খুলনা | বৃহস্পতিবার | ১৯ অক্টোবর ২০১৭ | ৩ কার্তিক ১৪২৪ |

Shomoyer Khobor

কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই সহিংসতা বন্ধ করতে হবে

মিয়ানমারের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা যুক্তরাজ্য বাতিল করেছে

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:১০:০০

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় একটি স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে যে বার্মা (মিয়ানমার) কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই সহিংসতা বন্ধ করতে হবে। গত বুধবার ব্রিটিশ সংসদ হাউস অব কমন্সে এক প্রশ্নের জবাবে থেরেসা মে একথা জানান।
ব্রিটিশ কনজারভেটিভ পার্টির কলচেস্টারের এমপি উইল কুইন্স-এর প্রশ্ন করেছিলেন, কোন ধরনের চাপ রোহিঙ্গাদের নিপীড়ন বন্ধ ও তাদের নিজ ভূমিতে ফিরে আসার জন্য মিয়ানমার সরকারকে বাধ্য করতে পারে।
এই প্রশ্নের জবাবে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের ক্ষেত্রে যা ঘটছে তাতে আমরা গভীর উদ্বিগ্ন। আমরা জানি বাংলাদেশে ৫ লাখের বেশি শরণার্থী রয়েছে। এই পরিস্থিতি বড় ধরনের মানবিক সংকট।
রোহিঙ্গাদের সহযোগিতার কথা তুলে ধরে থেরেসা মে বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক উন্নয়ন ও ত্রাণ সংস্থার মাধ্যমে সহযোগিতা প্রদান করছি। আমরা বার্মায় রেডক্রসকে অর্থ দিয়েছি। বাংলাদেশে যারা আশ্রয় নিয়েছে তাদের দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা করছি।
রোহিঙ্গাদের নিপীড়ন বন্ধে যুক্তরাজ্যের পদক্ষেপ তুলে ধরে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আমরা বিষয়টি তিনবার উত্থাপন করেছি। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় একটি স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে যে বার্মা কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই সহিংসতা বন্ধ, শরণার্থীদের নিরাপদে ফিরে আসার সুযোগ দিতে এবং ত্রাণকর্মীদের পূর্ণাঙ্গ যাতায়াতের অনুমোদন দিতে হবে।
রোহিঙ্গা সংকটে উদ্বেগের কারণে মিয়ানমারের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা যুক্তরাজ্য বাতিল করেছে বলেও উল্লেখ করেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।
ব্রিটিশ এমপি কুইন্স সম্প্রতি বাংলাদেশে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন। রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতিকে তিনি মানবিকতার বিপর্যয় হিসেবে উল্লেখ করেছেন। রোহিঙ্গাদের জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের পদক্ষেপের প্রশংসা করেন তিনি।

 

 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ