খুলনা | বৃহস্পতিবার | ১৯ জুলাই ২০১৮ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বিক্ষোভ ও ভাঙচুর : দু’কেন্দ্রে নতুন তারিখ

আসন স্বল্পতায় ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষা দিতে পারেনি সাড়ে পাঁচ হাজার চাকুরিপ্রার্থী!

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৩ জানুয়ারী, ২০১৮ ০০:১০:০০

রাষ্ট্রায়ত্ত আট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় ঢাকার দু’টি  কেন্দ্রের সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি চাকুরিপ্রার্থী আসন স্বল্পতার কারণে পরীক্ষা দিতে না পারায় গণ্ডগোলের পর তাদের জন্য পরীক্ষার নতুন তারিখ ঠিক করেছে কর্তৃপক্ষ। ব্যাংকার্স রিক্রুটমেন্ট কমিটির সদস্য সচিব বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক মোঃ মোশাররফ হোসেন খান বলেন, মিরপুর বাংলা কলেজ কেন্দ্রে চার হাজার এবং মিরপুর শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে ১৬০০ চাকুরিপ্রত্যাশীর পরীক্ষা দিতে পারেননি।
উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ব্যাংকার্স রিক্রুটমেন্ট কমিটির জরুরী  বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ২০ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা একই কেন্দ্রে তাদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। এই সিদ্ধান্ত অন্য কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কোনো প্রভাব ফেলবে না।” ব্যবস্থাপনার ত্র“টিতে আসন সঙ্কটের কারণে এ জটিতার সৃষ্টি হয় জানিয়ে তিনি বলেন, “২০ তারিখ আমি নিজে উপস্থিত থেকে সব দিক তদারকি করব।”  
রাষ্ট্রায়ত্ত আট ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও ক্যাশ অফিসার পদে নিয়োগের এই সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগকে।
এক রিট আবেদনে এ পরীক্ষা হওয়া নিয়ে সংশয় তৈরি হলেও শেষ মুহূর্তে সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালতের আদেশে এই নিয়োগ পরীক্ষার পথ তৈরি হয় বৃহস্পতিবার। আগের ঘোষণা অনুযায়ীই শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত পরীক্ষা চলে। এক ঘণ্টায় ১০০ নম্বরের এই এমসিকিউ পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে আটটি ব্যাংকে মোট ১৬৬৩টি শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে। বিকালে পরীক্ষা চলার মধ্যেই মিরপুরে দুই কলেজে ঝামেলা হওয়ার খবর আসে। বসার ব্যবস্থা নিয়ে অসন্তোষ জানিয়ে পরীক্ষা না দিয়েই বেরিয়ে যান চাকুরিপ্রত্যাশিরা। শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রের বাইরে বিক্ষোভ ও ভাঙচুরেরও খবর পাওয়া যায়।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান জানান, এই নিয়োগ পরীক্ষায় তার বোনের সিট পরেছিল মিরপুর শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে। বোনকে নিয়ে তিনি নির্ধারিত সময়ের আগেই কেন্দ্রে পৌঁছে ছিলেন। কিন্তু গণ্ডগোলের মধ্যে ওই কেন্দ্রে আর পরীক্ষাই হয়নি।  “এক বেঞ্চে ৮-১০ জন বসিয়েছে, এতে সবাই ক্ষুব্ধ হয়ে বেরিয়ে আসে। অনেকে ওএমআর শিট নিয়েই ফিরে গেছে। এই কেন্দ্রের কেউই পরীক্ষা দিতে পারেনি।” পরীক্ষায় অংশ নিতে না পেরে প্রার্থীরা ওই কলেজের সামনের সড়কে বিক্ষোভ করেন বলে জানান আসাদুজ্জামান।
শাহ আলী থানার ওসি মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, “জায়গা না হওয়ায় কেন্দ্রের ভেতরে ঝামেলা হয়েছে বলে আমরা শুনেছি।” উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সাড়ে পাঁচ হাজার পরীক্ষার্থীর কী হবে-সেই সিদ্ধান্ত নিতে জরুরী বৈঠকে বসে ব্যাংকার্স রিক্রুটমেন্ট কমিটি। পরে দুই কেন্দ্রে পরীক্ষার নতুন তারিখ ঠিক করার কথা জানান মোশাররফ হোসেন খান।  
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ


আইসিসির রুলিংচায় বাংলাদেশ

আইসিসির রুলিংচায় বাংলাদেশ

১৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:১০








বামদের নতুন জোট

বামদের নতুন জোট

১৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:১০




ব্রেকিং নিউজ