খুলনা | সোমবার | ২১ মে ২০১৮ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

‘মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পর টেন্ডার আহ্বান’

দৃশ্যমান হচ্ছে না খুলনা জেলা পরিষদের আধুনিক অডিটোরিয়াম নির্মাণ প্রকল্প

এস এম আমিনুল ইসলাম | প্রকাশিত ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ২২:৪৪:০০

দৃশ্যমান হচ্ছে না খুলনা জেলা পরিষদের আধুনিক অডিটোরিয়াম নির্মাণ প্রকল্প

মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন না মেলায় বিলম্বিত হচ্ছে নগরীর এক হাজার আসন বিশিষ্ট আধুনিকমানের অডিটোরিয়াম কাম মাল্টিপারপাস হল নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন। গত বছর সরকারি ১৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে হলটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয় খুলনা জেলা পরিষদ। সংস্থার কর্মকর্তারা বলছেন, এটি বাস্তবায়ন হলে বিভিন্ন ধরনের সভা-সেমিনারসহ নানা সামাজিক অনুষ্ঠানাদি উদ্যাপনের নতুন ক্ষেত্র তৈরি হবে। পাশাপাশি ভিআইপিরাও এখানে থাকতে পারবেন। ফলে পরিষদের আয়ও বাড়বে। 
জেলা পরিষদ সূত্রে জানা গেছে, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের জন্য ভেন্যু বা স্থান নিশ্চিতের জন্য গত বছর মার্চ মাসে নগরীর রূপসাস্থ স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর (এলজিইডি)’র রেস্ট হাউজ সংলগ্ন এলাকায় ৬০ শতক জমিতে ১ হাজার আসন বিশিষ্ট একটি আধুনিক অডিটোরিয়াম কাম মাল্টিপারপাস হল নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়। প্রথমে এটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয় ৪ কোটি টাকা। উদ্যোগটি বাস্তবায়নে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের জেলা পরিষদ অধিশাখা প্রাথমিকভাবে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়নে অনুমতি দেয়। মন্ত্রণালয়ের প্রাথমিক অনুমোদন স্বাপেক্ষে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য টাইপ প্ল্যান, ডিজাইন ও প্রাক্কলন অনুযায়ী একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ প্রকল্প তৈরি করা হয়। ওই প্রকল্প  তৈরি শেষে জেলা পরিষদ এটি স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণ করে। কিন্তু নকশা অনুযায়ী ভূমি সংকুলান না হওয়ায় প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যক্রম থেমে যায়। এরপর গত বছর নভেম্বর মাসে নগরীর ১নং কাস্টমসঘাট এলাকার করোনেশন কারিগরি বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে সংস্থার নিজস্ব জায়গায় ফের প্রকল্পটি বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জেলা পরিষদ নতুন আরেকটি প্রাক্কলন তৈরি করে স্বয়ংসম্পর্ণ প্রকল্প স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণ করে। চারতলা বিশিষ্ট ওই হলটিতে ১ হাজার আসনের অডিটোরিয়াম, সেমিনার কক্ষ, ভিআইপি গেস্ট হাউজ ও বাউন্ডারী ওয়াল ইত্যাদি নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। 
খুলনা জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, জমি সংক্রান্ত জটিলতায় প্রকল্প বাস্তবায়নে কিছুটা বিলম্ব হয়। তবে এখনও সে সমস্যা দূরীভূত হয়েছে। ১নং কাস্টমসঘাট এলাকার করোনেশন কারিগরি বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে সংস্থার নিজস্ব জায়গায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হবে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এখন মন্ত্রণালয় অনুমোদনসহ জেলা পরিষদ অধিশাখা অর্থ বরাদ্দ পাওয়া গেলে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পনের পর মূল ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে।
তিনি আরও বলেন, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের জন্য খুলনায় তেমন কোন ভেন্যু বা স্থান নেই। একমাত্র ভেন্যু জিয়া হল, তাও আজ পরিত্যক্ত। তাই  সময়ের চাহিদার কারণে এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে এটিই হবে খুলনাই একমাত্র বৃহৎ আয়তনের ভেন্যু।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ



যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

২১ মে, ২০১৮ ০০:৫৯











ব্রেকিং নিউজ



যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

২১ মে, ২০১৮ ০০:৫৯

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

২১ মে, ২০১৮ ০০:৫৯