খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ অক্টোবর ২০১৮ | ৮ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বই মেলায় বসন্তের ছোঁয়া 

নিজস্ব প্রতিবেদক  | প্রকাশিত ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ০০:৩৬:০০

বই মেলায় বসন্তের ছোঁয়া 

বসন্তের ছোঁয়া লেগেছে প্রাণের মেলায়। ঋতুরাজ বসন্তের আগমনী দিনে বসন্তের রঙে রঙিন হয়ে ওঠে গতকাল বইমেলা প্রাঙ্গণ। দর্শনার্থীর স্বতঃস্ফূর্ত আনন্দ-উল্লাসে ছিল উৎসব মুখর, সেজেছিল ভিন্ন রূপে। বইপ্রেমীরা নতুন আমেজে বই কিনেছে। বইপ্রেমীদের আড্ডা আর মেলামঞ্চে বসন্ত উপলক্ষে নানা আয়োজনের মাধ্যমে পয়লা ফাগুনকে স্বাগত জানানো হয়। 
মেলার যেদিকে চোখ যায়, কেবল হলুদ, লালসহ নানা রঙের পোশাকে সেজেছে দশনার্থীরা। সেই সাথে অনেকের হাতেই দেখা গেছে নতুন বই। নারীরা হলুদ শাড়ি, মাথায় ফুলের খোপা, যুবকরা হলুদ পাঞ্জাবিতে সেজেছিল। বিকেলের মধ্যে মেলায় মানুষের ঢল নামে। সব বয়সের মানুষই স্টলে বই পছন্দ এবং কেনায় ব্যস্ত ছিল।
বইমেলায় আগত কলেজ ছাত্র সবুজ ও ছাত্রী ভাবনা বলেন, পয়লা ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে আমরা বইমেলায় এসেছি। ভাল লাগছে মেলার বসন্তের আবহ। বই কিনেছি ও বন্ধুকে বই উপহার দিয়েছি। 
মেলা প্রাঙ্গনের বইয়ের স্টল বাক আবৃত্তি অনুশীলন চক্রের স্বত্বাধিকারী সুলতান মাহমুদ শ্রাবন বলেন, পয়লা ফাল্গুনকে ঘিরে বই মেলায় দর্শনার্থী বারলেও বই বিকিকিনি কম। 
গতকাল মঙ্গলবার ছিল একুশে বইমেলা, খুলনা’র ১৩তম দিন। বিকেলে আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘এবং আবৃত্তি’ র শিল্পীদের পরিবেশিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনের অনুষ্ঠানমালার সূচনা হয়। সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী, খুলনার আয়োজনে বইমেলার মঞ্চে ‘শিল্প-সংস্কৃতি ঋদ্ধ সৃজনশীল মানবিক বাংলাদেশ’ এই শিরোনামে বসন্ত বরণ উৎসব উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। মেলা প্রাঙ্গণে উপস্থিত হয়েছিলেন একুশে বইমেলা, খুলনার আহ্বায়ক ও খুলনার জেলা প্রশাসক আমিন উল আহসান, বইমেলার অর্থ ও স্টল বরাদ্দ উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এল এ) মোঃ মনিরুজ্জামান, সাহিত্য ও সংস্কৃতি উপ-কমিটির আহ্বায়ক এবং অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ নূর-ই-আলম। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৫৬









ব্রেকিং নিউজ





যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৫৬