খুলনা | সোমবার | ১৮ জুন ২০১৮ | ৪ আষাঢ় ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির চার পদ শূন্য, সম্ভাব্য প্রার্থী ৬ জন

বিশেষ প্রতিনিধি | প্রকাশিত ১৭ নভেম্বর, ২০১৭ ০১:২৭:০০

পনেরো মাসেও স্থায়ী কমিটির দু’টি শূন্য পদে কারোর নাম ঘোষণা করেনি বিএনপি। আ স ম হান্নান শাহ ও এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে ফাঁকা হয়েছে আরও দু’টি পদ। সব মিলিয়ে এখন চারটি পদই শূন্য রয়েছে।
এক বছরেরও বেশি সময় আগে হান্নান শাহ মারা গেছেন। অন্য দিকে চলতি মাসেই মারা যান আরেক প্রবীণ নেতা এম কে আনোয়ার। এর আগে গত বছরের ৬ আগস্ট ১৯ সদস্য বিশিষ্ট দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির দুইটি পদ খালি রেখে ১৭ সদস্যের স্থায়ী কমিটিসহ বিএনপি’র পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। আগের কমিটি থেকে সারওয়ারী রহমান ও শামসুল ইসলাম বয়সজনিত কারনে বাদ পড়েন। গত বছরের ১৯ মার্চ দলের জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।
স্থায়ী কমিটির ১৭ সদস্য হলেন, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া (পদাধিকার বলে), সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান (পদাধিকার বলে), খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমির উদ্দিন সরকার, তরিকুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান, আ স ম হান্নান শাহ, এম কে আনোয়ার, রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর (পদাধিকার বলে)। আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সালাউদ্দিন আহমেদ গেল বছরে ঘোষিত কমিটিতে নতুন করে স্থান পেয়েছেন। সালাউদ্দিন আহমেদ বর্তমানে ভারতের কারাগারে অবস্থান করছেন।
জানা গেছে, দীর্ঘদিনেও স্থায়ী কমিটির শূন্যপদ পূরণ না হওয়ায় পদ প্রত্যাশী নেতা ও তাদের সমর্থকদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। অনেকে বিভিন্ন ভাবে ক্ষোভও প্রকাশ করছেন। তবে প্রকাশ্যে কেউ এ নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ। বিএনপি’র গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলের শূন্য পদগুলো পূরণের এখতিয়ার দলীয় প্রধানের। তিনি যখন চাইবেন তখনই নিয়োগ দেবেন।
নানা সময়ে চেয়ারপারসন দ্রুত শূন্যপদ পূরণ করবেন বিএনপি’র শীর্ষ নেতারা এমনটা বললেও সহসা এ নিয়ে আর তেমন আগ্রহীরাও আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। তবে যাদের নিয়ে গুঞ্জন ছিল দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরামে আসার ব্যাপারে তাদের বেশ কয়েকজন হতাশ হয়ে অনেকটা নিষ্ক্রিয় হয়ে গেছেন।
প্রাপ্ত সূত্রমতে, লন্ডন থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশে ফিরে আসার পরে এসব ফাঁকা পদ এখন পূরণ হবে এমন আলোচনা চলছে। আশাবাদী হয়ে উঠছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। শূন্য চার পদের বিপরীতে এখন অন্তত ছয়জন সক্রিয় প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। তারা হলেন, খন্দকার মাহবুব হোসেন, আবদুল্লাহ আল নোমান, হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, মোহাম্মাদ শাহজাহান,  সেলিমা রহমান এবং শামসুজ্জামান দুদু। এর বাইরেও সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী, ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন এবং সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার নাম শোনা যাচ্ছে। তবে কমিটি ঘোষণার সময়ে স্থায়ী কমিটিতে জায়গা না পাওয়ায় অনেকটা হতাশ হয়েই রাজনীতি থেকেই ঘোষণা দিয়ে স্বেচ্ছায় অবসরে গিয়েছেন তিনি। গত ২৩ মার্চ রাজনীতিতে এক সভায় এমন ঘোষণা দেয়ার পর থেকে আর তাকে দলে সক্রিয় দেখা যায়নি, অন্য দিকে, মামলায় কারাদণ্ড হবার আগে থেকেই সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী হয়ে আছেন। খুব শিগগিরই তার দেশে ফিরে আসার সম্ভাবনা কম।
বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ শাজাহান এই বিষয়ে এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘চেয়ারপারসন দীর্ঘদিন লন্ডনে অবস্থান করে ফিরেছেন। সেখানে অবস্থানরত দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে দলের নানান বিষয়ে কথা হয়েছে। এ বিষয়েও কথা হয়েছে। আশা করি খুব শিগগিরই ম্যাডাম সমাধান দেবেন। তিনি নিজে প্রার্থী কিনা এই বিষয়ে জিয়া পরিবারের ঘনিষ্ঠভাজন এই নেতা জানান, একজন কর্মী হিসেবে কাজ করছি। দল যখন যেখানে দায়িত্ব দেয়, সেখানেই দায়িত্ব পালন করে যাব। অন্য দিকে, শামসুজ্জামান দুদুর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি এই বিষয়ে কোনও কথা বলতে অনীহা প্রকাশ করেন।

 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ




আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

১৫ জুন, ২০১৮ ০১:০০








আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

১৫ জুন, ২০১৮ ০০:৪৬