খুলনা | সোমবার | ২০ অগাস্ট ২০১৮ | ৫ ভাদ্র ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

যশোরে সর্বনিম্ন ৬, খুলনায় ৯ ডিগ্রি 

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এখন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১২ জানুয়ারী, ২০১৮ ০১:০৬:০০

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এখন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর খুলনায় ৯ দশমিক ৩ ডিগ্রি, সাতক্ষীরায় ৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি, বাগেরহাটের মংলায় ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি ও চুয়াডাঙ্গায় ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত বুধবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল চুয়াডাঙ্গায় ৫ দশমিক ৫ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে গত ৫ জানুয়ারি দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও ছিল যশোরে; ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
সূত্র জানান, গত কয়েক দিন ধরেই যশোরে তাপমাত্রা ৫ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে। শীতে কাবু খুলনা অঞ্চলের সাধারণ মানুষ জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বাইরে বের হচ্ছেন না। রাস্তাঘাটে মানুষজন খুব বেশি দেখা যাচ্ছে না। শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচতে রাস্তায় বা বাড়ির আঙিনায় আগুন জ্বেলে ছোট-বড় সবার জড়ো হওয়ার দৃশ্য চোখে পড়ছে। গ্রামাঞ্চলে গরু-ছাগলকে উলের কাপড় কিংবা মোটা বস্তা দিয়ে ঢেকে ঠাণ্ডা নিবারণের প্রচেষ্টা চলছে। শীতের কারণে ঠাণ্ডাজনিত রোগ-বালাই বেশি হচ্ছে।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় শিশু-বৃদ্ধ সবার রোটা ভাইরাসজনিত রোগ, ডায়রিয়া, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট একটু বেশি হচ্ছে। এই সময়ে সকলকেই সতর্ক থাকতে হবে। বিশেষ করে গরম কাপড় ব্যবহার করতে হবে। আর পানি যদি পারা যায় একটু গরম করে খাওয়া দরকার। শীতে ফলমূল, শাকসবজি বেশি করে খাওয়ার পরামর্শ চিকিৎসকদের।
খুলনা আঞ্চলিক আবহাওয়া অধিদপ্তরের ইনচার্জ মোঃ আমিরুল আজাদ জানান, খুলনায় তাপমাত্রা একটু বাড়লেও ঠান্ডা বায়ু প্রবাহের ফলে শীত বেশি অনুভূত হচ্ছে। চলতি মাসের দ্বিতীয়ার্ধে আরেকটি শৈত্য প্রবাহ আসতে পারে। তবে কবে নাগাদ শৈত্য প্রবাহ হবে, তাপমাত্রা কত ডিগ্রি পর্যন্ত নামবে এগুলো ২ থেকে তিনদিন আগে ধারণা দেয়া যেতে পারে। এত আগে বলা যায় না।


 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ












পুলিশ যখন শ্রমিক

পুলিশ যখন শ্রমিক

২০ অগাস্ট, ২০১৮ ০১:০২


ব্রেকিং নিউজ












পুলিশ যখন শ্রমিক

পুলিশ যখন শ্রমিক

২০ অগাস্ট, ২০১৮ ০১:০২