খুলনা | শনিবার | ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

রাজনীতিবিদদের শেষ শ্রদ্ধা : আজ কুমিল্লায় দাফন

বিএনপি নেতা এম কে আনোয়ার আর নেই

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ২৫ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:১০:০০

বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ার মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন-আমরা তো আল্লাহর  এবং আমরা আল্লাহর কাছেই ফিরে যাব)। গত সোমবার রাত সোয়া ১টার পর রাজধানীর নিউ এলিফ্যান্ট রোডের নিজ বাসায় প্রবীণ এ রাজনীতিকের মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।
এদিকে বিএনপি’র নেতা এম কে আনোয়ারের তিনটি নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় কাঁটাবন মসজিদে প্রথম, দুপুর ১২টায় নয়া পল্টনে বিএনপি’র কার্যালয়ের সামনের সড়কে দ্বিতীয় ও দুপুর ১টায় জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা ছাড়াও সরকার দলীয় রাজনীতিবিদসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ অংশ নেন।
এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে গতকাল মঙ্গলবার সকালেই বিএনপি কার্যালয়ে নেমে আসে শোকের ছায়া। কার্যালয়ের নিচতলায় কোরআন তেলাওয়াত করা হয়। আগত নেতা-কর্মীদের সবাই কালো ব্যাচ ধারণ করেন। সকাল ১০টার আগেই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চলে আসেন নয়া পল্টনে। এর আগে তিনি এলিফ্যান্ট রোডে সদ্য প্রয়াত এম কে আনোয়ারের বাসায় গিয়ে শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সান্ত্বনা দেন।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় কাঁটাবন মসজিদে প্রথম জানাজার পর এম কে আনোয়ারের মরদেহ বিএনপি কার্যালয়ে পৌঁছায় দুপুর ১২টার দিকে। এ সময় বিএনপি মহাসচিবসহ স্থায়ী কমিটির সদস্যরা দলীয় পতাকা দিয়ে কফিন ঢেকে দেন। তার দ্বিতীয় দফা জানাজা শেষে কফিনে ফুল দিয়ে নিরবে দাঁড়িয়ে শ্রদ্ধা জানান নেতা-কর্মীরা।
জানাজার আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘এই সরকারের কারানির্যাতনসহ কোনও ধরনের নিপীড়নেও এম কে আনোয়ার কখনও পিছু হটেননি। তিনি গণতন্ত্রের যে আদর্শে বিশ্বাস করতেন, সেই আদর্শকে সমুন্নত রাখার জন্যে সবসময় সব ধরনের ত্যাগ স্বীকার করেছেন। তিনি সামনে থেকে জনগনকে নেতৃত্ব দিয়ে গেছেন।’
নয়া পল্টনের জানাজায় অন্যান্যের মধ্যে আরও অংশ নেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, শাহজাহান ওমর, খন্দকার মাহবুব হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, জয়নাল আবেদীন, আহমেদ আজম খান, আবদুল হালিম, আমানউল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, আবদুল কাইয়ুম, শাহজাদা মিয়া; প্রয়াত নেতার বড় ছেলে মাহমুদ আনোয়ারসহ দলে দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। এম কে আনোয়ারের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর সময় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ও উপস্থিত ছিলেন।
বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ের সামনে দ্বিতীয় জানাজা শেষে এম কে আনোয়ারের মরদেহ নেওয়া জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায়। সেখানে তার তৃতীয় জানাজায় অংশ নেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সংসদের প্রধান হুইপ আ স ম ফিরোজ, বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আবদুল মান্নান, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীসহ সাংসদের কর্মকর্তারা সেখানে জানাজায় অংশ নেন।
জানাজা শেষে এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে শোক জানান অর্থমন্ত্রী ও বাণিজ্যমন্ত্রী। তারা বলেন এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে দেশ একজন সৎ রাজনীতিবিদকে হারিয়েছে।
এদিকে দলের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার জানান, এম কে আনোয়ারের জানাজার পর মরদেহ রাখা হবে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে। আজ বুধবার কুমিল্লার তিতাস এলাকায় বাদ জোহর চতুর্থ জানাজা হবে। এরপর হোমনায় বাদ আসর জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।  
শোক : সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন দলের চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তারা শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
জীবনী : এম কে আনোয়ারের পুরো নাম মোহাম্মদ খোরশেদ আনোয়ার। তিনি ১৯৩৩ সালের ১ জানুয়ারি খুলনায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন উচ্চ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। সরকারি চাকুরি থেকে অবসর নেওয়ার পর রাজনীতিতে যুক্ত হন। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে তিনি পাঁচবার জাতীয় সংসদ সদস্য এবং দুইবার মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের এ প্রভাবশালী মন্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন।
জেলা বিএনপি : সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ, শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন খুলনা জেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন জেলা সভাপতি এড. এস এম শফিকুল আলম মনা, সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান, ডাঃ গাজী আব্দুল হক, গাজী তফসির আহমেদ, খান জুলফিকার আলী জুলু, মনিরুজ্জামান মন্টু, এস এ রহমান বাবুল, খান আলী মুনসুর, চৌধুরী কওসার আলী, এড. মোল্ল মাসুম রশিদ, এড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, এস এম মনিরুল হাসান বাপ্পী, আবু হোসেন বাবু, জি এম কামরুজ্জামান টুকু, কে এম আশরাফুল আলম নান্নু, মোল্লা মোশারফ হোসেন মফিজ, মোজাফ্ফর হোসেন, নুরুল আমিন বাবুল, আলী আসগর ও মুর্শিদুর রহমান লিটন প্রমুখ।

 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

আমজাদ হোসেন আর নেই

আমজাদ হোসেন আর নেই

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:৩১

বীরপ্রতীক তারামন  বিবি আর নেই

বীরপ্রতীক তারামন  বিবি আর নেই

০২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:০০







কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই

কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই

২৫ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০৮

মির্জা ফখরুলের মায়ের ইন্তেকাল

মির্জা ফখরুলের মায়ের ইন্তেকাল

১৩ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০৮




ব্রেকিং নিউজ