খুলনা | মঙ্গলবার | ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৪ |

Shomoyer Khobor

বাগেরহাট মেরিন টেকনোলজি’র শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের দ্বিতীয় দিনেও উত্তেজনা

বাগেরহাট প্রতিনিধি | প্রকাশিত ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ০০:১০:০০

বাগেরহাট মেরিন টেকনোলজি’র শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের দ্বিতীয় দিনেও উত্তেজনা

বাগেরহাটের ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজির (আইএমটি) ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ সিরাজুল ইসলামের অপসারণের দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মত আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। ক্লাস বর্জন করে গতকাল মঙ্গলবারও শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে দফায় দফায় বিক্ষোভ করেন। দাবি আদায়ে তারা শ্রেণীকক্ষ ও অফিস কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়। প্রতিষ্ঠানের প্রধানের নানা অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে গত রবিবার রাত থেকে আন্দোলন করছেন শিক্ষর্থীরা। গত সোমবার বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে মানববন্ধন, বিক্ষোভ ও অধ্যক্ষের কুশপুত্তলিকা দাহ করে। গতকাল মঙ্গলবারও দিনভর তাদের বিক্ষোভে উত্তেজনা ছড়ায় ক্যাম্পাসে। সকাল থেকে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকে অবস্থান নিলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করতে পারেননি। দুপুরে পর পুলিশের সহায়তায় ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেন তিনি। 
শিক্ষার্থী খালিদ হাসান বাপ্পি বলেন, ‘আমরা বাধ্য হয়ে আজ আন্দোলনে নেমেছি। ওই অধ্যক্ষকে অপসারণ না করা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।’ প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে শিপ বিল্ডিং টেকনোলজি ও মেরিন টেকনোলজি বিভাগে ৮টি সেমিস্টারে চার শতাধিক শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত। শিক্ষক-কর্মচারী আছেন ৪৫ জন। 
নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাগেরহাট আইএমটি একজন শিক্ষক বলেন, এখানের বিষয়গুলো এখন দিবালোকের মত স্পষ্ট। দীর্ঘদিন ধরে চলা শিক্ষার্থীদের ক্ষোভের ফলে এই অবস্থা তৈরি হয়েছে। তারপারও আমারা শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে নিভৃত করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারা অধ্যক্ষ স্যারের অপসারণ ছাড়া ক্লাসে আসতে রাজি হয়নি। 
আইএমটির মেরিন ইন্সটেক্টর অভিষেক সরকার বলেন, সকালে আমরা ক্যাম্পাসে এসে দেখি একাডেমিক ভবনের প্রধান ফটকে শিক্ষার্থীরা তালা বন্ধ করে রেখেছে। আমরা তাদের অনেক বুঝিয়েও শান্ত করতে পারিনি।  
বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাতাব উদ্দিন বলেন, শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ফটকসহ শ্রেণীক্ষক ও অফিস তালাবদ্ধ করে রেখেছিল। আমরা গিয়ে অধ্যক্ষের রুমসহ বিভিন্ন কক্ষের তালা খুলিয়ে দিয়েছি। তবে শিক্ষার্থীরা তাকে মেনে নিচ্ছিল না। আমি তাদের অধ্যক্ষের সাথে বসার জন্য ডাকলেও তারা আগ্রহ দেখায়নি। তাদের অভ্যন্তরিন বিষয় তারাই সমাধান করবেন। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ