খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ অক্টোবর ২০১৮ | ৮ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

নগরীতে পৃথক মানববন্ধনে বক্তারা

খালেদা জিয়াকে জেলে পাঠিয়ে যারা বিএনপি’র বিনাশ চেয়েছিল, আজ তারাই অস্তিত্ব সংকটে

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ২২:৩৩:০০

খালেদা জিয়াকে জেলে পাঠিয়ে যারা বিএনপি’র বিনাশ চেয়েছিল, আজ তারাই অস্তিত্ব সংকটে

মহানগর ও জেলা বিএনপি’র পৃথক মানববন্ধনে বক্তারা বলেছেন, মুক্ত খালেদা জিয়ার চাইতে কারাবন্দী খালেদা জিয়া অনেক বেশি শক্তিশালী। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে জেলে দিয়ে যারা বিএনপি’র বিনাশ চেয়েছিল, আজ সেই আওয়ামী লীগই নিজেদের অস্তিত্ব নিয়ে সংকটে পড়ছে। গণতন্ত্রের সংগ্রামের আপেসহীন নেত্রী খালেদা জিয়ার পক্ষে জনগণের সমর্থন বেড়েই চলেছে। 
খালেদা জিয়া যতোদিন কারাগারে থাকবেন, দলের নেতা-কর্মীরা ততোদিন শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে রাজপথে থাকবেন উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, চেয়ারপারসনের নির্দেশে মানববন্ধন, অবস্থান ও অনশন কর্মসূচির মতো শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করছি। এই অবস্থানকে দূর্বলতা মনে করলে সরকার বোকার স্বর্গে বাস করছে। বিএনপি’র শীর্ষ নেতাদের জেলে পাঠিয়ে, নির্বাচনে অযোগ্য করে আর একটি বাকশালী মার্কা নির্বাচনের আয়োজন করলে এমন পরিণতি সৃষ্টি করা হবে, যা সামাল দেয়া আ’লীগ ও পুলিশ বাহিনীর পক্ষে সম্ভব হবে না। খালেদা জিয়াকে মাইনাস করে দেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। 
গতকাল সোমবার কেন্দ্র ঘোষিত তিনদিনের কর্মসূচির প্রথমদিনে নগর ও জেলা শাখার পৃথক মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা এসব কথা বলেন। 
বক্তারা বলেন, সরকার দেশের স্বার্থ বিরোধী কাজ করেছ, দেশকে ভারতের বাজারে পরিণত করেছে, গণমাধ্যমের কন্ঠরোধ করেছে, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা হরণ করেছে, প্রধান বিচারপতিকে বন্দুকের মুখে দেশ ছাড়তে বাধ্য করেছে, ইসলামী মূল্যবোধকে পদদলিত করেছে। বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, সরকার আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে সাজানো পাতানো ভোট করতে চায়। সে চেষ্টা করা হলে পরিণতি ২০১৩, ২০১৪, ২০১৫ সালের চাইতেও ভয়াবহ হবে বলে হুশিয়ার দেয়া হয়। 
নগর বিএনপি : গতকাল দলীয় কার্যালয়ের সামনে দলটির উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১টায় শুরু হওয়া এ মানববন্ধন চলে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত। নির্ধারিত সময়ের আগে থেকেই নগরীর সকল থানা ও ওয়ার্ড থেকে নেতা-কর্মীরা মিছিল সহকারে মানববন্ধনস্থলে এসে হাজির হয়। রাস্তার দু’পাশে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শ্লোগান দেয়। নেতা-কর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতিতে মানববন্ধন সমাবেশে রূপ নেয়। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। 
মানববন্ধনে খুলনায় শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চলাকালে বিনা উস্কানিতে পুলিশের দফায় দফায় হামলা এবং দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মেহেদী হাসান দীপু, শামসুজ্জামান চঞ্চলসহ কারাগারে আটক সকল নেতা-কর্মীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করা হয়। একই সাথে খুলনায় দায়ের হওয়া পুলিশের মিথ্যা বানোয়াট মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের জোর দাবি জানানো হয়।    
বিএনপি’র নেতা আসাদুজ্জামান মুরাদের পরিচালনায় এ সময় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাবেক এমপি কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম, সাবেক এমপি মুজিবর রহমান, খানজাহান আলী থানা বিএনপি সভাপতি মীর কায়সেদ আলী, নগর বিএনপি নেতা জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, সিরাজুল ইসলাম, শফিকুল আলম তুহিন, মহিলা দল সভাপতি সৈয়দা রেহানা আক্তার, নগর যুবদল সভাপতি মাহবুব হাসান পিয়ারু, নগর স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি আজিজুল হাসান দুলু, নগর শ্রমিক দল সাধারণ সম্পাদক মুজিবর রহমান, নগর ছাত্রদল সভাপতি শরিফুল ইসলাম বাবু প্রমুখ। সভায় উপস্থিত ছিলেন ফখরুল আলম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মাহবুব কায়সার, শের আলম সান্টু, সাদিকুর রহমান সবুজ, আজিজা খানম এলিজা, শফিকুল ইসলাম হোসেন, একরামুল কবীর মিল্টন, একরামুল হক হেলাল,  কে এম হুমায়ুন কবীর, নাজমুল হুদা চৌধুরী সাগর, কামরান হাসান, শরিফুল ইসলাম বাবু, হেলাল আহমেদ সুমন, ওয়াহিদুর রহমান  প্রমুখ। কর্মসূচির শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন ওলামা দল নেতা মাওলানা আব্দুল গফ্ফার। 
জেলা বিএনপি : গতকাল সকাল ১০টায় জেলা বিএনপি’র উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। জেলার অর্ন্তগত ৯ উপজেলা এবং দুই পৌরসভা থেকে নেতা-কর্মীর মিছিল সহকারে মানববন্ধনস্থলে উপস্থিত হন। মানবন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপক ডাঃ গাজী আব্দুল হক। মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তৃতা করেন সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান, মুজিবর রহমান, খান জুলফিকার আলী জুলু, মনিরুজ্জামান মন্টু, এস এম মনিরুল হাসান বাপ্পী, শেখ আব্দুর রশিদ, চৌধুরী কওসার আলী, শরিফুল ইসলাম জোয়াদ্দার খোকন, এস এ রহমান বাবুল, এড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, আব্দুর রকিব মল্লিক, মোস্তফা উল বারী লাভলু, অধ্যাপক মনিরুল হক বাবুল, খান আলী মুনসুর, এড. মোমরেজুল ইসলাম, সাইফুর রহমান মিন্টু, কওসার আলী জমাদ্দার, কামরুজ্জামান টুকু, আশরাফুল আলম নান্নু, মেজবাউল আলম, আলী আসগার, শামসুল আলম পিন্টু, মোশারফ হোসেন মফিজ, এড. কে এম শহিদুল আলম, মোল্লা এনামুল কবীর, মুর্শিদুর রহমান লিটন, ওয়াহিদুজ্জামান রানা, খায়রুল ইসলাম খান জনি, মোল্লা সাইফুর রহমান, খন্দকার ফারুক হোসেন, নুরুল আমিন বাবুল, আবুল বাশার, মোফাজ্জল হোসেন মফু, মামমি কবীর, ইবাদুল হক রুবায়েদ, তৈয়েবুর রহমান, আতাউর রহমান রনু, উজ্জল কুমার সাহা প্রমুখ। 
নগর বিএনপি’র একাংশ : গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টায় মহানগর বিএনপি’র একাংশের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন নগর বিএনপি’র কোষাধ্যক্ষ এস এম আরিফুর রহমান মিঠু। মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন বিএনপি নেতা আবুল কালাম জিয়া, নিজামউর রহমান লালু, মোঃ বিপ্লবুর রহমান কুদ্দুস, কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান মনির, মোহাম্মাদ হোসেন, মোদাচ্ছের হোসেন, কাজী শফিকুল ইসলাম শফি, মোঃ সামছুর রহমান, কাজী আব্দুল লতিফ, আলী আক্কাস, শেখ জাকির হোসেন, এইচ এম ডালিম, মনিরুজ্জামান মনি, খোদাবক্স কালু কোরাইশী, মোঃ মিজানুর রশিদ মিজান, এস এম জসিম উদ্দিন, মোঃ সেলিম আহসান, আসাদুজ্জামান হারুন, মোঃ কাজী ইকরাম মিন্টু, উপস্থিত ছিলেন কাজী ফজলুল কবির টিটো,  গোলাম কিবরিয়া মেম্বার, এস এম মনির, আব্দুল মতিন বাচ্চু, রুহুল আমিন, ইউসুফ শিকদার, আজিজুর রহমান খান খোকন, এড. এস এম মুরাদ, আহসান উল্লাহ, বক্কার মোল্লা, ইয়াজুল ইসলাম এ্যাপোলো, আশরাফ চৌধুরী ব্লু, মশিউর রহমান খোকন, মোঃ জাহিদ হোসেন, মনির হোসেন, রেজাউল করিম স্বপন, বেল্লাল হোসেন, বারেক হাওলাদার, শহিদুল ইসলাম মৃধা, শেখ জামাল হোসেন, কাজী মিজানুর রহমান তারা, জাফর হাওলাদার, আব্দুস সালাম, হৃদয় হাসেম, মোঃ জাকির হোসেন, দেলোয়ার হোসেন নান্নু প্রমুখ।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৫৬









ব্রেকিং নিউজ





যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৫৬