খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২৬ এপ্রিল ২০১৮ | ১৩ বৈশাখ ১৪২৫ |

প্রশ্নফাঁস রোধে নেয়া পদক্ষেপ কার্যকর হোক

০১ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:২৭:০০

প্রশ্নফাঁস রোধে নেয়া পদক্ষেপ কার্যকর হোক

একের পর এক প্রশ্নœফাঁসের ঘটনা শুধু দুঃখজনকই নয় বরং তা অত্যন্ত উদ্বেগের। স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে বিভিন্ন নিয়োগ- এমন কোনো পরীক্ষা নেই সেখানে প্রশ্নœ ফাঁসের ঘটনা ঘটেনি। বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নœফাঁসের ধারাবাহিকতায় চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্নœ ফাঁসের ঘটনাদেশব্যাপী ব্যাপক সমালোচি হয়েছে। প্রায় সব বিষয়ের প্রশ্নœ পরীক্ষার আগের রাতে বা পরীক্ষার দিন সকালে ফাঁস হয়ে সামাজিকযোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। জাতিরমেধাবিধ্বংসী এ প্রবণতারোধে শুরুথেকেইসোচ্চার শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক ওদেশের সচেতনমহল। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষও প্রশ্নœফাঁসরোধে নানান উদ্যোগ গ্রহণ করে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, এরপরও প্রশ্নœফাঁস রোধ হয়নি। 
চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে ২ এপ্রিল, আর তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলবে ১৩মে পর্যন্ত। এ পরীক্ষা সামনেরেখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতিনিধি, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষাবোর্ডের প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠকে বসেন শিক্ষামন্ত্রী। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার প্রশ্নœফাঁসঠেকাতে আসন্ন এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে লটারির মাধ্যমে প্রশ্নœপত্রেরসেট নির্ধারণ করা হবে। এ ছাড়া এসএসসির মতো এইচএসসিতেও পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলকভাবে পরীক্ষার হলে বসতে হবে। আমরা মনে করি, লটারির মাধ্যমে প্রশ্নœপত্রেরসেট নির্ধারণ করারযে বিষয়টি সামনে আসছেসেটি কতটা কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবে তা আমলেনেয়াসহ প্রশ্নœফাঁসরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ অব্যাহত রাখতে হবে। 
আসন্ন এইচএসসি পরীক্ষায় যখন প্রত্যেক সেটের জন্য আলাদা প্যাকেট থাকবে এবং সিলগালা না করে সিকিউরিটি টেপ ব্যবহার করা হবে বলেও জানাগেল, তখন এই বিষয়টিসহ কার্যকর পদক্ষেপ নিশ্চিত করার মধ্য দিয়ে প্রশ্নœপত্র ফাঁস রোধ হবে এমনটি প্রত্যাশিত। আমরা মনে করি, সংশ্লিষ্টদের যেমন কঠোর তদারকি ও পদক্ষেপ নিশ্চিত করতে হবে, তেমনি ভাবে যখন প্রশ্নœফাঁসের সঙ্গে নিজেরা যাতে না জড়ান সে বিষয়ে অভিভাবকদের সচেতন করতে প্রচারণার যে পরামর্শ এসেছে সেটিও বাস্তবায়ন করা জরুরি। 
সর্বোপরি আমরদের অভিমত,যেকোনো মূল্যে প্রশ্নœফাঁসরোধ করতেই হবে। মনে রাখা দরকার, এ থেকে রেহাই না পেলে তা ভবিষ্যতের জন্য হবে অত্যন্ত ভয়াবহ। যারাই প্রশ্নœফাঁসের সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নিশ্চিত করতে হবে।দেশ যখন নানাভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে,যেখানে সৎ,যোগ্য ও সুনাগরিক হিসেবে আগামী প্রজন্মকে গড়ে তোলা অত্যন্ত যৌক্তিক হয়ে দেখা দিয়েছে, সেখানে প্রশ্নœফাঁসের মতো ঘটনারোধ হবে না এমনটি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। জাতির মেধাবিনাশী যে কোনো ব্যাধি রুখে দিতে প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ নিশ্চিতহোক এমনটি আমাদের প্রত্যাশা।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ









বিদায় ১৪২৪ স্বাগত ১৪২৫

বিদায় ১৪২৪ স্বাগত ১৪২৫

১৪ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:৫৬





ব্রেকিং নিউজ