খুলনা | সোমবার | ১৮ জুন ২০১৮ | ৪ আষাঢ় ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

রেকর্ড ব্যবধানের হারে শেষ বাংলাদেশের হতাশার সিরিজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ০০:৫০:০০

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টাইগারদের প্রথম ম্যাচ। প্রত্যাশা ছিল নতুন ভেন্যুতে ভালো কিছু করেই স্মরণীয় করে রাখবে অভিষেকটা। কিন্তু তা আর হলো কই? উল্টো বড় হারের বেদনা নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে বাংলাদেশকে। আগের ম্যাচে ব্যাটসম্যানরা সফল হলেও বর্ণহীন ছিলেন বোলাররা। এদিন ব্যর্থ ব্যাটসম্যানরাও। ফলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তারা হেরেছে ৭৫ রানের ব্যবধানে। দুই ম্যাচের এ সিরিজে হোয়াইটওয়াশই হতে হলো স্বাগতিকদের। হতাশাময় সিরিজের শেষটায় বাংলাদেশ পা রাখল যেন ব্যর্থতার সব সোপানে। 
শ্রীলঙ্কার দেয়া ২১১ রানের লক্ষে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। মিরপুরে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দুর্দান্ত এ কাম-ব্যাক হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন সৌম্য সরকার। রবিবার তাই তার ব্যাটের ওপর অনেকটাই তাকিয়েছিল টাইগররা। সেই সৌম্যই লঙ্কান স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়ার বলে রানের খাতা না খুলেই আউট হয়ে গেলেন। এরপরই শিহান মধুশঙ্কার বলে সাজঘরে ফিরে যান মুশফিকুর রহীম। এদিন মাত্র ৬ রান করেছেন আগের ম্যাচে অপরাজিত ৬৬ রান করা এ অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। তার কিছু পর মধুশঙ্কার দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান মোহাম্মদ মিঠুন। ফলে শুরুতেই ৩ উইকেট হারিয়ে বড় হারের শঙ্কায়ই পড়ে বাংলাদেশ। এরপর ওপেনার তামিম ইকবাল ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর ব্যাটিংয়ে ভর করে অর্ধশত রান পার করে কিছুটা আশা দেখছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ব্যক্তিগত ২৯ রানে এমিলা অপনসোর বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তামিম। তারপরই জেভান মেন্ডিসের এলবিডব্লিউৎর শিকার হয়ে ফিরে গেছেন আরিফুল হকও। এরপর মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনকে নিয়ে কিছুক্ষণ লড়াই করেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু দলীয় ১১০ রানের মাথায় আউট হয়ে যান তিনিও। দুর্ভাগ্যজনক রান আউট হওয়ার আগে তিনি করেন ৪১ রান। লেজের বাকি উইকেটগুলো নিয়মিত বিরতিতেই হারাতে থাকে বাংলাদেশ। ২১ বলে ২০ রান করে ফিরে যান সাইফ উদ্দিন। মেহেদি হাসান ফেরেন ব্যক্তিগত ১১ রানে। এরপর মোস্তাফিজুর রহমান (৮), আবু জায়েদ রাহী (২) আউট হয়ে গেলে ১৮.৪ ওভারেই ১৩৫ রান করে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। নাজমুল ইসলাম অপু অপরাজিত থাকেন ১ রানে।
এদিন টসে জিতে শ্রীলঙ্কাকে শুরুতে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান টাইগারদের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই বাংলাদেশের বোলারদের ওপর চড়াও হয় লঙ্কান ব্যাটসম্যানরা। দুই ওপেনার দানুশকা গুনাথিলাকা ও কুশল মেন্ডিসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ভালো শুরু পায় শ্রীলঙ্কা। গুনাথিলাকা ৩৭ বলে করেন ৪২ রান। অন্যদিকে মেন্ডিস ৪২ বল খেলে করেন ৭০ রান। সব শেষ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান সংগ্রহ করেছিল তারা। এ রান টপকাতে হলে এদিন নিজেদের ছাড়িয়ে যেতে গত টাইগারদের। কিন্তু তা হার হলো না শেষ পর্যন্ত। তিন ফরম্যাটেই শ্রীলঙ্কার কাছে ঘরের মাটিতে পরাজ নিয়েই সিরজ শেষ করল বাংলাদেশ।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ




আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

১৫ জুন, ২০১৮ ০১:০০








আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

১৫ জুন, ২০১৮ ০০:৪৬