খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ অক্টোবর ২০১৮ | ৮ কার্তিক ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

ঈদে গরুর মাংসের ৭ পদ

আলফা আরশি মিম | প্রকাশিত ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:১৮:০০

ঈদে গরুর মাংসের ৭ পদ

ভোজন রসিকদের জন্য কোরবানীর ঈদ মানেই ভুরি ভোজের মহোৎসব। ঈদ উপলক্ষে বানানো নানা পদের বাহারি খাবার দাবার দেখে অনেকেই লোভ সামলাতে পারেন না। কিন্তু আপনি যতই রসনা বিলাসী হোন না কেন, খাবার খেতে হবে পরিমিত। তবে রান্নাটাও হওয়া চাই যুৎসই। সময়ের খবররের পাঠকদের জন্য আমাদরে আজকের আয়োজন গরুর মাংসের আটটি সুস্বাদু রেসিপি।
ঈদ রেসিপিতে যেখানে আছেন সবাইকে ঈদ মোবারাক। ঈদের আনন্দের সাথে সারা দিন তো নানা রকম খাওয়া দাওয়া হবেই। কুরবানীর ঈদের খাওয়া মানেই নানান পদের গরুর মাংস রান্না। সময়ের খবরের পাঠকদের জন্য বিথি আক্তার এর স্পেশাল (বিভিন্ন আইটেমের গরুর মাংশের রেসিপি)।
অনেকেই সুধু রেসিপি না জেনে অথবা সময় স্বল্পতা আর অতিরিক্ত ঝুট ঝামেলা এড়িয়ে চলার জন্য নানান পদের মাংস রান্না করতে চায় না। ফলে অনেক অনেক মাংস সুধু সুধু দুই-এক পদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে। আর এতে মাংস খাওয়ার মধ্যে একঘেয়েমি চলে আসে। ফলে মাংস খেতে ভালো লাগে না। আবার অনেকে রান্না করতে চাইলেও সুধু রেসিপি না জানার কারণে মজাদার মাংস রান্না থেকে বিরত থাকে ফলে পরিবারের সবাই মজাদার গরুর মাংস খাওয়া থেকে বঞ্চিত থাকে। তাই আজকে আপনাদের জানিয়ে দিব অত্তান্ত সহজ কিছু গরুর মাংস রান্নার রেসিপি যাতে খুব সহজেই পরিবারের সবার জন্য তৈরি করতে পারেন মজার মজার মাংসের আইটেম। গরুর মাংস রান্না করতে নানা রকম মসলার প্রয়োজন। আর এই মসলার সঠিক ব্যবহারই পারে আপনার রান্নাকে মজাদের করে তুলতে।
১. গরুর মাংসের শাহী রেজালা : কোরবানীর ঈদে গরুর মাংসের শাহী রেজালা ছাড়া করল্পনাও করা যায় না। অত্যন্ত সহজ এবং সবার প্রিয় এই রেসিপিটি সবার খুব পরিচিত। তবে চলুন দেখি কিভাবে গরুর মাগসের রেজালা তৈরি করতে পারি।
প্রয়োজনীয় উপকরণ : ১ কেজি গরুর মাংস, ২. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, ৩. আদা বাটা, ৪. রসুন বাটা, ৫. হলুদ জিরা, ৬. ধনিয়া, ৭. লবণ, ৮. কেওড়া জল, ৯. কিশমিশ, ১০. আলু বুখারা, ১১. টক দই, ১২. বাদাম বাটা, ১৩. চিনি, ১৪. কাঁচা মরিচ বাটা বা পেস্ট, ১৫. জয়ফল/জয়ত্রী/ পুস্তদানা, ১৬. গরম মসলা (এলাচি/ দারুচিনি), ১৭. তেজপাতা তেল।
প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ভালো করে ধুয়ে নিন এবার সব উপকরণ পরিমাণ মত নিয়ে দই আর অল্প পানি দিয়ে এক সাথে মিশিয়ে ঘন্টা খানেক মেরিনেট করে রেখে দিন। এরপর মাংসে তেল, কাঁচামরিচ পেস্ট, পেঁয়াজ, আদা, রসুন, হলুদ, জিরা, ধনিয়া, লবণ, বাদাম বাটা, চিনি, জয়ফল, জয়ত্রী, পুস্তদানা বাটা, তেজপাতা, গরম মসলা দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মেশানোর হয়ে গেলে মাংসের মিশ্রনটি চুলায় বসিয়ে দিন। অল্প আঁচে গরম হতে থাকবে এবং মাংস সিদ্ধ হচ্ছে কিনা কিছুক্ষণ পরে দেখে নিন। মাংস সেদ্ধ হয়ে আসলে কেওড়া জল, কিশমিশ ও আলুবোখারা দিয়ে দিন। এরপর ঢাকনা দিয়ে হালকা আঁচে আরও কিছু সময় জ্বাল দিন। তারপর লবন, ঝাল হয়েছে কিনা দেখে নিন, বাগার দিয়ে কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন। অল্প কিছু সময়ের মধ্যেই হয়ে যাবে মজাদার গরুর মাংসের রেজালা। মাংসের রেজালা  পোলাও, ভাত অথবা রুটির সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন।
২. গরুর মেজবানি মাংস : চট্রগ্রাম এর ঐতিহ্যবাহী গরুর মেজবান হলেও সারা দেশের মানুষের প্রথম পছন্দ গরুর মাংসের মেজাবান। তাই তো সারা বছর সবাই কম বেশি এই মজাদার রান্নাটা করে থাকে। আর কোরবানির ঈদ হলে তো কথায় নায়। তবে চলুন দেখি ঐতিহ্যবাহী এই খাবার রান্নার প্রণালি।
প্রয়োজনীয় উপকরণ : ১. গরুর মাংস ২ কেজি, ২. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, ৩. রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, ৪. হলুদ ও লাল মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, ৫. ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, ৬. সরিষার তেল ১ কাপ, ৭. মাংসের মসলা ১ চা চামচ, ৮. টক দই ১ কাপ, ৯. কাঁচামরিচ ১০/১২টি, ১০. গোলমরিচ ১ চা চামচ, ১১. দারচিনি ও এলাচ ৫/৬টি, ১২. জয়ফল ও জয়ত্রী আধা চা চামচ, ১৩. মেথি গুঁড়া ১ চা চামচ, ১৪. লবণ স্বাদমতো।
মেজবান মাংস রান্নার জন্য দোকানে লাল মরিচের গুঁড়া পাওয়া যায় যেটা খেতে খুব একটা ঝাল না কিন্তু মাংসের লালা রং করার জন্য এই ঝালের গুঁড়া ব্যবহার করা হয়।
প্রস্তুত প্রণালী: গরুর মাংস ধুয়ে নিয়ে একটি চালুনি পাত্রে রেখে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার একটি পাত্রে মাংস, তেল, টক দই, হলুদ, মরিচ, আদা, রসুন, পেঁয়াজ, লবণসহ সব মসলা নিয়ে ঘন্টা খানিক মেরিনেট করে রাখুন। অর্ধেক পেঁয়াজ তেলে ভেজে বেরেস্তা করে নিন। চুলায় হাঁড়ি বসিয়ে মেরিনেট করা মাংস কষিয়ে নিন। হাঁড়িতে ২ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ কষাতে হবে। মাংস থেকে পানি ঝরে গেলে মৃদু আঁচে মাংস সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত জ্বাল দিন। মাংসের পানি শুকিয়ে গেলে কাঁচামরিচ, ধনে, জিরা গুঁড়া দিয়ে মৃদু আঁচে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে তারপর পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন সুস্বাদু গরুর মেজবানি মাংস।
৩. মাংসের কালা ভুনা :
গরুর মাংসের কালা ভুনা রান্নার কথা না বললেই নয়, এটা যদিও চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খাবার কিন্তু দারা দেশের মানুষই সমান ভাবে এই খাবারটি পছন্দ করে। ঢাকার বিভিন্ন হোটেলে এই কালা ভুনা পাওয়া যায়। বিভিন্ন অনুষ্ঠান এমনকি ঘরোয়া আয়জনেও গরুর কালাভুনা রান্না করা হয়। কোরবানীর সময় কালা ভুনা ছাড়া খাবার টেবিল কল্পনাই করা যায় না।
প্রয়োজনীয় উপকরণ : ১. ২ কেজি হাড় ছাড়া গরুর মাংস, ২. ১/২ চামচ বা মরিচ গুড়া, ৩. ১ চামচ হলুদ গুঁড়া ৪. ১/২ চামচ জিরা গুঁড়া, ৫. ১/২ চামচ ধনিয়া গুঁড়া, ৬. ১ চাচম পেঁয়াজ বাটা, ৭. ২ চামচ রসুন বাটা, ৮. ১/২ চামচ আদা বাটা, ৯. সামান্য গরম মশলা (দারুচিনি, এলাচি) ১০. ১/২ কাপ পেঁয়াজ কুঁচি, ১১. কয়েকটা কাঁচা মরিচ, ১২. পরিমান মত লবন, ১৪ . সরিষার তেল।
প্রস্তুত প্রণালী:  গরুর মাংস ধুয়ে নিয়ে একটি চালুনি পাত্রে রেখে পানি ঝরিয়ে নিন। তারপর লবন, তেল ও বাকি সব মশলা দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিতে হবে (পেঁয়াজ কুঁচি এবং কাঁচা মরিচ বাদে)। মাখানো মাংসটি এবার চুলায়  হালকা আঁচ রেখে জ্বাল দিতে হবে। এবার দুই কাপ পানি দিয়ে আবারো ঢাকনা দিয়ে দিন। মাংস সেদ্ধ হতে সময় লাগবে। যদি মাংস সেদ্ধ না হয় তবে আবারো গরম পানি এবং জাল বাড়িয়ে নিন। ঝোল শুকিয়ে, মাংস নরম হয়ে গেলে রান্নার পাত্রটি সরিয়ে রাখুন। এবার অন্য একটি কড়াই নিয়ে, তাতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুঁচি এবং কাঁচা মরিচ ভাঁজতে থাকুন। সোনালী রং হয়ে আসলো সেই কড়াইতে গরুর মাংস দিয়ে, হালকা আঁচে ভাজতে হবে। মাংস কাল হয়ে যাওয়া পর্যন্ত নাড়তে থাকুন, খেয়াল রাখতে হবে যাতে মাংস পুড়ে না যায়। সবশেষে রান্নাটি নামানোর আগে লবণটি চেখে নিন। কালা ভুনার স্বাদ আরো বাড়াতে খাঁটি সরিষার তেল ব্যবহার করুণ।
৪.গার্লিক বিফ
যারা গরুর মাংস ঝাল করে খেতে পছন্দ করেন তাদের জন্য গার্লিক বিফের তুলনা হয় না। ঈদের দিন ঘরেই পাবেন রেস্তোরাঁর গার্লিক বিফের মজাদার স্বাদ।
প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ কাপ, আদা ও রসুন বাটা আধা চা চামচ, রসুনের কোয়া ৪/৫টি, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, টেস্টিং সল্ট সামান্য, তেল আধা কাপ, মাংসের মসলা আধা চা চামচ, টমেটো সস আধা কাপ, টক দই ১ কাপ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ স্বাদ মতো।
প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে কেটে নিন। একটি পাত্রে মাংস, হলুদ, মরিচ, টক দই, আদা, রসুন, লবণ, ধনে, জিরা গুঁড়া, টেস্টিং সল্ট ভালো করে মিশিয়ে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে। কষাণো হলে সামান্য পানি দিয়ে নেড়ে ঢেকে রাখতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে টমেটোসস, কাঁচামরিচ ফালি ও রসুনের কোয়া দিয়ে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।
৫. কাটা মসলায় বিফ ভুনা
ঈদের দিন খিচুরী বা পোলাও দিয়ে গরুর মাংস ভুনা খাওয়ার কথা চিন্তা করলেই জিভে পানি এসে যায়। আর এই ভুনা মাংস যদি হয় কাটা মসলার ভুনা তাহলে তো কথাই নেই। ঈদের আনন্দ হয়ে যাবে দ্বিগুণ।
প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চা চমচ, রসুন বাটা আধা টেবিল চামচ, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া সামান্য, দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা ১/২টি, শুকনো মরিচ কাটা ১৫/২০টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, টক দই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, তেল পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালী: টক দই দিয়ে মাংস আধা ঘন্টা ভালো করে মেরিনেট করে রেখে দিতে হবে। চুলায় তেল গরম হলে মাংস ছেড়ে দিয়ে ভালো করে ভাজতে হবে। ভাজা হলে পেঁয়াজ কুচি ও শুকনো মরিচ দিতে হবে। এবার সব মসলা মাংসে দিয়ে ভালো করে কষাতে হবে। কষানো হলে একটু পানি দিয়ে দমে বসিয়ে রাখতে হবে। মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন কাটা মসলায় বিফ ভুনা।
৬. গরুর কড়াই গোস্ত
কাশ্মীরি পোলাও এর সঙ্গে সব থেকে বেস্ট যে আইটেমটি যায় তাহলো গরুর কড়াই গোস্ত।
প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, রসুন কোয়া ২/৩টি, মাংসের মসলা ১ চা চামচ, দারচিনি ও এলাচ ৩/৪ টুকরো, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, টমেটো কিউব ১ কাপ, তেজপাতা ২টি, তেল ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিয়ে একটি পাত্রে মাংস, টক দই, লবণ ও সব মসলা একসঙ্গে ভালো করে মেখে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে অর্ধেক পেঁয়াজ কুচি, দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা হালকা বাদামী করে ভেজে মেরিনেট করা মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে। ৪ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে মৃদু আঁচে রান্না করতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে ও মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে রাখতে হবে। তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি, রসুনের কোয়া, টমেটো কিউব হালকা বাদামী করে ভেজে মাংস কড়াই এ দিয়ে ২/৩ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন। ব্যস তৈরি হয়ে যাবে গরুর কড়াই গোস্ত।
৭. গরুর মাথার মাংস ভুনা
অনেকেই আছেন গরুর মাংস থেকে গরুর মাথার মাংস খেতে বেশি পছন্দ করেন। তবে যেমন তেমন করে রান্না করলে কেউ তেমন একটা পছন্দ করবে না এই খাবারটি। তাই নতুন রেসিপি দিয়ে এবার রান্না করেই দেখুন গরুর মাথার মংস ভুনা।
প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাথার মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, টমেটো কুচি আধা কাপ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, সরিষার তেল আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, তেজপাতা ২টি, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ।
প্রস্তুত প্রণালী: তেলে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে হলুদ গুঁড়া, তেজপাতা, মরিচ গুঁড়া, আদা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, টমেটো দিয়ে কষাতে হবে। তারপর পরিমাণ মতো গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। গরম মসলা গুঁড়া, জিরা গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, জয়ফল ও জয়ত্রী গুঁড়া দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে পরিবেশন করুন ভাতের সঙ্গে।
গরুর মাংসের মজাদার রান্না গুলো আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। তাহলে আর দেরি না করে এখনি প্রস্তুতি নিন রান্না করার জন্য। কারণ ঈদ আসন্ন।
লেখক : সরকারি বিএল কলেজ, খুলনা।

 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

বদলে যাবে মংলা বন্দর

বদলে যাবে মংলা বন্দর

০৩ জুলাই, ২০১৮ ০২:০১













ব্রেকিং নিউজ





যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

যশোরে সাংবাদিক নোভার  আত্মহত্যা

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:৫৬