অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এতে করে বাংলাদেশের সঙ্গে ত্রিপুরার পুরো বাণিজ্যেই প্রভাব ফেলছে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ