খুলনা | রবিবার | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

জরুরী অবস্থার অবসান চায় যুক্তরাষ্ট্র : পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে যাচ্ছে জাতিসংঘ

শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধ-মুসলিম সংঘাত ঠেকাতে সোশ্যাল মিডিয়া বন্ধ

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ০৮ মার্চ, ২০১৮ ০০:০২:০০

বৌদ্ধ ও মুসলমানদের মধ্যে সংঘাতের প্রেক্ষাপটে ক্যান্ডিতে জরুরী অবস্থা জারির পর ফেসবুকসহ বিভিন্ন অনলাইন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করেছে শ্রীলঙ্কা। গতকাল বুধবার সরকারের এক ঘোষণায় তিন দিন সারাদেশে ফেসবুক, ভাইবার ও হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়।
মুসলমানদের সঙ্গে সংঘাতে এক বৌদ্ধ তরুণের মৃত্যুর জের ধরে শ্রীলঙ্কার মধ্যাঞ্চলীয় জেলা ক্যান্ডিতে রবিবার থেকে দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে সংঘাত চলছে।
পুলিশের মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকারা বলেছেন, মঙ্গলবার রাতভর ক্যান্ডি এলাকায় ‘বেশ কয়েকটি ঘটনা’ ঘটেছে। “পুলিশ সাতজনকে গ্রেফতার করেছে। এ সময় পুলিশের তিন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।” তবে কতজন বেসামরিক নাগরিক আহত হয়েছে সে হিসাব পাওয়া যায়নি।
এসব সহিংস ঘটনার কয়েকটির জন্য সোশাল মিডিয়াকে দায়ী করে সরকারের পক্ষ বলা হয়েছে, ফেসবুকে মুসলিমদের ওপর আরও হামলার হুমকি সম্বলিত পোস্টের মাধ্যমে সহিংসতাকে উস্কে দেওয়া হয়েছে।
এদিকে দ্রুত শ্রীলঙ্কার জরুরী অবস্থা প্রত্যাহার করতে সে দেশের সরকারকে তাগিদ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার নিন্দা জানিয়ে মঙ্গলবার দেওয়া বিবৃতিতে এই অবস্থান জানিয়েছে তারা। এদিকে সেখানকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে শিগগিরই দেশটি সফর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতিসংঘ প্রতিনিধিদল।
৫ মার্চ ২০১৮ সোমবার ক্যান্ডিতে নতুন করে মুসলিম মালিকানাধীন একটি দোকান জ্বালিয়ে দেয় সংখ্যাগরিষ্ঠ সিংহলি বৌদ্ধরা। মূলতঃ ওই অগ্নিসংযোগ থেকেই দাঙ্গার সূত্রপাত। দাঙ্গায় আহত এক বৌদ্ধের মৃত্যুর পাশাপাশি পুড়ে যাওয়া ভবন থেকে এক মুসলিমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরপর সংঘাত চরম আকার ধারণ করে। সহিংসতা ঠেকাতে সোমবার রাতে ক্যান্ডিতে কারফিউ জারি করা হয়। মঙ্গলবার ক্রমবর্ধমান সহিংসতার আশঙ্কা জানিয়ে সারাদেশে ১০ দিনের জন্য জরুরী অবস্থা জারি করে সরকার।
সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার নিন্দা জানিয়ে মঙ্গলবার বিবৃতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিবৃতিতে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের জন্য মানবাধিকার ও আইনের শাসনের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়। বিবৃতিতে দ্রুত জরুরী অবস্থার অবসান ঘটিয়ে সবার জন্য মানবাধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতা নিশ্চিত করার আহ্বান জানানো হয়।
এদিকে জাতিসংঘের রাজনীতি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারী জেফরি ফেল্টম্যান শুক্রবার শ্রীলঙ্কা সফরে যাবেন বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘ মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক। তিনদিনের সফরে তিনি কান্ডি শহর দেখতে যাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। জরুরী অবস্থা জারির আগেই সফরের পরিকল্পনা করা হয়েছে বলেন স্টিফেন দুজারিক। তিনি বলেন, ‘সেখানে চলমান সাম্প্রদায়িক সহিংসতা খবরে আমরা অবশ্যই উদ্বিগ্ন। অস্থিরতা কমানো ও পুনর্মিলনের জন্য সরকারের প্রতিশ্র“তিকে আমরা স্বাগত জানাই।’ সংঘাতের পথ পরিহার করে সংলাপের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানে সবার প্রতি আহ্বান জানান তিনি।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






ভারতে তিন তালাক দিলে  জেল জরিমানা হবে

ভারতে তিন তালাক দিলে  জেল জরিমানা হবে

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:১০


ঘানায় চিরনিদ্রায়  শায়িত কফি আনান

ঘানায় চিরনিদ্রায়  শায়িত কফি আনান

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০৭






ব্রেকিং নিউজ








খুলনায় বিসিবি’র চারদিনের ম্যাচ ড্র

খুলনায় বিসিবি’র চারদিনের ম্যাচ ড্র

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:২৩

আবারও ব্যার্থ আশরাফুল

আবারও ব্যার্থ আশরাফুল

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:২৩