খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২১ জুন ২০১৮ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor
খবর প্রতিবেদন

ক্যাসেট বিক্রেতা থেকে মূখ্যমন্ত্রী ‘চিনাম্মা’

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ০৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ১২:৩৬:০০

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের সদ্য প্রয়াত মূখ্যমন্ত্রী জয়রাম জয়ললিতা তথা ‘আম্মা’র উত্তরসূরি হিসেবে আসতে চলেছেন তাঁর বহুদিনের সঙ্গী ভি কে শশীকলা নটরাজন ওরফে ‘চিনাম্মা’ (ছোট মা)। স্থানীয় সময় গত রবিবার তামিলনাড়ুর বর্তমান ক্ষমতাসীন দল এআইএডিএমকের পক্ষে থেকে পরবর্তী মূখ্যমন্ত্রী হিসেবে শশীকলার নাম ঘোষণা করা হয়।
গত বছর ডিসেম্বরে প্রাক্তন মূখ্যমন্ত্রী জয়রাম জয়ললিতার মৃত্যুর পর থেকেই তাঁর স্থলাভিষিক্ত হিসেবে শশীকলার নাম শোনা যাচ্ছিল। আর সেই কানাঘুষাকেই সত্যি প্রমাণ করে গতকাল এআইএডিএমকের মুখপাত্র সি আর সারওয়ার্থী বলেন, ‘তিনিই (শশীকলা) তামিলনাড়ুর পরবর্তী মূখ্যমন্ত্রী। জনগণের সেবার জন্য আমরা আম্মার মতো শক্তিশালী নারী নেত্রী চাই।’
অবাক করার বিষয় হলো পুরো তামিলনাড়ুর শাসন ক্ষমতায় বসতে যাওয়া শশীকলা এক সময় ভিডিও ক্যাসেট বিক্রি করতেন। তামিলনাড়ুর প্রয়াত মূখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার সঙ্গে শশীকলার বন্ধুত্বটাও ছিল গভীর। অনেকের ধারণা এই বন্ধুত্বের টানেই রাজনীতির মাঠে নামেন শশীকলা। ১৯৮০ সালে উঠতি রাজনীতিক ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী জয়ললিতার সঙ্গে দেখা হয় শশীকলার। সে সময় ভিডিও ক্যাসেট বিক্রির দোকান ছিল তাঁর।
এর আগেও তামিল জনগণের প্রিয় ‘আম্মার’ দেখানো পথে এআইএডিএমকে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য শশীকলার উদ্দেশ্যে আবেদন জানিয়েছিলেন এআইএডিএমকের জ্যেষ্ঠ নেতারা। এআইএডিএমকে নেতা ও ভারতের লোকসভার ডেপুটি স্পিকার থামবিদুরাই সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, আম্মার পর সেই জায়গা নিতে পারেন একমাত্র চিনাম্মা।
থামবিদুরাই আরো বলেন, ‘জয়া আম্মার পর দলে চিনাম্মার নামই উঠে আসছে ওই জায়গায়। তাই তাঁকে পার্টির জেনারেল সেক্রেটারীর দায়িত্ব গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।’ থামবিদুরাই জানান, দল চায় নেতৃত্বে আসুন শশীকলা। এতে সম্মতি রয়েছে দলের সদস্য থেকে শুরু করে বিধায়ক, সংসদ সদস্যদেরও। এ ক্ষেত্রে দ্বিতীয় আর কারো নামই ভাবছেন না তাঁরা।
থামবিদুরাই বলেন, ‘এআইএডিএমকে মানুষের পার্টি। আর শশীকলা মানুষের নাড়ি খুব ভালোই বোঝেন।’
এছাড়া দলটির মুখপাত্র ও তামিলনাড়ুর স্পিকার সি পোন্নাইয়ান বলেন, ‘পুরো দলের চাওয়া ছিল এটিই যে, আম্মার পর চিনাম্মা আসুন। আম্মার মতো করে ক্ষমতার দায়িত্বভার সামলানোর ক্ষমতা আছে একমাত্র তাঁরই।’
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, এআইএডিএমকে দলের সাধারণ সম্পাদক পদে ছিলেন জয়ললিতা। আর ৫৪ বছর বয়সী শশীকলা নটরাজন এর আগে তামিলনাড়ুর ক্ষমতাসীন দলটির কোনো পদে ছিলেন না। দলে তাঁর অন্তর্ভুক্তি ও মূখ্যমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের জন্য নিয়মে সংশোধন আনতে হবে।
দলীয় সূত্রে প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে, প্রয়াত আম্মাকে স্থায়ীভাবে সাধারণ সম্পাদক পদে রেখে শশীকলার জন্য নতুন একটি পদ তৈরির প্রস্তাব এসেছে। সে ক্ষেত্রে এআইএডিএমকে দলে সম্মানিত ভাবে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ললিতার নাম রেখে দিয়ে কার্যনির্বাহী সাধারণ সম্পাদক কিংবা অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক জাতীয় পদের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে শশীকলাকে।
গত বছরের ৫ ডিসেম্বর হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে মৃত্যুবরণের আগ পর্যন্ত তামিলনাড়ুর দুই লাখ সন্তানের মা বলে পরিচিত জয়ললিতার জনপ্রিয়তা ছিল আকাশচুম্বী। তিনি ছিলেন অবিবাহিত।

 

 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





লখনৌয়ে হোটেলে আগুন, নিহত ৫

লখনৌয়ে হোটেলে আগুন, নিহত ৫

২০ জুন, ২০১৮ ০০:০১









ব্রেকিং নিউজ





এবার যশোরে ব্রাজিল বাড়ি 

এবার যশোরে ব্রাজিল বাড়ি 

২১ জুন, ২০১৮ ০১:০৯

বিশ্বকাপে আজকের খেলা 

বিশ্বকাপে আজকের খেলা 

২১ জুন, ২০১৮ ০১:১৩