খুলনা | সোমবার | ২২ অক্টোবর ২০১৮ | ৭ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শঙ্কায় নেতা-কর্মীরা

পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের আগেই খুুলনা জেলা ছাত্রলীগে দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে

আশরাফুল ইসলাম নূর | প্রকাশিত ২১ জানুয়ারী, ২০১৮ ০২:০০:০০

প্রায় ছয় মাসেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে পারেনি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এর মধ্যে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব প্রকাশ পেয়েছে সংগঠনটির। পাল্টা-পাল্টি বিবৃতি ও সংবাদ সম্মেলনে সহিংস কর্মসূচির ঘোষণা এসেছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটতে পারে বলে শঙ্কা সাধারণ নেতা-কর্মীর। প্রসঙ্গত, সর্বশেষ সম্মেলনের পর গেল বছরের ২৯ জুলাই মোঃ পারভেজ হাওলাদারকে সভাপতি ও মোঃ ইমরান হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য জেলা ছাত্রলীগের কমিটির অনুমোদন দেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।
দলীয় সূত্রমতে, শুরুতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে মতনৈক্য প্রকাশ না পেলেও দু’জন জেলা আ’লীগের শীর্ষ দু’নেতার অনুসারী, তা ছিল ‘ওপেন সিক্রেট’। কমিটি গঠনের কিছুদিন পর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ পারভেজ হাওলাদার সিঙ্গাপুরে দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মোস্তফা রাশিদী সুজা এমপি’র পাশে ছিলেন। এ কারণে জেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন বিলম্বিত হয়েছে বলে জানান নেতা-কর্মীরা। এর মধ্যে গত ১৮ জানুয়ারি বটিয়াঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক ৭ ইউনিয়নের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। পরদিন গত ১৯ জানুয়ারি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ পারভেজ হাওলাদার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে ওই কমিটিগুলো মেয়াদোত্তীর্ণ হয়নি দাবি করে তিনি উল্লেখ করে বলেন “কোন কারণ ছাড়াই বটিয়াঘাটার ৭ ইউনিয়নের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা গঠনতন্ত্র বিরোধী। এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাকে জানিয়েছেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য বিলুপ্ত করতে বলায় ওই কমিটিগুলো বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে, যা সম্পূর্ণ গঠণতন্ত্র বিরোধী। ওই ৭টি ইউনিয়নের কমিটিকে বৈধ ঘোষণা করে তাদের কার্যক্রম পরিচালনায় কোন বাধা নেই বলে দাবি করেন তিনি।”
অনুরূপ দাবিতে গতকাল শনিবার দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বটিয়াঘাটার ৭টি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী। সকলের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে সুরখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি শশাংক রায় বলেন, “গেল বছরের ২০ জুলাই বটিয়াঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক অরিন্দম গোলদার ও সদস্য সচিব মোঃ মশিউর রহমান ওই ৭ ইউনিয়নের কমিটি অনুমোদন দেন। এর মধ্যে পত্রিকায় বটিয়াঘাটার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটিগুলো বিলুপ্ত ঘোষণা করেন উপজেলা শাখার বর্তমান সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম রিপন ও সাধারণ সম্পাদক অতনু মন্ডল। তারা দু’জন কখনোই বটিয়াঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী ছিলেন না। বর্তমান সভাপতি ঢাকার একটি পোশাক কারখানায় চাকুরি করতেন। সাধারণ সম্পাদকের বাড়ি ডুমুরিয়ায়। তিনি বটিয়াঘাটা ইউনিয়ন আ’লীগের উর্ধ্বতন একজন নেতার বাড়ির কর্মচারী ছিলেন। চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা তিনি।” অবিলম্বে বটিয়াঘাটার সাতটি ইউনিয়নের কমিটি পুনর্বহাল না করলে দুর্বার আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন তারা। 
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বটিয়াঘাটা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি অনিমেশ মল্লিক, সাধারণ সম্পাদক শুভ্র দেব ঢালী, জলমার সভাপতি মনিরুল ইসলাম রিংকু, সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ মন্ডল, সুরখালীর সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়ার রিফাত, ভান্ডারকোটের্র সভাপতি মোঃ ইব্রাহীম শেখ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মফিজুল ইসলাম মোল্ল¬া, বালিয়াডাঙ্গার সভাপতি মোঃ শফিকুজ্জামান বুলু, সাধারন সম্পাদক মোঃ ইফতেখার শেখ, আমিরপুরের সভাপতি মোঃ আশিকুজ্জামান আশিক ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাজ খান প্রমুখ।
অপর দিকে, গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইমরান হোসেন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন বটিয়াঘাটার সাতটি ইউনিয়নের কমিটি বিলুপ্ত হয়েছে গঠনতন্ত্র অনুসরণ করে, সংগঠন গতিশীল করার স্বার্থে। ২০১২ সালের মেয়াদোত্তীর্ণ আহ্বায়ক কমিটি ‘ব্যাক ডেটে’ গত বছরের ২১ জুলাই বটিয়াঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের মেয়াদোত্তীর্ণ আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেয়, যা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জানতেন না। ঐক্যবদ্ধের আহ্বান জানিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিকে হাস্যকর বিবৃতি না দিতে অনুরোধ করেছেন তিনি।
উল্লে¬খ্য, ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গত ১৮ জানুয়ারি নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে মহানগর, জেলা ও কুয়েট ছাত্রলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা, সাবেক ছাত্রনেতা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বিশাল এ শো’ডাউনের দু’দিন না যেতেই জেলা ছাত্রলীগের বিভক্তিতে নেতা-কর্মীরা পড়েছেন দুশ্চিন্তায়। জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের পূর্বেই সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের মধ্যকার এ বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা তাদের।
 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ


নির্বাচনী ট্রেনে আওয়ামী লীগ

নির্বাচনী ট্রেনে আওয়ামী লীগ

০৭ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:৩০









খুলনা-৪ আসনে নৌকার মাঝি কে?

খুলনা-৪ আসনে নৌকার মাঝি কে?

০১ অগাস্ট, ২০১৮ ০২:৩০



ব্রেকিং নিউজ


সাড়ে ৫শ’ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৩

সাড়ে ৫শ’ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৩

২২ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:২০