খুলনা | সোমবার | ২১ মে ২০১৮ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বিশ্বের গণ মাধ্যমে খালেদা জিয়ার রায়

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ০৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ০০:১০:০০

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা ঘোষণার ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম তা গুরুত্বের সঙ্গে সামনে এনেছে। বিশ্বজুড়ে প্রধান প্রধান সংবাদপত্র, টেলিভিশন ও অন্যসব মিডিয়ার সংবাদ হয়েছে। পত্র-পত্রিকাগুলো তার মামলার পটভূমি তুলে ধরার পাশাপাশি মামলার রাজনৈতিক তাৎপর্য, আগামী জাতীয় নির্বাচনে এই রায়-পরবর্তী প্রভাব, সম্ভাব্য রাজনৈতিক অস্থিরতার আশঙ্কা প্রকাশসহ নানা মন্তব্যও জুড়ে দিয়েছে।
খালেদা জিয়ার সাজার এই খবরটি প্রতিবেশী দেশ ভারতের এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া, দ্য হিন্দুসহ জাতীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকাগুলিতে স্থান পেয়েছে। আবার ডন পত্রিকাসহ পাকিস্তানের পত্র-পত্রিকা ও টিভিতেও খবরটি প্রচারিত-প্রকাশিত হয়েছে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে।   উপমহাদেশের বাইরের সিঙ্গাপুর ও থাইল্যান্ডের পত্র-পত্রিকায় খবরটি স্থান পেয়েছে। সব মিলিয়ে গোটা দুনিয়ার মিডিয়া জুড়েই স্থান পায় খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডিত হওয়ার সংবাদটি।
যেসব সংবাদমাধ্যম খালেদার সাজাপ্রাপ্তির এই খবরটি দিয়েছে তাদের মধ্যে আছে বিবিসি, আল জাজিরা, দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস, এএফপি, এপি, কাতারভিত্তিক আল জাজিরা, পাকিস্তনের জিও টিভি, রয়টার্স, দ্য গার্ডিয়ান, এনডিটিভি, ডনসহ আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ মাধ্যম।
বিবিসির প্রতিবেদনে ঘোষিত সাজার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রায় ঘোষণার সময় খালেদা-সমর্থকদের ওপর টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ।
কাতারভিত্তিক আল জাজিরার খবরে এই মামলাটিকে ‘রাজনৈতিকভাবে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ’ আখ্যা দিয়েছে। রায় শোনার পর আদালতে উপস্থিত খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা হট্টগোল শুরু করেন। 
মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি তাদের শিরোনামে লিখেছে, ‘দুর্নীতির মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ৫ বছরের কারাদণ্ড’। 
ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি তাদের প্রতিবেদনের শিরোনামে লিখেছে, ‘দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়া দোষী সাব্যস্ত’। প্রতিবেদনে তার বিরুদ্ধে ঘোষিত সাজার প্রসঙ্গ উল্লেখ করা হয়েছে। 


 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ



যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

২১ মে, ২০১৮ ০০:৫৯

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

যে কারণে রোজা নষ্ট হয় 

২১ মে, ২০১৮ ০০:৫৯