খুলনা | সোমবার | ১৮ জুন ২০১৮ | ৪ আষাঢ় ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় ভাষা শহিদদের স্মরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ০১:১৮:০০

বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষার মর্যাদা দেওয়ার পাশাপাশি সর্বস্তরে বাংলা ভাষা প্রচলন এবং অন্যান্য জাতিসত্তার ভাষা ও বর্ণমালা সংরক্ষণের দাবির মধ্য দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় ভাষা শহিদদের স্মরণ করেছে সমগ্র জাতি। ভাষা শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে একুশের প্রথম প্রহরেই হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে। ফুলে ফুলে ভরে উঠে বাঙালির শোক আর অহংকারের এই মিনার। গত বুধবার রাত ১২টা ১টি মিনিটে নগরীর শহিদ হাদিস পার্কের শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রশাসন, রাজনৈতিক দলসমূহ, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ নানা স্তরের মানুষ। এ সময় অমর একুশের কালজয়ী গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্র“য়ারি...বাজানো হয়।
খুলনা জেলা প্রশাসন : খুলনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহিদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত। দিবসটি উপলক্ষে খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পালিত হয় বিভিন্ন কর্মসূচি। একুশের প্রথম প্রহরে শহিদ হাদিস পার্কে শহিদ মিনারে খুলনা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, বিভাগীয় কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি ও কেএমপি কমিশনার, জেলা প্রশাসন, চেম্বার অব কমার্স, খুলনা প্রেসক্লাবসহ পেশাজীবী সংগঠন এবং সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সাহিত্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পুষ্পমাল্য অর্পণ এবং শহিদদের আত্মার মাগফিরাত কামনার মাধ্যমে দিবসের কর্মসূচির শুভ সূচনা করেন।
ভোর হতেই প্রভাতফেরী সহযোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও অন্যান্য সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন শহিদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে। বাদ জোহর কালেক্টরেট জামে মসজিদসহ সকল মসজিদে শহিদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া মন্দির, গীর্জা ও অন্যান্য উপাসনালয়ে অনুরূপ বিশেষ প্রার্থনা করা হয়। বিকেলে এ উপলক্ষে বয়রাস্থ বিভাগীয় গণগ্রন্থাগার চত্বরে খুলনা জেলা প্রশাসন অয়োজিত আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, এড. এনায়েত আলী ও মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আলমগীর কবীর। খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ আমিন উল আহসান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। সকালে ইসলামিক ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা, শিক্ষক সমাবেশ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনে রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। শহিদ হাদিস পার্ক এবং জাতিসংঘ পার্কে সন্ধ্যায়  খুলনা জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়। উপজেলা পর্যায়েও অনুরূপ কর্মসূচি পালিত হয়।
খুলনা সিটি কর্পোরেশন  : দিবসের প্রথম প্রহরে ১২টা ১ মিনিটে নগরীর শহিদ হাদিস পার্কস্থ শহিদ মিনারে সিটি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান কাউন্সিলর, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে নিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। সকাল ৯টায় নগর ভবনে শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সিটি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন। বেলা সাড়ে ১১টায় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। কাউন্সিলর মোঃ আলী আকবর টিপু’র সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান।  পরে সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান ও সিটি মেয়র মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।  এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পলাশ কান্তি বালা (যুগ্ম-সচিব), প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ নাজমুল ইসলাম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আব্দুল হালিম, সিনিয়র ভেটেরিনারী সার্জন ডাঃ মোঃ রেজাউল করিম, জনসংযোগ কর্মকর্তা সরদার আবু তাহের, কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি উজ্জ্বল কুমার সাহা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত বক্তৃতা করেন কেসিসি’র শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা এস কে এম তাছাদুজ্জামান। এর আগে সিটি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান দিবস পালন উপলক্ষে কেসিসি পরিচালিত খুলনা কলেজিয়েট গার্লস স্কুল ও কেসিসি উইমেন্স কলেজ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ তৌহিদুজ্জামান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মহান শহিদ দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তৃতা করেন অধ্যাপক মকবুল-উর রহমান, অধ্যাপিকা সুলতানা পারভীন, শিক্ষিকা হোসনেয়ারা, আফিফা আমিনুল রাফা, আর্জিয়া ইসলাম প্রাপ্তি প্রমুখ। 
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় : দিবস উপলক্ষে সকাল সাড়ে ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন। এ সময় বিভিন্ন স্কুলের ডিন, পরিচালক, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত), ডিসিপ্লিন প্রধান, ছাত্র বিষয়ক পরিচালক, প্রভোস্টবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এর পরপরই খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ, খানজাহান আলী হল, অপরাজিতা হল, খানবাহাদুর আহছানউল্ল¬া হল, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল, ডিসিপ্লিনসমূহ, ন্যাশনালিস্ট টিচার এসোসিয়েশন, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট, সিআইএসএস, শারীরিক শিক্ষা দপ্তর, অফিসার্স কল্যাণ পরিষদ ও শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর মধ্যে চেতনা একাত্তর, বাঁধন, ভৈরবী, ওংকার শৃণুতা, ছায়াবৃত্ত, স্পার্ক, কেইউপিএস, রোটার‌্যাক্ট ক্লাব, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল, কর্মচারীবৃন্দ, ফউটে ও এগ্রোটেকনোলজি এ্যালামনাই এসোসিয়েশন এবং উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আঞ্চলিক কেন্দ্রসহ আশপাশের স্কুল-কলেজের শিক্ষক ছাত্র-ছাত্রী ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার চত্বরে মুক্তমঞ্চে দিবস উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক ইংরেজি ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. আহমেদ আহসানুজ্জামানের সভাপতিত্বে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, সয়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট ডিসিপ্লিনের সহযোগী অধ্যাপক নিপা অধিকারী, বাংলা ডিসিপ্লিনের ড. দুলাল হোসেন,  শিক্ষার্থীদের মধ্যে আদনান মাহমুদ ও তাসনুভা খায়ের প্রিয়া বক্তব্য রাখেন। এর আগে উপাচার্য অদম্য বাংলা চত্বরে চারুকলা আয়োজিত ক্যানভাসে একুশে কর্মসূচিতে ক্যানভাসে রং-তুলিতে জাতীয় পতাকা অঙ্কন করে উদ্বোধন করেন এবং আইন ও বিচার ডিসিপ্লিনের উদ্যোগে মুদ্রিত একুশের স্মরণিকা দেয়াল ভাঙার গান-এর দ্বিতীয় সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. এস এম রফিজুল হক, ছাত্র বিষয়ক পরিচালক প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাস, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. আফরোজা পারভীন, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. অনির্বাণ মোস্তফা, দিবস উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. আহমেদ আহসানুজ্জামান এবং সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় : একুশের প্রথম প্রহরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নব-নির্মিত কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়েছে। ২০ ফেব্র“য়ারি রাত ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ মিনার চত্বরে আলোচনা সভা ও দিবসের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (ছাত্র কল্যাণ) প্রফেসর ড. সোবহান মিয়া-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর।  প্রথম প্রহর রাত ১২টা ১ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ে শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে প্রথম পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর। এরপর পর্যায়ক্রমে পরিচালক (ছাত্র-কল্যাণ), শিক্ষক সমিতি, বিভিন্ন হলের প্রভোস্ট ও ছাত্র-ছাত্রীগণ, কুয়েট অফিসার্স এসোসিয়েশন, কুয়েট ছাত্রলীগ, কুয়েট বঙ্গবন্ধু কর্মচারী পরিষদ, কুয়েট তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতি, কুয়েট চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারী সমিতি, কুয়েট থিয়েটার, অচীন পাখি, স্বরে-অ, কুয়েট মাস্টাররোল কর্মচারী সমিতিসহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। 
বশেমুরবিপ্রবি : গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় শহিদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন ও একাডেমিক ভবনে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন সভাপতিত্বে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। 
সকাল সাড়ে ১০টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভার শুরুতে ভাষা শহিদদের আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিটি নীরবতা পালন করা হয়। বক্তৃতা করেন জীববিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম এ সাত্তার, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান, রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. নূরউদ্দিন আহমেদ, বাংলা বিভাগের সভাপতি জাকিয়া সুলতানা মুক্তা, ইটিই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোছাঃ হালিমা খাতুন, প্রভাষক সানজিদা হক মিশু,  জয়নাব বিনতে হোসেন, এমদাদুল হক প্রমুখ।  অনুষ্ঠানে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের নেতৃত্বে রাত ১২টা ০১ মিনিটে ক্যাম্পাসের শহিদ মিনারে ও পরে গোপালগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি : মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাব-গাম্ভীর্যের সাথে পালন করা হয়। বিশ^বিদ্যালয়ের প্রসাশনিক ভবন হতে শুরু হয়ে প্রভাতফেরীটি শহিদ হাদিস পার্কের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে এসে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শেষ হয়। অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. তারাপদ ভৌমিক, ট্রেজারার ফকির আবু হোসেন, ফ্যাকাল্টি অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজির ডীন প্রফেসর ড. মোঃ নওশের আলী মোড়ল, রেজিস্ট্রার মোঃ শহিদুল ইসলাম, প্রক্টর শেখ মাহরুফুর রহমানসহ বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধানগণ এবং শিক্ষকমন্ডলী, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রভাষক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন। অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন জনসংযোগ বিভাগের কর্মকর্তা মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক। 
এনইউবিটি খুলনা : দিবস উপলক্ষে সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে বর্ণাঢ্য প্রভাতফেরী সহকারে নগরীর শহিদ হাদিস পার্কে অবস্থিত শহিদ মিনারে ভাষা আন্দোলনের সকল শহিদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে। উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেজ এন্ড টেকনোলজী খুলনার রেজিস্ট্রার ইনচার্জ এএইচএম মানজুর মোরশেদ, ব্যবসা প্রশাসন বিভাগের প্রধান এস এম মনিরুল ইসলাম, কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিয়ারিং বিভাগের প্রধান  মোঃ রবিউল ইসলামসহ বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের শিক্ষার্থীরা।
জেলা জাতীয় পর্টি : বুধবার সকাল ১১টায় পার্টির উদ্যোগে ডাকবাংলাস্থ দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও জেলা সভাপতি শফিকুল ইসলাম মধু। বক্তৃতা করেন জেলা সাধারণ সম্পাদক এম হাদিউজ্জামান, মোতওয়া আলী শেখ, শেখ রিয়াজ উদ্দিন হাওলাদার, শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন, আলহাজ্ব ইসমাইল খান টিপু, ডাঃ সৈয়দ আবুল কাশেম, যুব সংহতির এস এম এরশাদুজ্জামান ডলার, জি এম বাবুল, শাহ জাহান আলী সাজু, শাহারিয়ার নাজিম, মোঃ রহমত আলী খান, জাপা নেতা সুলতান মাহামুদ, এড. মারুফ আহমেদ, আব্দুল ওয়াদুত মোড়ল, ফরিদা ইয়াসমিন, ওয়াসিম মল্লিক, ওয়াসিক আহসান রাজীব, জুলকার নাহিম, মোঃ সাদ্দাম হোসেন, মাহাবুব হোসেন, মোঃ মিজানুর রহমান এলাহী, মোঃ শহিদুল ইসলাম, ওয়াহিদুজ্জামান বাদল, সঞ্জয় গোলদার, মোবারেক মৃধা, মোঃ আমির হোসেন, আঃ হামিদ, মৌলঙ্গী হাফিজ, শফিকুল ইসলাম বাচ্চু, গাজী মোশারেফ হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠানের প্রথমে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন মোঃ মাহামুদ হাসান। 
খুলনা প্রেস ক্লাব : দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভার শুরুতে ৫২’র ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। 
প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফারুক আহমেদের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক মল্লিক সুধাংশু’র পরিচালনায় বক্তৃতা করেন মোঃ হেদায়েৎ হোসেন মোল্লা, কৌশিক দে, অধ্যাপক আলী আহমেদ, মকবুল হোসেন মিন্টু, এ কে হিরু, শেখ আবু হাসান, মোঃ সাহেব আলী, সুবীর কুমার রায়, মামুন রেজা, মোজাম্মেল হক হাওলাদার, মুহাম্মদ আবু তৈয়ব, মোঃ শাহ আলম, মোঃ রাশিদুল ইসলাম, আব্দুল মালেক, শেখ আব্দুল্লাহ,  মাহবুবুর রহমান মুন্না,  সুনীল কুমার দাস, এস এম ফরিদ রানা প্রমুখ। এর আগে একুশের প্রথম প্রহরে শহিদ হাদিস পার্কের শহিদ বেদীতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দ। 
বিএল কলেজ : দিবসটি পালন উপলক্ষে বুধবার সকাল ৯টায় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি কলেজ এলাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ক্যাম্পাসের শহিদ মিনারে ফুলের শ্রদ্ধা জানানোর মাধ্যমে শেষ হয়। এতে শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ হাজারও শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। পরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর সৈয়দ সাদিক জাহিদুল ইসলাম। বক্তৃতা করেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর কে এম আলমগীর হোসেন, কলেজের ছাত্র সংসদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক তবিবার রহমান, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক সামছুর রহমান প্রমুখ।  দিবসটি উপলক্ষে কলেজে কুইজ ও বানান প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 
খুলনা ‘ল’ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন : দিবস পালন উপলক্ষে গত মঙ্গলবার দুপুর ২টায় আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে সংগঠনের খুলনা শাখার উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন অত্র সংগঠনের সভাপতি এড. এম. মাফতুন আহমেদ। সভায় ভাষা শহিদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। বক্তৃতা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এড. আতাহার হোসেন জোয়ারদার, এড. নাহিদ সুলতানা, এড. নুরুল হাসান রুবা, এড. তারেক মাহমুদ তারা, এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার, এড. এড. দেবানন্দ হুই, এড. সৈয়দ মিরাজ হোসেন, এড. মিজানুর রহমান, এড. মোঃ আব্দুল মান্নান ও শেখ জাহিদুল ইসলাম। সভা শেষে শহিদদের রুহের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। 
খুলনা শিশু হাসপাতাল : দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে সকল ভাষা শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের জন্য হাসপাতাল প্রাঙ্গণ থেকে সকাল সাড়ে ৮টায় র‌্যালি বের হয়। পরে শহিদ হাদিস পার্কে অবস্থিত শহিদ মিনারে পুষ্প অর্পণ করা হয়। র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ও তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ কামরুজ্জামান, উপ-তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ অনুপ কুমার দে, আরএমও ডাঃ এ, কে, এম মোর্শেদুর রহমান, আইএমও ডাঃ মোঃ নূর-এ-আলম সিদ্দিকীসহ অন্যান্য কনসালট্যান্টবৃন্দ, মেডিকেল অফিসারবৃন্দ ও হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোঃ আল-আমিন রাকিব ও অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। 
তমদ্দুন মজলিস : দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে সংগঠণের খুলনা জেলা কমিটির উদ্যোগে নগরীর একটি হোটেল ভবন মিলনায়তনে সংগঠনের জেলা সভাপতি এড. লতিফুর রহমান লাবুর সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী এড. এম মাফতুন আহম্মেদের সার্বিক পরিচালনায় এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা বিএল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ তারেক। বক্তব্য রাখেন সৈয়দ মঈনুল ইসলাম কাজমী, আলহাজ্ব জোয়াদ্দার আসাদুজ্জামান, এড. আতাউর হোসেন জোয়াদ্দার, মোঃ সিরাজউদ্দিন সেন্টু, এড.  সৈয়দ মিরাজ হোসেন, ব্যাংকার জাহিদ ইকবাল, দাউদ ইসলাম প্রমুখ।
খুবি বন্ধন :  দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসারদের সংগঠন বন্ধন’র উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে সকাল সাড়ে ৬টায় ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আবদুর রহমান, জি.এম আনিসুর রহমান, এস এম মোহাম্মাদ আলী, মোঃ আতিয়ার রহমান, মোঃ আব্দুর রহমান (অহি), মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক, এস, এম জাকির হোসেন, এস এম শাকিল রহমান, মোঃ নাসির জাহাঙ্গীর, সাহারা বানু প্রমুখ।
বৃহত্তর খুলনা সমিতি : দিবস উপলক্ষে বেলা ১১টায় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের মূল বেদীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সমিতির সদ্য বিদায়ী সভাপতি ডিআইজি শেখ মোহাম্মদ মারুফ হাসান পিপিএম, বিপিএম, বৃহত্তর খুলনা সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি এড. আলহাজ্ব শেখ আতিয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক লায়ন মোঃ আবু জাফর মিয়া, শেখ সাহেদ হোসেন সালাউদ্দিন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও মোড়েলগঞ্জ উপজেলা সমিতির নেতা ড. মনিরুজ্জামান মনিরসহ বৃহত্তর খুলনা সমিতির বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সেন্ট জেভিয়ার্স হাই স্কুল :  বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বিদ্যালয়ের শহিদ শেখ আবু নাসের ভবন অডিটোরিয়ামে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহিদ দিবস শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও মহানগর আ’লীগের দফতর সম্পাদক মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ শেখ। বক্তব্য রাখেন মোর্শেদ আহমেদ রিপন, আঃ মালেক তালুকদার, পারভীন বেগম, আকতার বানু, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত সহকারী প্রধান শিক্ষক প্রণব কুমার মিস্ত্রী (দিবা), সিনিয়র শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম, মমতাজ আহমেদ, নিত্যানন্দ গাইন, নিখিল কুমার কুন্ডু, মনি মোহন মন্ডল, মাসুদ শেখ, নাদিরা পারভীন, নাদিরা সুলতানা, তন্ময় কুমার রায়, বিশ্বজিৎ কুমার মৃধা,  সমিরন সরকার,  শাহীনা খাতুন,  এবং ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে জহিরুল হক, নাজমুল হোসেন, আরিফা ইসলাম রিতু, মার্জান ইসলাম, অমি। এর পূর্বে সকাল ৬টায় নগরীর শহিদ হাদিস পার্কে ভাষা শহিদদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।
সিটি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট : দিবস উপলক্ষে ইনস্টিটিউট খুলনায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান ও অধ্যক্ষ এস এম জাহাঙ্গীর আলম। বক্তৃতা করেন অত্র ইনস্টিটিউটের উপাধ্যক্ষ শেখ হাবিবুর রহমান, সিনিয়র শিক্ষক মোঃ আজিজুর রহমান, এস.এম হাফিজুর রহমান, আব্দুল কুদ্দুস গাজী, মোঃ রুহুল আমিন খান, রেজিস্ট্রার মোঃ মোমিনুর ইসলাম আব্দুল বাসেদ, মোঃ শাহাবুদ্দিন আহমেদ মোঃ বুলবুল আহমেদ, মোঃ শাহমাখদুম, মোঃ মোজাহিদুল ইসলাম, মোঃ আকবর হোসেন, ছাত্র মোঃ জোবায়ের হোসেন ও মাসুম গাজী । 
ন্যাপ (ভাসানী) ও এনডিএফ : দিবস উপলক্ষে মহানগরে উদ্যোগে শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয় এবং বিকেল ৪টায় বয়রা ইসলামিয়া কলেজ রোডে দলের মহানগরের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ ওবায়দুল হোসেনের বাসভবনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অংশগ্রহণ করেন কেন্দ্রীয় সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খুলনা মহানগর সভাপতি শেখ ইকবাল আহমেদ, শেখ ওবায়দুল হোসেন, আশিক (ইউএস), সাধারণ সম্পাদক এস এম জিয়াউল করিম চন্দন, শেখ ফজলুর রহমান, শেখ হাসান ইমাম, শেখ মনিরুল ইসলাম মনি, সাধারণ সম্পাদক মোঃ হানিফ খান শাওন প্রমুখ।
সুরের টানে : দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক সংগঠন উদ্যোগে শহিদ হাদিস পার্কের শহিদ মিনারের পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি এস কে উৎপল, সাধারণ সম্পাদক খান হাবিবুর রহমান, নির্বাহী সদস্য মণ্টু দাস, ইমরান হোসেন, আব্দুল কাদের, শাহাবুদ্দিন প্রমুখ।
সাহিত্য নিকেতন  : দিবসের  প্রত্যূষে খুলনার শহিদ হাদিস পার্কের শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ।  এ সময় উপস্থিত ছিলেন সভাপতি কবি বিশ্বাস মিলন আহমেদ মিলি, শিবনাথ মন্ডল হিমাংশু, খন্দকার বাপ্পী, এস, কে, ইউসুফ, পলি আক্তার মেঘলা, মিনা কবিরাজ ও অভিজিৎ দাসসহ অনেকে। বিকালে হাজী মেহের আলী রোডের সাহিত্য নিকেতনের কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সাহিত্য নিকেতনের সভাপতি কবি বিশ্বাস মিলন আহমেদ মিলি। পরে সদস্যদের উপস্থাপনায় কবিতা আবৃত্তি ও সঙ্গীত পরিবেশিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে নিহত ভাষাশহিদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
জিয়া পরিষদ : সংগঠনের নগর ও জেলা শাখার উদ্যোগে দিবসে প্রথম প্রহরে শহিদ হাদিস পার্কস্থ শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন নেতৃবৃন্দ। উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক মনিরুল হক বাবুল, এডঃ মোল্লা মশিউপ রহমান নান্নু, এস এম মোহাম্মদ আলী, মোঃ সফিকুল ইসলাম সফিক, অধ্যাপক মোস্তফা মাহমুদ, এড. সরদার আব্দুস সোবাহান, মিশকাত হোসাইন, গোলাম মোহাম্মদ, কে এম মিজানুর রহমান, মোঃ রবিউল ইসলাম, মোঃ নাসির উদ্দিন, মোঃ জহির রায়হান প্রমুখ। 
কালের কন্ঠ শুভ সংঘ : দিবসে প্রহরে শহরের শহিদ হাদিস পার্কে খুলনা কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের বেদীতে ফুল দিয়ে ভাষা শহিদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের খুলনা জেলা সভাপতি কানাই মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু সাঈদ খান, বিপুল কান্তি চৌধুরী,  কমলেশ সরদার সাধন, শুভ সংঘের অপু সরকার, জাহাঙ্গীর ফকির, এএম হাসিব, সাগর খান, তপক মণ্ডল, মিহির রায়, এস এম ইশতিয়াক মাহমুদ শাওন প্রমুখ। 
দৌলতপুর : নগরীর ৯নং ওয়ার্ড জাপা কার্যালয়ে গতকাল মহান শহিদ দিবসে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় গতকাল দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ৯নং ওয়ার্ড জাপা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন খালিশপুর থানার জাপার সাবেক সাধারণ সম্পাদক আঃ রাজ্জাক হাওলাদার, রফিজুল ইসলাম, বাবুল হাসান, এম এ কালাম, আবুল বাশার রিপন, সোহরাব হোসেন, মফিজ তালুকদার, মোঃ বাবু, মোঃ করিম, মাসুদ রানা, মোঃ রুম্মান, মোঃ সোহেল, হাফেজ মোঃ হেমায়েত, মোঃ হারুন, রফিকুল মিয়া, আব্দুল মালেক, মনির হোসেন, নুরু মিয়াসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
অনুরূপ নগরীর আড়ংঘাটা ইউনিয়ন জাপা কার্যালয়ে দিবসে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় গতকাল দোয়া মাহফিল জিএম কাওসার আলীর সভাপতিত্বে এবং মোঃ রাসেল হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন গাজী সিরাজুল ইসলাম, শেখ হানেফ হোসেন, আঃ গফ্ফার ঘরামী, রঞ্জন মন্ডল, হাশেম ফকির, শংকর মন্ডল, আব্দুল্লাহ শেখ, ডাঃ ওয়াহিদুর ইসলাম, মাসুদুর রহমান নান্নু, ইসরাফিল, শাহাদাৎ, আকসের প্রমুখ। দোয়া পরিচালনা করেন মাওঃ তাজুল ইসলাম। 
আহসান উল্লাহ কলেজ :  দিবসে ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন ও আলোচনা সভা করেছে আহসান উল্লাহ কলেজ কর্তৃপক্ষ। গত বুধবার সকাল ৭টায় কলেজ থেকে প্রভাত ফেরি শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ক্যাম্পাসে এসে শহিদ বেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। পরে কলেজ মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কলেজ অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু। বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক সেলিনা নাজনিন, অধ্যাপক ফারজানা সালাউদ্দিন, অধ্যাপক মাওঃ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, মমতাজ আলী, মাহমুদা চৌধুরী পলি, হামিদা বানু, অধ্যাপক অচিন্ত্য ঘরামী, অধ্যাপক হোসনে আরা খানম, শিক্ষার্থী জোবাইয়া নওসিন, সাব্বির জাহিদসহ বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা। পরে শহিদদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।
ওজোপাডিকো : দিবসটি উপলক্ষে সকালে নগরীতে র‌্যালি ও প্রভাত ফেরী শেষে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তৃতা করে ওজোপাডিকো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন, নির্বাহী পরিচালক (অর্থ) রতন কুমার দেবনাথ, নির্বাহী পরিচালক (প্রকৌশল) প্রকৌশলী হাসান আলী তালুকদার, ডিজিএম রবীন্দ্রনাথ দত্ত, কোম্পানি সচিব আবদুল মোতালেব, প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী সিএম মোতাহার হোসেন, ডিজিএম মোঃ আলমগীর কবীর, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ আবু হাসান, প্রকৌশলী সাইফুজ্জামান, ব্যবস্থাপক এএন মোস্তাফিজুর রহমান, আবুল কাশেম, নাজমুল হুদা, নির্বাহী প্রকৌশলী মাহমুদুল হক, মামুনুর রহমান, মঞ্জুল কুমার স্বর্ণকার, রাফিন হায়দার, উপ-ব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) কে এম রেজাউল হক, খান আবুল হাসান, রুহুল আমিন হাওলাদার, শ্রমিক নেতা সৈয়দ তারিকুল ইসলাম, মাখলুকার রহমান প্রমুখ।       
আলহাজ্ব সরোয়ার খান (ডিগ্রী কলেজ ) : দিবসটি উপলক্ষে প্রভাতফেরী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কলেজ অধ্যক্ষ এএসএম সাইফুদ্দোহার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আখতার হোসেন বাবলু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ মোঃ আলতাফ হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য সৈয়দ মিজানুর রহমান ও মোল্লা নজরুল ইসলাম। বক্তৃতা করেন ছাত্রনেতা ফোরকান আহমেদ রনি, রিয়াজুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন, মেজবাহ উদ্দিন শাওন, সজিব তালুকদার প্রমুখ। 
এস এম মোস্তফা রশিদী সুজা মহিলা মহাবিদ্যালয় : আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এএসএম সাইফুদ্দোহার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন সেনহাটী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগ নেতা মোঃ নাসির উদ্দিন, মোঃ সজিব তালুকদার, মোঃ রিয়াজুল ইসলাম, মোঃ আহাদ আলী, শাখিরা খাতুন, সাবিহা সুলতানা, হাছিনা খাতুন প্রমুখ।   
আলিয়া মাদ্রাসা : দিবসে মাদ্রাসা অডিটরিয়ামে গত বুধবার বেলা ১১টায় আলোচনা সভা, রচনা-হাতের লেখা, উপস্থিত সাধারণ জ্ঞান ও বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা আবুল খায়ের মোহাম্মদ যাকারিয়ার সভাপতিত্বে আলোচনায় করেন উপাধ্যক্ষ মাওলানা মুফতি আব্দুর রাজ্জাক মিয়া, মুফাসসির মাওলানা মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান, অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা সিন্দাইনী, আদিব ড. মোঃ রবিউল ইসলাম, প্রভাষক মাওলানা মোঃ সাইফুল ইসলাম, প্রভাষক মাওলানা মোঃ মাকসুদুর রহমান। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রভাষক মাওলানা মোঃ আসাদুজ্জামান।
ইসলামিয়া কলেজ : দিবসের কর্মসূচিতে খুলনা ইসলামিয়া কলেজের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শেখ আবিদ উল্লাহ, লুৎফুন নাহার লিলি, মোঃ আবুল বাশার, আওছাফুর রহমান, মোঃ ফারুক হোসেন, মোঃ জাহিদ আমীর ও ড. মোঃ জাকারিয়া।
ইউনানী কলেজ : দিবসে খুলনা ইউনানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অনুরুপ কর্মসূচি অধ্যক্ষ হাকীম আশরাফ হোসেন মোড়লের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন এড. মঞ্জুর-উল-আলম, আব্দুর রহিম, মহিদুর রহমান, নৃপেন্দ্র নাথ বৈরাগী, একেএম হাবিবুল কাদির খান, এড. খন্দকার আতিয়ার রহমান, মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, সুভাষ চন্দ্র মুখার্জ্জী, কৃষ্ণপদ গায়েন, সাইফুল ইসলাম, শরিফুল ইসলাম, শরীফা আখতার, এএসএম কামরুল ইসলাম, মতিয়ারা বেগম, আজাহার উদ্দীন, জাহিদুর রহমান, রেজাউল করিম মামুন, আব্দুর রহমান খান, মোঃ বেল্লাল হোসেন, ইমরান হোসেন, মাফুজা ইসলাম, মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।
খুলনা সাহিত্য পরিষদ : দিবসে  সাহিত্য পরিষদে আলোচনা সভা, কবিতা আবৃত্তি ও শহিদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। প্রফেসর মুহাম্মদ তারেকের সভাপতিত্বে এসব অনুষ্ঠানে ছিলেন কাজী রিয়াজুল হক, কামরুল আহসান, তৈয়াবুর রহমান, এম হেফজুর রহমান, শেখ রেজানুল হক মানিক, মল্লিক আশরাফ আলী, এফএম আকতারুজ্জামান, সৈয়দ আলী হাকিম ও নিজাম উদ্দিন আহমেদ।
ওয়ার্কার্স ফোরাম : দিবসে ওয়ার্কার্স ফোরাম খুলনার উদ্যোগে অনুরুপ কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন এড. হারুন-অর-রশিদ হেলাল। আলমগীর কবির আলমের পরিচালনায় সভায় বক্তৃতা করেন মোল্লা আবুল কাশেম, এড. মঞ্জুর আহম্মেদ, শাহ জালাল বাবলু, এস এম ফেরদাউস আহম্মেদ, এড. আব্দুর সবুর, এড. খান মনিরুজ্জামান, আব্দুস সালাম, কবির আহম্মেদ, শামীম আহম্মেদ, শরিতুল ইসলাম ময়না, খোদেজা বেগম, তারেক সৈয়দ আলী হাসান, এস এম বজলুর রহমান, হাফিজুর রহমান জাহাঙ্গীর, শফিকুল হাসান দিদার, এসএম আবু বক্কার সিদ্দিকী, রেজাউল হক অনু প্রমুখ। দোয়া পরিচালনা করেন গোলাম মোস্তফা চৌধুরী।
নাসের উদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় : দিবসে নগরীর বয়রাস্থ খন্দকার নাসের উদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুরুপ কর্মসূচি মুনসুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নুরজাহান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় যৌথভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।  নাসের উদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সেলিম সরদারের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন খন্দকার বাহাউদ্দিন, মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, মোঃ গোলাম মোস্তফা, প্রধান শিক্ষক গাজী এমদাদ হোসেন ও শেখ জাকির হোসেন, শেখ মিরাজুল ইসলাম মিরাজ, নিগার সুলতানা, হালিমা নার্গীস, মাফুজা খাতুন, সামছুর নাহার, সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, শেখ কামরুল ইসলাম, স্মৃতি বিশ্বাস, শেখ সহিদুল ইসলাম, মোঃ মোফিজুর রহমান রিপন ও খাদিজা খানম প্রমুখ।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ : দিবসে বিকেল ৪টায় নগর কার্যালয়ে দলের মহানগর কমিটি উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় নগর নেতৃবৃন্দ  উপরোক্ত কথা বলেন। নগর সহ-সভাপতি শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও নগর সেক্রেটারী মুফতী আমানুল্লাহ’র পরিচালনায় আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়৷ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন হাফেজ আসাদুল্লাহ গালিব, মাওলানা ইমরান হুসাইন, আবু মোঃ গালিব, ৬নং ওয়ার্ড প্রার্থী মোঃ তরিকুল ইসলাম কাবির, মোঃ আব্দুর রশিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জি এম কিবরিয়া, মোঃ রবিউল ইসলাম তুষার, মুফতি রবিউল ইসলাম রাফে, মোঃ আকবর আলী পাঠান, শ্রমিক নেতা মুহাঃ জাহিদুল ইসলাম, মোঃ আবুল কালাম আজাদ, ছাত্র নেতা মোঃ হাসানুজ্জামান, এস কে নাজমুল হাসান, শেখ নাজমুল হুদা প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।  সভা শেষে ভাষা শহিদসহ দেশের সকল শহিদের রুহের মাগফিতার কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজা করা হয়।
খানজাহান আলী থানা মুক্তিযোদ্ধা : দিবস উপলক্ষে সংগঠনের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও ফুলবাড়ীগেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণসহ বিস্তারিত কর্মসূচি পালন করা হয়। সংগঠনের কার্যালয়ে থানা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা স ম রেজওয়ান আলীর সভাপতিত্বে এবং ডাঃ শাহাজাহান আলীর পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন সেকেন্দার আলী, আলমগীর হোসেন, শেখ মোঃ আজাদ, মোঃ বাবর আলী সরদার, শেখ আব্দুল গনি, সৈয়দ আহম্মেদ আলী, আলেক শেখ, মীনা আলাউদ্দিন, মোঃ আজকের কাগজী, মোঃ ইব্রাহিম, দেলোয়াার হোসেন, আব্দুল মান্নান, ইঞ্জিল কাজী, মুন্সি নজরুল ইসলাম প্রমুখ।
থানা আ’লীগ : দিবস উপলক্ষে দলের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও ফুলবাড়ীগেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। সন্ধ্যায় আলোচনা সভা খানজাহান আলী থানা আ’লীগের সভাপতি শেখ আবিদ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শেখ আনিছুর রহমানের পরিচালনায় বক্তৃতা করেন বেগ লিয়াকত আলী, ইউসুফ আলী খলিফা, শাকিল আহম্মেদ, মোড়ল হাবিবুর রহমান, এফ এম জাহিদ হাসান জাকির, খ ম লিয়াকত আলী, ছলেমান মুন্সি, শাহজাহান মাস্টার, সাইফুল ইসলাম লিটু, মহিলা আ’লীগের নেত্রী মুক্তা  বেগম, সাহারা ইরানি পিয়া, মুন্নি খন্দকার, নার্গিস বেগম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের মোফাজ্জেল হোসেন,  কাজী জাকারিয়া, ইসমাইল, কামরুজ্জামান, ফারুখ চোকদার, মিজানুর রহমান খোকন, কাজী বকুল প্রমুখ । 
খানজাহান আলী থানা বিএনপি : দিবস উপলক্ষে দলের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও ফুলবাড়ীগেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। গতকাল সন্ধ্যায় আলোচনা সভা থানা বিএনপি’র সভাপতি মীর কায়সেদ আলীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শেখ আমজাদের পরিচালনায় বক্তৃতা করেন শেখ ইকবাল হোসেন, আবু সাঈদ হাওলাদার আব্বাস, মোঃ সাইফুল ইসলাম, কাজী শহিদুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন,  মোল্লা সোহরাব হোসেন, দিদারুল ইসলাম লাভলু প্রমুখ।
ইলেকট্রিশিয়ান শ্রমিক ইউনিয়ন : দিবসে উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল বুধবার বিকেল ৪টায় ফুলবাড়ীগেটস্থ জনতা মার্কেটে সংগঠনের নিজস্ব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। থানা সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ রওশাদ আলীর পরিচালনায় সভায় বক্তৃতা করেন সাংগঠনিক সম্পাদক নুর আলম, কোষাধ্যক্ষ এম এ বারী, এ বি এম ইশরাকুল হক, বাবুল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মোঃ সাহাবুদ্দিন প্রমুখ। 
জাতীয় পার্টি : দিবসে পার্টির  উদ্যোগে আলোচনা সভা ও ফুলবাড়ীগেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। থানা আহবায়ক এস এম আনিছুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন সদদ্য সচিব হাকিম আর এস হাফিজ, নজরুল ইসলাম আজাদ, হানিফ সিকদার, মোঃ হারুন শেখ, মোঃ পলাশ চৌধুরী, ডাক্তার মনোয়ার হোসেন হাফেজ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
নগর শ্রমিক লীগ : বিকেল ৫টায় দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি আবুল কাশেম মোল্লার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রনজিত কুমার ঘোষের পরিচালনায় বক্তৃতা করেন মোতালেব মিয়া, শেখ মখলুকার রহমান, মোঃ নাসিরুজ্জামান, মল্লিক নওশের আলী, কাজী আব্দুল ওহাব, আব্দুর রহিম খান, আসাদুজ্জামান মিনা আসাদ, মোল্যা আজাদ, আব্দুর রশিদ শিকদার, মোঃ আসাদুজ্জামান মুন্না, খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।  
হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ : জেলা শাখার ঊদ্যোগে দিবসের প্রথম প্রহরে  শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এ সময় জেলা সভাপতি বিমল বিহারী রায় অমিত, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ শ্যামল কুমার দাস, স্বপন কৃষ্ণ বিশ্বাস, ইমন রাজবংশী, প্রভাষক দীপংকর কুমর দাস, দেবাশীষ রায়, প্রবীর রায়, প্রভাষক বিশ্বজিৎ শীল, প্রভাষক  রনজিত কুমার সরকার, ননী গোপাল দাস, শীকান্ত ঘোষ ও উত্তম কুমার বিশ্বাস, অপু সরকার, পংকজ কুমার সাহা, লব কুমার মল্লিক, নিত্যম বাবু, অনিমেশ সরকার রিংকু, কানাই মন্ডল, সুমন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
খুলনা বড় বাজার গমজাত দ্রব্য ব্যবসায়ী সমিতি : সন্ধ্যায় সমিতি কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সত্য প্রিয় সোম বলাইয়ের পরিচালনায় বক্তৃতা করেন সমিতির সভাপতি গৌর সুন্দর মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউসুফ হোসেন, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোঃ সোহাগ দেওয়ান প্রমুখ। 
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ শিল্পাঞ্চল ইউনিট কমান্ড : দিবসে সংগঠনটি  সকালে প্রভাত ফেরির র‌্যালি বের করে। র‌্যালিটি নিউজ প্রিন্টগেটন্থ শহিদ মিনারে শহিদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে নিজস্ব কার্যালয়ে শহিদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ শাহজাহান, সৈয়দ আরব আলী, মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, আঃ মান্নান শিকদার, হারুন অর রশিদ, আশরাফ আলী, আলমগীর হোসেন, মানবধিকার নেতা আবু তালেব, ডাঃ হায়দার আলী, আঃ খালেক, আবুল হোসেন।
খালিশপুর থানা আ’লীগ : দিবসে দলের নেতা-কর্মীরা ভোরে দলীয় কার্যালয়ে থেকে প্রভাত ফেরির র‌্যালি বের করে এবং শহিদ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ভাষা শহিদদের সম্মান প্রদর্শন করেন। এরপর দেশ ও জাতীর কল্যাণে শপথ বাক্য পাঠ করান খালিশপুর থানা আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব একেএম সানাউল্যা নান্নু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন থানা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মনিরুল ইসলাম বাশার, মুন্সি আঃ ওয়াদুদ, জিয়াউল আলম খোকন, কাজী শাফায়েত হোসেন প্যারেট, কাউন্সিলর এস এম খুরশিদ আহমেদ টোনা, মহিলা কাউন্সিলর পারভিন আক্তার, জিয়াউর রহমান, এস এম গিয়াস উদ্দিন, আঃ মজিদ বকুল, আক্তার হোসেন, হেমায়েত হোসেন, মিনহাজুর রহমান উজ্জল, ইমরুল ইসলাম।
খুলনা বিভাগীয় ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়ন : দিবসে সকালে সংগঠনের র‌্যালিটি বিএল কলেজ শহিদ মিনারে যেয়ে শহিদদের স্মরনে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নেতা কর্মীরা। এ ছাড়া দিনভন জাতীয় সঙ্গীত ও ভাষা দিবসের গান এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি শেখ নুর ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আলী আজিম, পদ্মা মেঘনা যমুনা ট্যাংকলরী শ্রমিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি কাউন্সিলর সুলতান মাহমুদ পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম কালু, মোঃ জালাল হাওলাদার, নুর আলম শেখ, হাসান মাহমুদ, জাকির হোসেন, মিজানুর রহমান মিজু, মোঃ আল আমিন, মাসুম হোসেন, শেখ সোলায়মান, সোহেল মীর, শামিম চৌধুরী, শেখ শওকত হোসেন সোনা, সুবজ শেখ, ফাহিম হোসেন।
মহিলা পলিটেকনিক : দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে প্রথম প্রহরে ইনস্টিটিউট শহিদ মিনারে ভাষা শহিদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।  সকাল ১০টায় প্রতিষ্ঠানের অডিটোরিয়ামে মাতৃভাষা দিবসের তাৎপর্য বিষয়ক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ কাজী নেয়ামুল শাহীন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন একাডেমিক ইনচার্জ নূরজাহান আক্তার। বিভাগীয় প্রধানদের মধ্যে শেখ মুস্তাফিজুর রহমান, মোঃ সোহরাব হোসেন, মোঃ জিয়াউল করিম জিয়া, মান্না মেহেদি বকুল, মাসুম বিল্লাহ। দিবসটি উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের মধ্যে হামদ-নাত, দেশাত্মবোধক গান, কবিতা আবৃতি, ও শিক্ষার সর্বস্তরে বাংলা ভাষার ব্যবহার বিষয়ক রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। পরে ভাষা শহিদদের আত্মার শান্তি কামনা করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ




আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

১৫ জুন, ২০১৮ ০১:০০







আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

১৫ জুন, ২০১৮ ০০:৪৬



ব্রেকিং নিউজ




আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

১৫ জুন, ২০১৮ ০১:০০








আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

১৫ জুন, ২০১৮ ০০:৪৬